নতুন মায়ের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সচেতনতা

new mom

মাতৃত্বের স্বাদ যেকোন নারীর জীবনের একটি চরম প্রাপ্তিময় সময়।

সম্পূর্ণনতুন একটি সময়ের মধ্যে পরে অনেক সময় মায়েরা তাদের নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কে অসচেতন হয়ে পরে।

কিন্তু সন্তান জন্মদানের পর মায়েদের নিজেদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন হওয়াটা ভীষণ জরুরী।

একজন মায়ের শারীরিক শক্তি পুনরুদ্ধার করা এবং নিজের বাচ্চার ঠিকঠাক দেখাশোনার জন্য সন্তান জন্মদানের পরের কয়েক সপ্তাহ নিজের যত্ন নেওয়াটা ভীষণ জরুরী।

তাই নতুন মায়েদের স্বাস্থ্য সচেতনতায় কিছু পরামর্শ দেওয়া হল।

নতুন মায়ের স্বাস্থ্য রক্ষায় করনীয়ঃ

১) প্রচুর পানি পান করুনঃ

যেকোন সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের জন্যই পানি পান করার কোন বিকল্প হয়না। আর একজন সদ্য মায়ের জন্য প্রচুর পানি পান করা খুব জরুরী।

সন্তান জন্মদানের পর অনেক সময় দেখা যায় খুব ঘন ঘন পিপাসা পাচ্ছে, মাথা ব্যথা, ক্লান্তি বা অবসাদ লাগছে।

এমন সময় এক বোতল পানি নিন আর পুরোটা পান করার চেষ্টা করুন। মায়েদের শরীরের পানি সল্পতা দূর করতে এর থেকে ভালো উপায় আর নেই।


আরো পড়ুনযে ১২টি স্বাস্থ্যগত কারণে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করা প্রয়োজন


২) নিয়মিত গোসল করুনঃ

বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় সন্তান জন্মদানের পর মায়েরা নিয়মিত গোসল করার প্রতি অনীহা প্রকাশ করে। তাদের ধারণা এতে বাচ্চার ঠাণ্ডা লাগার সম্ভাবনা আছে।

কিন্তু অনেক মা ই জানেন না যে নিয়মিত গোসল না করার ফলে তার নিজের স্বাস্থ্য হানি হচ্ছে।

হ্যাঁ এটা সত্যি মায়ের ঠাণ্ডা লাগলে বা শরীর খারাপ করলে বাচ্চাও অসুস্থ হবে, তবে তার মানে এই নয় যে আপনি নিয়মিত গোসল করতে পারবেন না।

বরং নিয়ম করে প্রতিদিন গোসল করুন এতে করে আপনি দ্রুত চাঙ্গা হয়ে উঠবেন আর আপনার সন্তানের আরো ভালো খেয়াল রাখতে পারবেন।

৩) নিয়ম করে খাবার খানঃ

প্রতিটি মা ই সকালে উঠে প্রথমে তাদের সন্তানের খাবারের ব্যবস্থা করেন। সন্তানের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার বানাতে আর খাওয়াতে গিয়ে নিজের স্বাস্থ্যর কথা ভুলে যান।

তাই মায়েদের এই ব্যাপারটা না ভুলে বরং সকালটা ভালো করে নাশতা করা দিয়ে শুরু করুন। নতুন মায়েদের জন্য এটা আর বেশী দরকারি।

অনেক সকাল অব্দি না খেয়ে থাকলে আপনার নিজের স্বাস্থ্য ঝুকির মধ্যে ফেলবেনই তো সাথে আপনার বাচ্চার স্বাস্থ্য ও খারাপ করবে।


আরো পড়ুন– যে ৫ টি খাবার শরীরের ক্ষতিকারক টক্সিন নিষ্কাশন করতে সাহায্য করে


৪) একটানা বসে না থেকে চলাফেরা করুনঃ

সন্তান জন্মের প্রথম সপ্তাহ বেশীরভাগ মায়েদেরই বিছানায় শুয়ে কেটে যায়। কিন্তু প্রথম সপ্তাহ কেটে যাওয়ার পর পরই মায়েদের উচিৎ আস্তে আস্তে একটু হাঁটাচলা করার।

খুব দ্রুত স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে রোজ একটু একটু করে চলাফেরা করুন, এতে আপনার দেহের জড়তা কমে আসবে আর আপনি দ্রুত সুস্থ বোধ করবেন।

৫) পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকুনঃ

নতুন মায়েদের একটি কথা সবসময় মনে রাখতে হবে যে নতুন শিশুটি পৃথিবীতে এসেছে তার দেখশোনার ভার আপনার, আর তাই আপনাকে খুব সতর্ক থাকতে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে।

যখনই আপনার বাচ্চার ডায়াপার পরিষ্কার করবেন বা আপনি নিজে কোন বাইরের কাজ করবেন তখন অবশ্যই নিজের হাতটি হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে ধুতে ভুলবেন না।

এতে করে আপনি আর আপনার সন্তান দুজনই সুস্থ থাকবেন।

৬) পুষ্টি কর খাবার খানঃ

সন্তান ধারণ থেকে শুরু করে সন্তান জন্মদান ও তার লালন পালন সহ নিজের সুস্থতার জন্য একটি পুষ্টিকর খাদ্য তালিকা প্রস্তুত করা জরুরী।

নিয়মিত তিনবেলা খাওয়া ছাড়াও আপনার খাদ্য তালিকায় রাখুন মৌসুমি ফল, দুধ, ডিম আর ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার।


আরো পড়ুনআপনার ছোট্ট সোনামণির পর্যাপ্ত পুষ্টির জন্য প্রয়োজন যে খাবারগুলো


এসব খাবার আপনার গর্ভাবস্থা এবং প্রসবের সময়ের অসুস্থতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। নিজেকে ঝরঝরে আর চাঙ্গা রাখতে ব্ল্যাক টি এবং কফি খান।

বাচ্চার সুস্থতার জন্য মায়ের সুস্থ থাকাটা ভীষণ প্রয়োজন। তাই মায়েরা নিজের শরীরের যত্ন নিন।


সোর্সঃ http://www.parents.com/pregnancy/my-body/pregnancy-health/new-mom-health-tips/#page=12


সম্পর্কিত পোস্ট: