ত্বক ও চুলের যত্নে কলার ব্যবহার

banana

কলার স্বাস্থ্য উপকারিতার সাথে সাথে এটি আমাদের রূপচর্চায় বহুল ব্যবহৃত একটি ফলের নাম। কলা খেলে যেমন বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার সহজ সমাধান পাওয়া যায় ঠিক একইভাবে কলা রূপচর্চায় ব্যাবহারের মাধ্যমে আমাদের ত্বক, চুল ও শরীরের অন্যান্য অঙ্গগুলো সুন্দর আর আকর্ষণীয় করে তোলা যায়।

কলা ভিটামিন, মিনারেল, অ্যামিনো অ্যাসিড, পটাশিয়াম আর ন্যাচারাল অয়েলের এক বিশাল উৎস যেটা আমাদের ত্বক আর চুলের জন্য ভীষণ উপকারী।

ত্বকের যত্নে কলাঃ

* যদি ন্যাচারালি ত্বক মশ্চারাইজ করতে চান তাহলে কিছুটা কলা নিয়ে সেটা ভালোভাবে পেস্ট করে ত্বকে ১২ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিন। দেখবেন ত্বক কেমন সফট আর মসৃণ হয়ে উঠবে।

* ত্বকের বলিরেখা কমাতে কলা চটকে ক্রিম আকারে নিয়ে আসুন এবং এটি ত্বকে লাগান। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

* ত্বকের শুষ্কভাব কমাতে এবং পা ফাটা কমাতে কলা খুব কাজের। আপনার শুষ্ক ত্বকে বা পা ফাটাতে কলা চটকে লাগান ১০ মিনিট অপেক্ষা করে প্রথমে কুসুম গরম এবং পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

* আপনার শুষ্ক ত্বক উজ্জ্বল করতে খানিকটা কলা আর অল্প পরিমাণ চিনি একসাথে নিয়ে মুখে আলতো ম্যাসাজ করুন। এটি ত্বকের মরা কোষ উঠিয়ে ত্বক উজ্জ্বল করবে।

* আপনার তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে এক চামচ দুধ, দুই চামচ লেবুর রস আর কিছুটা কলা পেস্ট করে ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন এবং পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

* তাৎক্ষণিক ত্বক উজ্জ্বল করতে এক চামচ চন্দন পাউডার, এক চামচ মধু ও পরিমাণ মতো কলা পেস্ট করে ত্বকে লাগান দেখবেন ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

চুলের যত্নে কলাঃ

* চুল পরা রোধ করতে দই আর কলা পেস্ট করে মাথার ত্বকে লাগিয়ে ১ ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে ফেলুন, এটি চুল পরা কমাতে সাহায্য করবে।

* চুল কন্ডিশনিং করতে কলা,  Avocado ও নারিকেলের দুধ একসাথে একটি প্যাক বানিয়ে চুলে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি ড্যামেজ চুল ন্যাচারালি সফট করে।

* চুল স্বাস্থ্যবান ও ঝলমলে করতে কলা, এক থেকে দুই কাপ অলিভ ওয়েল ও একটি ডিমের সাদা অংশ ব্লেন্ড করে ১৫ মিনিট চুলে লাগিয়ে রাখুন। পরে আপনার পছন্দের শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

* শুষ্ক চুল মসৃণ করতে তিন চামচ মধু ও পরিমাণ মতো কলা মিশিয়ে ভেজা চুলে লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

* চুল সিল্কি আর সাইনি করতে কলা পেস্ট করে এর সাথে কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল মিশিয়ে চুলে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিন। কলার ভিটামিন এ ও সি আর আমন্ড অয়েলের ভিটামিন ই চুলকে ঝলমলে আর মসৃণ করবে।

প্রতিদিন নাশতার টেবিলে কলা রাখার পাশাপাশি আপনার রূপচর্চার উপাদানের তালিকায় কলা অন্তর্ভুক্ত করলে আপনি ভেতর বাহির দুই দিকের সুস্থ আর সুন্দর হয়ে উঠবেন।

সোর্সঃ http://www.stylecraze.com/articles/amazing-benefits-and-uses-of-using-banana-for-skin-and-hair/