রান্নাঘর সাজাতে প্রয়োজনীয় কিছু পরামর্শ

kitchenরান্নাঘর মানে কেবল এই নয় যেখানে আপনি শুধু রান্নাই করেন। বরং একটি রান্নাঘর হলো এমন একটি জায়গা যেখানে আপনি আপনার পরিবারের সকলের সুস্থতার পুরো দায়িত্ব নিয়ে থাকেন। আবার এমন অনেকে আছেন যারা তাদের রান্নাঘরের ছোট্ট পরিসরের মধ্যেই খাওয়া দাওয়ার কাজটিও সেরে ফেলেন। তাই রান্নাঘরটি সাজাতে গোছাতে আপনাকে কিছু বিষয়ের প্রতি লক্ষ্য রাখতে হবে।

রান্নাঘর সাজাতে প্রয়োজনীয় কিছু টিপসঃ

* ঘরবাড়ি কেউ বার বার নির্মাণ করে না, আর তাই ঘরের পরিকল্পনা যখনই করা হয় ঠিক তখনই বাড়ির গৃহিণীর উচিত নিজের পছন্দ মতো একটি রান্নাঘরের ডিজাইন বা নকশা ঠিক করে ফেলা। যেখানে আপনি আপনার প্রয়োজন মতো জিনিসপত্র রাখতে পারবেন আর পর্যাপ্ত জায়গাও পাবেন।

* রান্নাঘরের পেইন্টিং এর জন্য উপযুক্ত রঙ সিলেক্ট করুন। সাড়া বাড়িতে যে রঙ লাগিয়েছেন রান্নাঘরেও সেই একই রং না লাগিয়ে বরং একটু বৈচিত্র্য আনুন। আপনার রান্নাঘরটি লাল,নীল,কমলা এমনকি বেগুনী রঙে রাঙাতে পারেন।

* রান্নাঘরের যাবতীয় জিনিস পত্রগুলো যেন ভালো মানের হয় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখুন। রান্নাঘরের বেসিন থেকে শুরু করে ক্যাবিনেটগুলো যেন ভালো হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন।

* রান্নাঘরের জিনিসপত্র ঠিকঠাক ঘুছিয়ে রাখতে আপনার ঘরের আয়তন বুঝে কিচেন ক্যাবিনেট লাগিয়ে নিন। এতে করে এলোমেলো নয়, বরং সুন্দর গোছানো রান্নাঘর পাবেন।

* আপনার রান্নাঘরের ভ্যাপসা ভাব থেকে রক্ষা পেতে ও ধোঁয়া থেকে বাঁচতে কিচেন হুড লাগিয়ে নিন।

* রান্নাঘরে টিমটিমে নয়, ফ্লুরোসেন্ট উজ্জ্বল আলো ব্যবহার করুন। দেয়ালে বা কেবিনেটের নিচে আলোর ব্যবস্থা রাখুন। রান্নাঘর এমনিতেই আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

*রান্নাঘরে কাটাকুটি করার জন্য চপিং বোর্ড ব্যবহার করুন। এতে করে অল্প জায়গার মধ্যেই কাটা- বাছার কাজ হয়ে যাবে। আর অবশ্যই একটি ঝুড়ি বা গামলা পাশে রাখুন। যাতে করে ময়লা এদিক সেদিক না ফেলে সেখানে ফেলতে পারেন।

* আপনার রান্নাঘরটি যদি পরিসরে খানিকটা বড় হয় তাহলে আপনি একটি ছোট সাইজের ডাইনিং টেবিল সেখানে সেট করে দিতে পারেন, এতে করে খাওয়া দাওয়া বা টুকিটাকি কাজ করার জন্য আপনি বসার বাড়তি জায়গা পেয়ে যাবেন।

* রান্নাঘরের অব্যবহৃত জায়গাগুলোতে আপনি রেল হুক ব্যবহার করে খুব সহজে প্যান, কড়াই, ছুরি, কাঁচি, সবজি কুরুনি ইত্যাদি ঝুলিয়ে রাখতে পারেন। এছাড়া বেসিনের নিচে কাবার্ডে অথবা উপরের কাবার্ডের দরজার ভেতরের দিকে তাক লাগিয়ে অনায়াসেই মসলাপাতি রাখতে পারেন।

* আপনার পরিবারের পছন্দ অপছন্দের কথা মাথায় রেখে একটি রান্নার চার্ট বানিয়ে রান্না ঘরের দেওয়ালে টাঙিয়ে দিতে পারেন, এতে করে আপনার রান্নার ঝামেলা একটু কমবে।

গৃহিণীদের দিনের বেশির ভাগ সময় কাটে রান্নাঘরে। তাই এটিকে যত্ন করে সাজিয়ে ফেলুন। ছোট খাটো জিনিস থেকে শুরু করে প্রয়োজনীয় সব জিনিসপত্র তাতে সাজিয়ে গুছিয়ে রেখে দিন। আপনার সময় ও পরিশ্রম তাতে করে কম হবে।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।