মাথা ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি

Ways To Get Rid of Headacheআগের একটি লেখায় জানিয়েছিলাম কিভাবে দারুচিনি ও আদার সাহায্যে মাথা ব্যথা দূর করবেন। এই লেখায় জানাচ্ছি আরও কিছু পদ্ধতি যা মাথা ব্যথা বিশেষ করে সাইনাসের (sinus) কারণে সৃষ্ট মাথা ব্যথা দূর করতে (get rid of headache) খুব সাহায্য করবে।

১. ভিটামিন সি যুক্ত খাবার খান (vitamin C):

ভিটামিন সি যুক্ত খাবারগুলোতে এন্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা সাইনাস ইনফেকশনের (sinus infection) প্রতিকার করতে সাহায্য করে। ফুলকপি, লেবু, কমলা ইত্যাদি টক জাতীয় ফল ও সবজিতে ভিটামিন সি রয়েছে। প্রতিদিন ২-৩ কাপ লেবুর রস মিশ্রিত গরম চা পান করুন, মাথা ব্যথার সমস্যা থেকে ধীরে ধীরে মুক্তি পাবেন।

২. গরম পানি পান করুন (drink warm water):

সাইনোসাইটিসে (sinusitis) আক্রান্ত ব্যক্তিদের নাক জ্বালা-পোড়া ও প্রদাহ নৈমিত্তিক ব্যাপার। এ থেকে মুক্তি পেতে কুসুম গরম পানি পান করুন। এতে আপনার মাথা ব্যথার পরিমাণও কমে আসবে।

৩. বাষ্প মাথা ব্যথা দূর করে (steam):

বাসায় বসে মাথা ব্যথা দূর করতে বাষ্প বা গরম পানির ভাপ বেশ কার্যকর। একটি পাত্রে ১০-১৫ মিনিট ধরে পানি গরম করুন, এবার একটি তোয়ালের সাহায্যে নিজের মাথা ও পাত্রটি এমনভাবে ঢাকুন যাতে বাষ্প ছড়িয়ে না পড়ে। এবার নিঃশ্বাসের সাথে বাষ্প গ্রহণ করুন। আরও ভাল ফল পেতে পানি গরম করার পূর্বে এতে ইউক্যালিপটাস তেল মিশিয়ে নিতে পারেন।

৪. ধোঁয়া ও ধুলোবালি থেকে দূরে থাকুন (stay out of smoke and dirt):

ধোঁয়া ও ধুলোবালি থেকে সাইনোসাইটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিরা দূরে থাকার চেষ্টা করুন। কারণ দিন শেষে এগুলোই মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। বাইরে যাওয়ার সময় অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন এবং ধূমপান ত্যাগ করুন।

৫. খাদ্যতালিকায় রাখুন রসুন (eat garlic everyday):

রসুন সাইনাসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য বেশ উপকারী। নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া দূর করার পাশাপাশি এটি মাথা ব্যথাও সারিয়ে তোলে। প্রতিদিন ১-২ টুকরো রসুন কাঁচা খাওয়ার চেষ্টা করুন। যদি কাঁচা রসুন মুখে দুর্গন্ধ তৈরি করে তবে রসুনের আচারও খেতে পারেন।

এ ধরণের আরও লেখা পড়ুনঃ

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।