আসুন জেনে নেই ব্যবহার করা ফেলনা টি ব্যাগের কিছু অসাধারণ ব্যবহার

tea bag

“চা” আমাদের প্রতিদিনের একটি অন্যতম পানীয়য়ের নাম।

চা আমাদের জন্য যেমন খুব প্রয়োজনীয় একটি উপাদনের নাম ঠিক একইভাবে টি ব্যাগ দিয়ে বানানো চায়ের পর টি ব্যাগটি আমাদের কাছে ঠিক ততোটাই অপ্রয়োজনীয় একটি দ্রব্য।

চা খাওয়ার পর ব্যবহৃত টি ব্যাগটি আমরা সাধারণত ফেলেই দিই। কিন্তু এই ফেলনা টি ব্যাগগুলো যে কত গুরুত্বপূর্ণ কাজে লাগতে পারে তা শুনলে অনেকে অবাকই হবেন।

আজ আপনাদের বলবো এই ফেলনা টি ব্যাগের কিছু অসাধারণ ব্যবহারঃ

*আপনার শরীরের সানবার্ন, আঘাতের কারণে পড়া কালশিটে, কোথাও পুড়ে গেলে বা পোকামাড়ের কামড় যেমন, মৌমাছির কামড়, মশার কামড় এসবের জ্বালা থেকে মুক্তি পেতে টি ব্যাগের তুলনা হয়না।


আরো পড়ুন– সানবার্ন থেকে মুক্তি পান ঘরোয়াভাবেই


চায়ের এন্টি-ইনফ্লেমাটরি ও এন্টি-এলিয়াসিং উপাদান পোকা-মাকড়ের কামড়ের জ্বালা-পোড়া কমিয়ে দেয়। পাশাপাশি চুলকানি, লালভাবও কমিয়ে দেয়।

*প্রাকৃতিকভাবে ত্বক নরম আর কোমল রাখতে চান?

তাহলে ব্যবহার করার পর টি ব্যাগটি ফেলে না দিয়ে সংরক্ষণ করুন আর গোসলের পানিতে এই টি ব্যাগ কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে তারপর সেই পানি গোসলে ব্যবহার করুন।

ত্বক প্রাকৃতিক উপায়েই অনেক কোমল আর মসৃণ থাকবে।

*গরম বা ঠাণ্ডা যেকোন ধরণের টি ব্যাগ চোখের ক্লান্তিভাব আর ফোলাভাব কমিয়ে চোখ পুনরুজ্জীবিত করে তোলে। এছাড়াও চোখে অনেক সময় ব্যথা অনুভূত হয়।

এ অবস্থায় একটি হালকা গরম টি ব্যাগ দিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট প্রতিদিন ৩ বেলা। চায়ের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান চোখের এই সমস্যা সারাতে সাহায্য করে।


আরো পড়ুনচোখে পড়ে যায় সারাদিনের ক্লান্তির ছাপ?


*অনেকের পায়েই গন্ধ হয়ে থাকে যা খুব অস্বস্তিকর। শীতকালে এ সমস্যাটা বেড়ে যায়।

এ থেকে পরিত্রান পেতে ব্যবহার করা টি ব্যাগ পানিতে ফুটিয়ে সেই পানি কিছুটা ঠাণ্ডা করে তাতে পা ভিজিয়ে রাখুন ২০ মিনিট।

দেখবেন পায়ের বাজে গন্ধ গায়েব হয়ে যাবে এবং ব্যাকটেরিয়াও ধ্বংস হবে।

*পেঁয়াজ ও মাছ এই দুই জিনিসই কাটার পর হাতে বাজে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। অনেক সময় সাবান দিয়ে ধুয়েও এই গন্ধ যায়না।

আপনি যদি টি ব্যাগে মিশ্রিত পানি দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলেন তাহলে আর হাতে গন্ধ থাকবে না।

*ত্বক টোনিং করতে টি ব্যাগের তুলনা হয়না। ব্যবহার করার পর টি ব্যাগ ফেলে না দিয়ে সেটি আপনার ত্বকের টোনার হিসেবে ব্যবহার করুন।

শুধুমাত্র ব্যবহার করা টি ব্যাগটি আপনার ত্বকে হালকা ম্যাসাজ করার পর ত্বক শুকিয়ে গেলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।


আরো পড়ুনউজ্জ্বল ত্বক পেতে ঘরোয়া টোনার


*অনেক সময় আমাদের ঘরের বা বাথরুমের আয়নায় দাগ পড়তে দেখা যায়। এই দাগ তোলার কাজেও আপনি ব্যবহার করা টি ব্যাগ পরিষ্কারক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

একটি নরম কাপড়ের সাথে টি ব্যাগটি নিয়ে আয়নায় হালকা ঘষেই দেখুন দাগ চলে যাবে।

*গাছের সার হিসেবে ব্যবহার করা টি ব্যাগ খুব উপকারি। ব্যবহার করার পর টি ব্যাগ থেকে চায়ের পাতা বের করে রোদে শুকিয়ে তা গাছের গোঁড়ায় দিন। এতে গাছ তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি পাবে।

*অনেকেরই দাঁতের মাড়ি দিয়ে রক্তপাত হয় ও সাথে থাকে খুব ব্যথা। এই রক্তপাত ও ব্যথা কমাতে মাড়ির আক্রান্ত জায়গায় ব্যবহার করা টি ব্যাগ দিয়ে চেপে রাখুন।

চায়ের প্রাকৃতিক উপাদান মাড়ির রক্তপাত ও ব্যথা কমাতে সাহায্য করবে।

*আপনার থালা বাসনের চর্বি বা তেলভাব ডিশওয়াশ দিয়ে যাচ্ছেনা। রাতে খানিকটা গরম পানি ও দুই থেকে তিনটি ব্যবহার হয়ে যাওয়া টি ব্যাগ সহ থালা বাসন ভিজিয়ে রাখুন।

সকালে থালা বাসন পরিষ্কার করতে গিয়ে দেখবেন আর চর্বি বা তেলভাব নেই।


সোর্সঃ http://www.chasinggreen.org/article/25-ways-re-use-tea-bags/


সম্পর্কিত পোস্ট: