অলসতাকে জয় করে হয়ে উঠুন উদ্যমী

LAZINESSকোন কাজ করার সামর্থ্য-সুস্থতা থাকা সত্ত্বেও নিছক ইচ্ছার অভাবে কাজ জমে পাহাড় সম করে ফেলার প্রবণতাকে বলে অলসতা (laziness)।বলা যায় জীবনের সফলতার পথে এটি একটি বড় অন্তরায়। অনেক সম্ভাবনা আমাদের অলসতার কারণে অকালে প্রাণ হারায়। ফলে একটা সময় গিয়ে অনুশোচনা হয় কেন একটু কষ্ট করলাম না. করলে আজ অনেক কিছু হতে পারতাম। অলস থাকতে থাকতে ব্যক্তি নিজেকে হতাশায় জড়িয়ে ফেলে।একটু ইচ্ছাশক্তি বদলে দিতে পারে অনেক কিছুই। একমাত্র সময়ের কাজ সময়ে করার মাঝেই থাকে জীবনের সফলতা।

নিয়মিত ঘুম ও বিশ্রাম নেওয়া (proper sleep and rest)

ঘুমে অনিয়ম, রাত জাগা,পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়া,অতিরিক্ত আরাম আয়েশ ইত্যাদি কারণে অলসতা আমাদের জড়িয়ে ধরে। প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে ও পরিমাণ মত (৭-৮ ঘন্টা)ঘুম এবং পর্যাপ্ত বিশ্রাম কাজে মনযোগী হতে সাহায্য করে।

নিয়মিত ব্যায়াম করা (regular exercise)

ভোরে ঘুম থেকে উঠা,সকালের শান্ত আবহাওয়ায় হাঁটাহাটি করা, অল্প ব্যায়াম করা ইত্যাদি অলসতাকে ঝেড়ে ফেলে মনকে প্রাণবন্ত করে। সময়ের প্রতি সচেতনতা তৈরী করে।

খাদ্যাভাস পরিবর্তন করতে হবে (healthy diet)

দেহে পুষ্টির অভাব,শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তি সঞ্চয় না হলে,ওজন অতিরিক্ত হলে তা আমাদের আগ্রহকে কমিয়ে দেয়। তাই পর্যাপ্ত শাক সবজি ,অনান্য স্বাস্থ্যকর খাবার খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে। যেসব খাবার ক্ষুধা নষ্ট করে দেয় যেমনঃবার্গার,হট ডগ জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

নিজেকে গোছালো করতে হবে (be arranged)

ঘর,অফিস কিংবা পড়ার টেবিল যাই হোক তা যদি সাজানো-গোছানো না থাকে তবে মনের মধ্যে এক ধরণের অ্নীহা তৈরি করে। অপর দিকে গোছালো পরিবেশে কাজের আগ্রহ সৃষ্টি হয়। তাই অলসতাকে কাঠিয়ে উঠার উত্তম হাতিয়ার হল নিজেকে গোছালো করা , নিজের চারপাশ গোছানো রাখা।

কাজের তালিকা তৈরী করা (work list)

কাজ জমে যাতে কাজের প্রতি বিরক্তি না আসে সেজন্য প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগের পরেরদিনের কাজের তালিকা করে রাখতে হবে। সেটির প্রতি দায়িত্বশীল হতে হবে। দিনের কাজ দিনে শেষ করার মানসিকতা তৈরি করতে হবে। নিজের মধ্যে তাগিদ সৃষ্টি করতে তালিকাটি সাথে রাখতে হবে।

কাজের গুরুত্ব ও ফলাফল চিন্তা করা (importance and consequences)

কোন কাজ করলে লাভবান হবেন এবং অলসতায না করলে আপনার ক্ষতি হবে। তাই সবসময় কাজের ফলাফল নিয়ে চিন্তা করতে হবে যা ব্যক্তির মাঝে কাজের গুরুত্ব তৈরি করে। সাথে সাথে নিজের রুমে সফল মানুষের ছবি রাখা যেতে পারে ।যা আপনাকে আরো উৎসাহ যোগাবে।

একটা দিন ছুটি নেয়া (holiday)

সপ্তাহের সাত দিন কাজ না রেখে একটা দিন ছুটি নিতে হবে। কেননা কাজের পাশাপাশি বিনোদন ও জরুরী। এতে করে একঘেঁয়েমী ভাব কাটানো যায়। যা পুনরায় কাজে ফিরে যেতে মনে শক্তি যোগায়। মন ও শরীরে ফুরফুরে ভাব আনে। ফলে কাজের প্রতি ভালোবাসা তৈরী হয়।

পড়াশোনা কিংবা অন্য যেকোন কাজ অলসতায় (laziness) ফেলে রাখলে ভোগান্তি দিয়ে তার মাশুল গুনতে হয়। আমরাই অলসতাকে প্রশ্রয় দিই,আমরাই পারি এটকে জয় করতে। কালকের জন্য ফেলে না রেখে আজই সেরে ফেলুন। দৈনন্দিন জীবনে কিছু নিয়ম মেনে চলতে পারলে সব সম্ভব হয়ে উঠে।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।