আপনার ঘরের শখের কাঠের আসবাবপত্রের যত্ন

furnitureআপনার সুন্দর করে বানানো বাড়ির সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে আসবাবপত্রের কোন তুলনা হয়না। আর সেই আসবাবপত্র যদি হয় কাঠের তাহলে সৌন্দর্য বৃদ্ধির সাথে সাথে এটি আপনার আভিজাত্য বৃদ্ধিতেও বিশেষ ভূমিকা রাখে। আপনার ঘরে ঢুকেই কেউ যদি আধুনিক আর মনোমুগ্ধকর ডিজাইনের কাঠের ফার্নিচার দেখে তাহলে চট করে আপনার সম্পর্কে তার একটি অভিজাত রুচিশীল মানুষের ইমেজ তৈরি হবে। তবে হ্যাঁ কেবল ঘর ভর্তি করে আসবাবপত্র জোরো করে রাখলেই হবেনা, আপনাকে এগুলের সৌন্দর্য ধরে রাখতে যত্নবান হতে হবে। আসুন আপনার শখের কাঠের আসবাবপত্রের যত্নে কিছু পরামর্শ দেওয়া যাক।

কাঠের আসবাবপত্রের যত্ন নিতে আপনার করণীয়ঃ

  • আপনার কাঠের ফার্নিচারের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ঘন ঘন একে পালিশ করবেন না। লাভের চেয়ে ক্ষতি বেশী হবে। আর নানা ধরণের পালিশ ব্যবহার না করে যেকোন এক ধরণের পালিশ লাগান।
  • সূর্যের আলো থেকে আপনার ফার্নিচার দূরে রাখুন। সূর্যের তাপ বা রোদ আপনার ফার্নিচারের রং বিবর্ণ করে দেয়, এমনকি কাঠের ফার্নিচারে ফাটল ধরিয়ে দেয়। তাই রোদের থেকে এগুলো দূরে রাখুন আর ঘরে রোদের আসা যাওয়া বেশী হলে মোটা পর্দা ব্যবহার করুন জানালায়।
  • কাঠের ফার্নিচারের খাঁজে ময়লা জমলে ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করুন। নিয়মিত পরিষ্কার না করলে আপনার শখের ফার্নিচার তার চাকচিক্য হারাবে।
  • কাঠের ফার্নিচারের ময়লা বা ধুলোবালি পরিষ্কার করতে কখনোই ভেজা কাপড় বা পানি ব্যবহার করবেন না। এতে ফার্নিচারের নং নষ্ট হয় আর পানিতে ফার্নিচার নষ্ট হয়ে যায়। তাই শুকনো কাপড় দিয়ে ফার্নিচার মুছুন প্রয়োজনে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার করুন।
  • কাঠের ফার্নিচার সুন্দর আর চকচকে রাখতে চাইলে ভাল কোয়ালিটির পেস্ট ওয়্যাক্স ব্যবহার করুন। কাঠের ওপর প্রটেকটিভ লেয়ারের কাজও করবে। বছরে একবার এই পদ্ধতি ট্রাই করতে পারেন।
  • কাঠের ফার্নিচারের অন্যতম সমস্যা হল পোকামাকড়ের আক্রমণ। আর তাই ছয় মাস পর পর নিমের তেল ব্যবহার করুন, পোকামাকড়ে আক্রমণ হলে যে ফার্নিচার উপদ্রপের শিকার হয় সেটি আলাদা করে রাখুন।
  • বেসমেন্ট, গ্যারেজ বা চিলেকোঠায় ফার্নিচার রাখবেন না। কারণ অতিরিক্ত ঠান্ডা, গরম বা আবদ্ধ জায়গায় কাঠ নষ্ট হতে পারে।
  • কাঠের ওপর প্রায়শই গোল রিংয়ের মতো দাগ রয়ে যায়। সেক্ষেত্রে মোটা ব্লটিং পেপার দিয়ে চেপে ধরুন। তারপর ব্লটিং পেপার সরিয়ে অলিভ অয়েল, মেয়নিজ দিয়ে দাগের উপর ঘষুন। শুকনো করে মুছুন। তারপর পলিশ করে নিতে পারেন।
  • পানির গ্লাস বা গরম পাত্র রাখলে কাঠের রং সাথে সাথে নষ্ট হয়ে যায়, তাই উপযুক্ত কোস্টারের ওপর পানির গ্লাস বা গরম পাত্র রাখুন।

উপযুক্ত যত্নের অভাবে আপনার কাঠের ফার্নিচার নষ্ট হয়ে যেতে পারে, তাই উপরের পরামর্শগুলো মেনে চলুন আপনার শখের ফার্নিচার দীর্ঘদিন আপনার ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে যাবে।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।