যদি পেতে চান ঝলমলে ও আকর্ষণীয় চুল

haircareনারী সৌন্দর্যের অন্যতম প্রতীক হচ্ছে চুল। ঝলমলে, ঘন, কাল আকর্ষণীয় চুল নারীর সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে তুলে। তাই সুন্দর শরীর ও ত্বক পেতে যেমন যত্ন প্রয়োজন, স্বাস্থ্যোজ্জল সুন্দর চুল পেতে চাইলেও যত্ন ও পরিচর্যার প্রয়োজন। কেননা স্বাস্থ্যোজ্জল, সুন্দর চুল আপনার সৌন্দর্য কে পরিপূর্ণ করে তোলে। আবহাওয়া এবং পরিবেশ চুলের উপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলে। তাই সঠিক পরিচর্যা না করলে চুলের সৌন্দর্য হারিয়ে যায়, চুল মলিন ও রুক্ষ হয়ে পড়ে। তাই সব ঋতুতে চুলের যত্ন নিতে সঠিক পরিচর্যা নেয়া জরুরি।

চলুন জেনে নেয়া যাক স্বাস্থ্যোজ্জল, সুন্দর চুল পেতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকরী পরামর্শঃ

১. সপ্তাহে তিন দিন চুলে শ্যাম্পু করবেন, তা না হলে ত্বকে ময়লা জমে খুশকি হতে পারে।

২. চুল এবং মাথার ত্বকের উপযোগী একটি শ্যাম্পু নির্দিষ্ট করুন। পাশাপাশি চুলকে নরম, মসৃণ ও ময়েশ্চারাইজ করতে ভাল ব্রান্ডের কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। কন্ডিশনার চুলকে ভেঙ্গে যাওয়া, রুক্ষ হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে। চুলকে জটহীন, নরম, মসৃণ ও আকর্ষণীয় করে তুলতে কন্ডিশনার খুবই জরুরী।

৩. প্রতিদিন কমপক্ষে ৫ মিনিটের জন্য হলেও আপনার মাথার ত্বক ম্যাসাজ করুন। এর ফলে মাথার ত্বকে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পাবে, ত্বকের মৃত কোষ ও খুশকি দূর হবে এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করবে।

৪. চুলের মলিনতা ও রুক্ষতা দূর করতে সপ্তাহে অন্তত একদিন চুলে কুসুম গরম তেল ম্যাসাজ করুন। এটি চুল ঝরে যাওয়া প্রতিরোধ করে। নারকেল, জলপাই অথবা বাদাম তেল হালকা গরম করে আঙ্গুলের সাহায্যে পুরো মাথায় আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। এক ঘণ্টা রেখে ভাল করে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

৫. ঘরের বাইরে যাওয়ার আগে চুলে একটি স্কার্ফ পেঁচিয়ে নিন। সূর্যের ক্ষতিকর আলট্রা ভায়োলেট রশ্মি চুলের স্বাভাবিক রঙ ও উজ্জ্বলতা নষ্ট করে ফেলে। এটি আপনার চুলকে ধুলো ও ক্ষতিকর রশ্মি থেকে রক্ষা করবে।

৬. চুলের ধরন তৈলাক্ত হলে, শ্যাম্পু করার পর এক মগ পানিতে খানিকটা লেবুর রস অথবা খানিকটা ভিনেগার মিশিয়ে পুরো চুল ধুয়ে ফেলুন। চুল ঝলমলে ও উজ্জ্বল দেখাবে।

এ ধরণের আরও লেখা পড়ুনঃ