জেনে নিন রূপচর্চায় গোলাপজলের অসাধারণ ব্যবহার

Rosewater-glycerine-benefits
গোলাপের পাঁপড়ি থেকে তৈরি করা হয় গোলাপজল আমরা সবাই তা জানি। কিন্তু এই গোলাপজল দিয়ে রূপচর্চা করতে পারি এটা হয়তো আমাদের অনেকেরই অজানা। গোলাপজল ব্যবহারে আমরা আমাদের ত্বককে বাজারের বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াযুক্ত কেমিক্যাল থেকে রক্ষা করতে পারি । গোলাপজলই পারে শরীরের বিভিন্ন দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি দিতে, সতেজ রাখতে পারে সারাটা দিন ও ফিরিয়ে আনতে পারে চেহারার উজ্জলতা। জেনে নিন তা কীভাবে সম্ভব।

১) গোলাপজল পরিস্কারক হিসেবে কাজ করে। তাই আপনি নিজেকে সতেজ রাখতে বাইরে যাওয়ার আগে হাতের তালুতে ২-৩ ফোঁটা গোলাপজল নিয়ে তা ভালোভাবে মুখে লাগিয়ে নিন। ৫ মিনিট রেখে পাতলা সুতি কাপড় দিয়ে হাল্কা করে ঘষে পানি দিয়ে পরিস্কার করে ফেলুন। এতে আপনার ত্বক উজ্জ্বল দেখাবে। ফেইসওয়াশ ব্যবহার করতে হবেনা।

২) টেবিল চামচ মুলতান মাটির সাথে পরিমাণমত গোলাপজল মিক্সড করে ফেইস প্যাক তৈরী করুন। এবার তা মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ফেসিয়াল টিস্যু দিয়ে ভালোকরে তুলে ফেলুন। ঠাণ্ডা পানি দিয়ে চেহারা ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি প্রতিমাসে একবার করে লাগাতে পারেন। এতে লোম কেশের গোড়া পরিষ্কার থাকবে।

৩) অনেকের মুখের ব্রণের দাগ, ছোট ছোট কালো দাগ সহজে উঠেনা। এক্ষেত্রে ধনেপাতাকে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন যাতে ধনে পাতার পেস্টটা মিহি হয়। ধনেপাতার পেস্টে পরিমাণ মত গোলাপজল মিশিয়ে চেহেরার আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন। এরপর ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে চেহারার দাগ দূর হয়ে যাবে। আপনি চাইলে গোলাপজলের এই প্যাকটা ফ্রিজে ১ সপ্তাহ সংরক্ষণ করতে পারেন।

৪) ঘামের দুর্গন্ধ সবার কাছে অসহ্য লাগে। অনেকে এটা নিয়ে মানসিকভাবে অস্থির থাকেন। আর অস্থিরতা থেকে নিজেকে মুক্ত করতে খুঁজে ফেরেন নানান উপায়। যাদের এই সমস্যা আছে তারা প্রতিদিন ঘুমানোর আগে ১ চা চামচ গোলাপজল তুলার সাহায্যে বগলের নিচে লাগিয়ে নিন। সকালে ঘুম থেকে উঠে গোসল করার সময় বগলের নিচে ভালোভাবে পরিষ্কার করুন। প্রতিদিন ব্যবহারের ফলে আপনার ঘামের দুর্গন্ধ দূর হবে।

নিজেকে সতেজ রাখতে প্রতিদিন গোসলের পানির সাথে গোলাপজল মিশিয়ে গোসল করলে নিজেকে ফুরফুরে লাগবে এবং সারাটি দিন প্রাণবন্ত থাকবেন।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।