পাওয়ার পয়েন্টে প্রেজেন্টেশন তৈরির সময় যে বিষয়গুলো মনে রাখা জরুরী

Siemens-Set-9অফিস বা ক্লাসে পাওয়ার পয়েন্টে তৈরি প্রেজেন্টেশন আজকাল অপরিহার্য হয়ে উঠেছে। যে কোন সাধারণ বিষয়কে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন করে তুলতে পারে অত্যন্ত আকর্ষণীয় অথবা দুর্বোধ্য বিষয়কে করে তুলতে পারে সহজে। এই পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন তৈরিতে আমরা কিছু সাধারণ ভুল করে থাকি যা মনোযোগ নষ্ট করে দর্শকের। তাই জেনে নিন পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন তৈরির কিছু প্রাথমিক বিষয় সম্পর্কে।

১. সম্পূর্ণ প্রেজেন্টেশনের জন্য একটি টেম্পলেট নির্বাচন করুনঃ

এক এক স্লাইডে এক এক ডিজাইনের টেম্পলেট, আপনার প্রেজেন্টেশনকে আকর্ষণীয় করার চেয়ে অসুন্দরই করে তুলে বেশি। তাই একটি মার্জিত এবং দৃষ্টিনন্দন টেম্পলেট নির্বাচন করুন সম্পূর্ণ প্রেজেন্টেশনের জন্য।

২. কালো ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করবেন নাঃ

কালো ব্যাকগ্রাউন্ডে সাদা অথবা অন্যান্য রঙ কম্পিউটারে স্পষ্ট বুঝা গেলেও যখন প্রজেক্টর দিয়ে উপস্থাপন করা হয় তখন তা ঝাপসা হয়ে পড়ে। তাই কালো ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার না করাই শ্রেয়।

৩. আকর্ষণীয় গ্রাফিক্স ব্যবহার করুনঃ

শুধুমাত্র লেখা দিয়ে স্লাইড পূর্ণ না করে, উপযুক্ত স্থানে চার্ট, টেবল, গ্রাফ ইত্যাদি যোগ করুন। এতে আপনার প্রেজেন্টেশনের প্রতি দর্শকের মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে।

৪. যোগ করুন ছবিঃ

একটি উপযুক্ত ছবি অসংখ্য কথার চেয়ে বেশি মনোভাব প্রকাশ করতে পারে। তাই স্লাইডে প্রাসঙ্গিক ছবি যোগ করুন। তবে অতিরিক্ত ছবি দর্শকের মনোযোগ নষ্ট করতে পারে তাই সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখুন।

৫. ফন্ট নির্বাচনে সতর্ক হনঃ

প্রেজেন্টেশনকে আকর্ষণীয় করার জন্য অনেক সময় আমরা কম প্রচলিত ফন্ট ব্যবহার করি বা ইন্টারনেট থেকে ফন্ট ডাউনলোড করে নিই। যদি কম্পিউটার পরিবর্তন হয় তখন দেখা যায় সম্পূর্ণ প্রেজেন্টেশনটিই এলোমেলো হয়ে পড়েছে। তাই, Arial বা Times new roman ধরণের প্রচলিত ফন্ট ব্যবহার করুন। এছাড়া ফন্টের সাইজ ও বড় রাখুন যাতে তা দূর থেকে পড়তে কোন সমস্যা না হয়।

৬. প্রেজেন্টেশনে অডিও এবং ভিডিও যোগ করুনঃ

প্রাসঙ্গিক অডিও এবং ভিডিও আপনার প্রেজেন্টেশনকে নতুন মাত্রা এনে দিতে পারে। এছাড়া দর্শকদেরও রক্ষা করে একঘেয়েমি থেকে।

৭. লেখায় এনিমেশন যোগ করার প্রবণতা বন্ধ করুনঃ

পাওয়ার পয়েন্টে অসংখ্য এনিমেশন রয়েছে যা লেখার সাথে যুক্ত করলে তা আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠে বলে ধারণা করা হয়। কোন বিনোদনমূলক প্রেজেন্টেশনের জন্য এনিমেটেড লেখা উপযুক্ত হলেও প্রফেশনাল প্রেজেন্টেশনের জন্য তা একেবারেই অনুপযুক্ত। যতক্ষণ এনিমেশন থেমে লেখাটি স্থির না হচ্ছে ততক্ষণ কেউই তা পড়তে পারেন না, নষ্ট হয় অমূল্য সময়। তাই লেখায় এনিমেশন যোগ করা থেকে বিরত থাকুন।

সর্বোপরি, আপনার প্রেজেন্টেশনকে যতটা সম্ভব সহজ এবং সাধারণ রাখতে চেষ্টা করুন। কারণ প্রেজেন্টেশনের মূল উদ্দেশ্যে কোন বিষয়কে দর্শকের কাছে সহজ করে তোলা।

পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন নিয়ে আরও পড়ুনঃ
১. যেভাবে আকর্ষণীয় করে তুলবেন আপনার প্রেজেন্টেশনকে
২. শিক্ষার্থীদের জন্য প্রেজেন্টেশন তৈরি ও উপস্থাপনের কিছু পরামর্শ

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।