প্রাকৃতিক উপায়ে দ্রুত ব্রণ সারিয়ে তুলুন

Natural Ways To Get Rid Of Pimples Fastটিনেজার থেকে শুরু করে যেকোন বয়সী নারী পুরুষের একটি খুব সাধারণ কিন্তু অসহ্য যন্ত্রণাদায়ক সমস্যার নাম হচ্ছে ব্রণ। আপনার সুন্দর ত্বক নিমেষে নষ্ট করতে এর কোন তুলনা হয়না। আর এই সমস্যার সমাধান করতে আমরা কত কিছুই না ব্যবহার করে চলেছি। কিন্তু বাজারের কেমিক্যাল মিশ্রিত প্রসাধনী আপনার এই সমস্যা কমানোর জায়গায় উলটো বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই আপনাদের এই সমস্যা সমাধানে কিছু প্রাকৃতিক নিয়ে আজকের পরামর্শ।

যেভাবে প্রাকৃতিকভাবে ব্রণ সারিয়ে তুলবেন

  • লেবুর রস (lemon Juice): লেবুর অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ব্রণ সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। শুধু লেবুর রস সরাসরি নিয়ে আপনার ত্বকে লাগান দেখবেন ব্রণ সেরে যাবে।
  • অ্যাপেল সিডার ভিনেগার (apple cider vinegar): ব্রণ সাড়াতে অ্যাপেল সিডার ভিনেগারও খুব কাজ করে। আপনার ত্বকের আক্রান্ত স্থানে সামান্য পরিমাণ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার লাগিয়ে দিলেই ব্রণ কমে আসবে। শুধু লক্ষ্য রাখুন যেন এটি ভালো মানের হয়।
  • বেকিং সোডা (baking soda): আপনার ত্বকের ব্রণ সারাতে বেকিং সোডা আরও একটি কার্যকরী উপাদান। এটি সস্তা, ন্যাচারাল ও ক্ষতিকর কেমিক্যাল মুক্ত। তাই নিশ্চিন্তে আপনার ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। সামান্য গরম পানিতে বেকিং পাউডার মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে সেটি ত্বকে এক ঘণ্টা লাগিয়ে দেখুন। ব্রণ সাড়তে বাধ্য।
  • ডিমের সাদা অংশ (egg whites): ব্রণ সারাতে আরও একটি ঘরোয়া উপায় হলো ডিমের সাদা অংশ। ডিম থেকে সাদা অংশটুকু আলাদা করে একটি তুলার বলে করে ত্বকে লাগান ও কিছুক্ষন পর ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বকে উজ্জ্বলতা ফিরে আসার সাথে সাথে ব্রণ কমে যাবে।
  • পেঁপে (papaya): ব্রণ সারাতে কোন টাকা পয়সা খরচ ছাড়াই ঘরে বসে পেঁপে পেস্ট করে আপনার ত্বকে লাগান। আর দেখুন ব্রণ অল্পকদিনের মধ্যে কেমন উধাও হয়ে যায়।
  • পানি (water): সবথেকে সহজ ও কার্যকরী উপায় হচ্ছে দিনে ১০-১২ গ্লাস পানি পান করা। এবং দিনে বেশ কয়েকবার ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধোয়া। ব্রণ আর হচ্ছে না।

ব্রণ নিয়ে চিন্তা বাড়িয়ে আপনার ত্বক ও শরীর কোনটাই আরও খারাপ না করে ফেলে উপরের উপায় গুলো মেনে চলুন। আশা করি আপনার এই সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।