প্রাকৃতিক উপায়ে আপনার মুখের ব্রণের দাগ তুলে ফেলুন সহজেই

acne
ছবি কৃতজ্ঞতা- উপমা বাঁধন
ফটোগ্রাফিদিপাস বড়ুয়া
ব্রণ(acne) খুব পরিচিত একটি ত্বকের সমস্যার নাম। ব্রণের সমস্যাতে আমরা প্রায়ই আক্রান্ত হই। ব্রণ থেকেও ব্রণের ফলে ত্বকে থেকে যাওয়া দাগ বেশী মারাত্মক আকার ধারণ করে। ব্রণের ফলে কিছু কিছু দাগ এমন মারাত্মক অবস্থার জন্ম দেয় যে বলতে গেলে সে দাগ আমাদের সারাজীবনের সাথী হয়ে যায়। আসুন দেখা যাক কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে ব্রণের দাগ থেকে মুক্তি লাভ করা যায়।

যেভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে ব্রণের দাগ তুলে ফেলবেন

  • অ্যালোভেরা জেল(aloe vera): আপনার ত্বকে ব্রণের দাগ থেকে যাওয়া অংশে সামান্য অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে দেখুন। অল্প কয়েকদিনের ব্যবহারেরই ব্রণের দাগ দূর হয়ে যাবে।
  • বেকিং সোডা(baking soda): কয়েক চামচ বেকিং সোডা পানিতে মিশিয়ে পেস্ট করে আপনার ত্বকের দাগে লাগান। এক থেকে দুই মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে ব্যবহার করলে ব্রণের দাগ দূর হয়ে যাবে।
  • নারিকেল তেল (coconut oil): সরাসরি নারিকেল তেল আপনার ত্বকের দাগ থেকে যাওয়া অংশে লাগিয়ে হালকা ম্যাসাজ করুন। ধোয়ার প্রয়োজন নেই। একটানা কয়েকদিন এই পদ্ধতি প্রয়োগ করলে দাগ দূর হবে।
  • শশা (cucumber): শশা কেটে স্লাইস করে আপনার ত্বকের দাগের জায়গাগুলোতে লাগিয়ে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে পড়ে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন দাগ দূর হয়ে যাবে।
  • মধু (honey): সামান্য কয়েক ফোঁটা মধু আপনার ত্বকে প্রতিদিন ম্যাসাজ করলে ব্রণের দাগ দূর হয়ে যাবে।
  • লেবু (lemon): লেবুর রস তুলার বলে লাগিয়ে আপনার ত্বকে হালকা ঘষুন। ব্রণের দাগ সারিয়ে তুলতে এটি আপনাকে সাহায্য করবে।
  • আলুর রস (potato juice): আলুর রস বের করে আপনার ত্বকের দাগ হয়ে থাকা অংশে পনের মিনিট লাগিয়ে রেখে পড়ে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন দাগ চলে যাবে।

প্রাকৃতিক প্রতিকারের থেকে ভালো কোন সমাধান আর হয়না। তাই আজেবাজে দাগ তোলার কেমিক্যাল জিনিস ব্যবহার বাদ দিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে আপনার মুখের ব্রণের দাগ তুলে ফেলুন।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য/রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক/ বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।