মাথার উকুন দূর করুন খুব সহজেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে

lice

মাথা ভর্তি সুন্দর আর লম্বা লম্বা চুলের সাথে যদি ফ্রিতে উকুনও থাকে তাহলে সেই যন্ত্রণার তুলনা মনে হয় আর কিছুতে হয়না। মাথার চুলে উকুন হওয়া একটা খুবই বিড়ম্বনার ব্যাপার।

দেখা গেলো আপনি খুব সুন্দর করে চুল আঁচড়ে খোপা বেঁধেছেন ,তারপর দেখলেন উকুনের কারণে একটু পর পর মাথা চুলকাতে, কিংবা আপনার বাঁধা চুলে উকুন উঁকিঝুঁকি মারছে।

কি লজ্জার ব্যাপার বলুন তো!

আমাদের দেশে বিভিন্ন উকুন নাশক সাবান এবং তেল আছে উকুন মারার জন্য। এ ধরণের সাবান বা তেল ব্যবহারে অনেকের চুল রুক্ষ শুষ্ক হয়ে যায়। অনেকের উকুন শেষ হওয়ার পাশাপাশি প্রচুর চুল পড়ে।

তাছাড়া সবার মাথার ত্বকের জন্য এগুলো সহনশীল নয়। তবে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতির মাধ্যমে আপনি উকুন থেকে মুক্তি পেতে পারেন সহজেই।

ভেষজ পদ্ধতি(Hearbal Treatment)

২ টেবিল চামচ নারিকেল তেল, ২ টেবিল চামচ পাতি লেবুর ও ২ টেবিল চামচ নিম পাতার রস এক সাথে মিশিয়ে আপনার চুলের গোঁড়ায় লাগান।

এক ঘণ্টা এভাবে লাগিয়ে রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার এভাবে লাগালে উকুন চলে যাবে ও আপনার চুলের সুস্বাস্থ্য বজায় থাকবে।


আরো পড়ুনত্বকের যত্নে ব্যবহার করুন লেবু


রসুন(Garlic)

১০ টি মতো রসুনের কোয়া নিয়ে ভালোভাবে পেস্ট করে এতে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে এই পেস্ট আপনার চুলের গোঁড়ায় লাগান। আধা ঘণ্টা পর সামান্য গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। উকুন সমূলে ধ্বংস হবে।


আরো পড়ুনসুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে রসুনের ৪ টি গুণ


বেবি অয়েল(Baby Oil)

চুলের উকুন দূর করতে আরও একটি ভালো উপাদান হল বেবি অয়েল। আপনার চুলে বেবি অয়েল লাগিয়ে চিরুনি চালানো শুরু করুন। এতে উকুন চুল থেকে পড়া শুরু হবে।

কিছুক্ষন এভাবে চিরুনি চালানোর পর কাপড় কাঁচা ডিটারজেন্ট পাউডার দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। রাতে শোবার আগে চুলে সাদা ভিনেগার লাগিয়ে নিয়ে চুল একটি কাপড় ডীয়ে মুড়ে রাখুন।

সকালে উঠে আপনার প্রতিদিনের ব্যবহার এর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। উকুন আপনার চুল থেকে সারাজীবনের জন্য বিদায় নেবে।

অলিভ অয়েল(Olive oil)

রাতে আপনার চুলে অলিভ অয়েল লাগিয়ে রেখে শুয়ে পড়ুন। সকালে উঠে চিকন দাঁতের চিরুনি দিয়ে মাথা আঁচরে ফেলুন।

এতে করে উকুন আপনার মাথা থেকে বের হয়ে আসবে। পড়ে আপনার মাথার চুল উত্তম রূপে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।


আরো পড়ুন– আসুন জেনে নেই অলিভ অয়েলের কিছু ব্যতিক্রমধর্মী ব্যবহার


লবণ(Salt)

আপনার চুলে লবণ ও ভিনেগার একসাথে মিশিয়ে স্প্রে করুন। একঘণ্টা এভাবে চুল ভেজা অবস্থায় রেখে ধুয়ে ফেলুন।

মনে রাখবেন চুলে শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই কন্ডিশনার লাগাবেন। এতে করে উকুন চলে যাওয়ার সাথে সাথে আপনার চুলও সুন্দর থাকবেন

পেট্রোলিয়াম জেলি(Petroleum jelly)

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পেট্রোলিয়াম জেলি আপনার চুলের গোঁড়ায় লাগান। সারারাত এভাবে লাগিয়ে রেখে সকালে চুলে বেবি অয়েল লাগিয়ে চিরুনি চালান। দেখবেন উকুন সব বের হয়ে যাবে।

ফেসওয়াস(Face wash)

যে কোন ফেইসওয়াশ চুলে লাগান।এরপর একবার চুল আঁচড়ে নিন অতিরিক্ত ফেইসওয়াশ দূর করার জন্য।এখন হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে চুল শুকিয়ে নিন।এর ফলে উকুন নিঃশ্বাস নিতে পারবেনা।


আরো পড়ুনজেনে নিন ফেসওয়াস ব্যবহারে কিছু সতর্কতা


কিন্তু এই পদ্ধতি রাতে করলে ভালো কারণ চুলে ফেইসওয়াশ প্রায় ৮ ঘণ্টার বেশি রাখতে হবে যেহেতু উকুন নিঃশ্বাস না নিয়ে প্রায় ৮ ঘণ্টার মত বেঁচে থাকতে পারে।

সকালে চুল ধুয়ে ফেলবেন। এটা প্রতি সপ্তাহে ২/৩ দিন করতে পারেন উকুন মারার জন্য।


সম্পর্কিত পোস্ট: