ব্লগিংকে পেশায় পরিণত করার পূর্বে এই বিষয়গুলো আপনার জানা প্রয়োজন

Things You Need To Know Before Becoming A Full-Time Bloggerআমাদের দেশে ব্লগিং জনপ্রিয় হয়েছে অনেক আগেই। ব্লগ থেকে অনেক সামাজিক কার্যকলাপও পরিচালনা করা হয়েছে যা প্রশংসা কুড়িয়েছে। এই ব্লগিংকে এখন অনেকে পেশা হিসেবে নেয়ার কথা ভাবছেন (professional blogging)। ব্লগিং অবশ্যই একটি সম্মানজনক পেশা, তবে অন্যান্য পেশার ধরণ থেকে এটি একটু আলাদা। ব্লগিংকে পেশা হিসেবে নেয়ার আগে বেশ কিছু বিষয়ে আপনার স্বচ্ছ ধারণা রাখা প্রয়োজন। নাহলে মাঝপথে গিয়ে হতাশ হতে পারেন।

• ব্লগের সাফল্যের জন্য প্রয়োজন প্রচুর সময়। তাড়াহুড়া করবেন না (it takes time)

আপনার ব্লগকে সফল করে তুলতে চাইলে প্রথমে তৈরি করে নিতে হবে পাঠক (audience), যারা নিয়মিত স্বেচ্ছায় আপনার ব্লগে আসবে। আর এই কাজটির জন্য প্রয়োজন অনেক সময়, ধৈর্য ও প্রচারণার। যদি রাতারাতি ব্লগিং করে সাফল্য পেতে চান তবে সে ধারণা মন থেকে মুছে ফেলুন আজই।

• ব্লগকে সেভাবেই পরিচর্যা করুন যেমনটা করতেন নতুন কোন ব্যবসা শুরু করলে (treat it like a business)

অন্য যে কোন ব্যবসা থেকে ব্লগিং আলাদা নয়। আপনি এর পেছনে আপনার সময় ব্যয় করছেন, পরিশ্রম করছেন, মেধা কাজে লাগাচ্ছেন এবং আশা করছেন মুনাফা লাভের (profit)। তাই অন্য কোন ব্যবসার পেছনে যে পরিমাণ শ্রম, ধৈর্য ও মানসিক দৃঢ়তাকে কাজে লাগাতেন, ব্লগিং এর জন্যও তা করতে প্রস্তুত থাকুন।

• ব্লগের কনটেন্টের মতই সমান গুরুত্ব দিন নেটওয়ার্কিংকে (networking is important)

যদি একটি ব্লগের সাফল্যের পেছনে দুটি জিনিসের তালিকা তৈরি করা হয় তাহলে প্রথমে থাকবে কনটেন্ট এবং এর পর পরই থাকবে নেটওয়ার্কিং (networking)। প্রত্যেক সফল ব্লগারই অন্যান্য ব্লগার এবং মার্কেটারের সাথে সুসম্পর্ক রাখেন। আপনি বিভিন্ন পদ্ধতিতে এই কাজটি করতে পারেন। যেমনঃ ইন্টারনাল লিংক এক্সচেঞ্জ, সোশাল মিডিয়া শেয়ার, শেয়ারের অনুরোধ এবং উপদেশ, ব্যক্তিগত পরামর্শ এবং ব্লগের পার্টনার হওয়ার সুযোগ দান ইত্যাদি।

• প্রচুর নতুন পোস্ট তৈরি পরিবর্তে গুরুত্ব দিন মানসম্মত পোস্ট তৈরিতে (valuable content)

অধিকাংশেরই ধারণা প্রতিদিন প্রচুর নতুন লেখাই ব্লগের ভিজিটর বৃদ্ধি করবে। এ ধারণাটি একদিন থেকে যেমন সঠিক আবার অন্য দিক থেকে বিবেচনা করলে সঠিক নয়। প্রচুর নতুন পোস্ট (blog post) তৈরির জন্য আপনাকে অনেক নতুন বিষয় নিয়ে গবেষণা করতে হবে। নির্দিষ্ট কোন বিষয়ে পূর্ণ মনোযোগ দিতে পারবেন না। ফলে পোস্টের মান হবে প্রাথমিক পর্যায়ের। এতে করে পাঠক যা জানতে আগ্রহী তা আপনার লেখা থেকে নাও পেতে পারে। এর পরিবর্তে কোন বিষয়ে অনেক বেশি তথ্য সম্বলিত লেখা একদিক থেকে পাঠকের সম্পূর্ণ চাহিদা যেমন পূরণ করে অপরদিকে তাদের পরিণত করবে নিয়মিত পাঠকে।

এ ধরণের আরও কিছু লেখা

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।