স্বামীকে ভালবাসার বাধনে আটকাবেন যেভাবে

keep-your-husband-in-love

বিয়ের প্রথম দিনগুলো থাকে মজা, আনন্দ, রোম্যান্টিকতা আর ভাললাগায় ভরপুর। কিন্তু সময় বাড়ার সাথে সাথে ভালোবাসা নামক উজ্জ্বল টিউব লাইটের আলো কেমন ফ্যাকাসে মিটমিটে ডিম লাইটে রূপান্তরিত হয়।

আর এই ডিম লাইটের মিটমিটে আলোতে সব থেকে বেশী রংহীন হয়ে পরে আপনার স্বামীটি।

সারাদিনের কাজের চাপ আর ক্লান্তি তাকে এতোটাই কাবু করে ফেলে রোমান্স নামক বস্তুটি সম্পর্কে সে বেমালুম ভুলে যায়।

আপনি নতুন করে আপনার স্বামীকে ভালোবাসার বাঁধনে আটকাতে চান?

কিংবা পুরনো ভালোবাসায় নতুন করে ধার দিতে চান?

তাহলে আপনাকে কিছু  সহজ কিন্তু কার্যকরী কৌশল অবলম্বন করতে হবে।

স্বামীকে ভালোবাসার বাঁধনে আটকে রাখবেন যেভাবেঃ

*নারীদের সব থেকে বড় গুণ হল দয়া মায়া আর অসম্ভব রকমের ভালোবাসার ক্ষমতা। স্বামীকে আপনার প্রতি আসক্ত রাখতে এই গুনগুলোর সঠিক প্রয়োগ ঘটান।

দিন শেষে তার সমস্ত ক্লান্তি আর অবসাদের বিপরীতে আপনিও বিরক্তি বা চিড়চিড়ে মেজাজ না দেখিয়ে তাকে দয়া দেখান, ভালোবাসার সাথে তার খেয়াল নিন।

দেখবেন সারাদিনের ক্লান্তি এক নিমেষেই দূর হয়ে সে কেমন চনমনে হয়ে উঠে।


আরো পড়ুন– প্রিয় মানুষটিকে নিজের প্রতি আরও একটু আকৃষ্ট করুন সহজ কিছু উপায়ে


*সেই প্রথম দিন তার হাত যতোটা আবেগ আর ভালোবাসা নিয়ে ধরেছিলেন সেটি বাকীদিনগুলোতেও বজায় রাখুন। যখনই একসাথে সময় কাটাবেন বা গল্প করেবেন তার একটি হাত নিজের হাতে ধরে রাখতে ভুলবেন না।

সে বাড়ির বাইরে বা অফিস যাওয়ার সময় তার হাতটি ধরে তাকে হাসি মুখে বাই করুন। এটি তার প্রতি আপনার ভালোবাসা প্রকাশের অন্যতম সহজ উপায় আর এই ভালোবাসায় সে নিশ্চিতভাবে আচ্ছন্ন হয়ে থাকবে।

*খেতে ভালবাসেনা এমন ছেলে খুঁজে পাবেন না। আপনার ভালোবাসায় তাকে বেঁধে রাখতে তার পেটটিকে আগে তৃপ্ত করুন। অনেকেই বলে থাকেন স্বামীর মন জয় করতে চাইলে আগে তার পেট জয় করুন।

নিজ হাতে প্রতিদিনই তার পছন্দ এমন কিছু না কিছু খাবার রান্না করুন, চাইলে তার অফিসের লাঞ্চ বক্সে দিয়ে দিন কিছু খাবার। দেখবেন সে আপনার ভালোবাসার বাঁধনে কেমন আটকে থাকে।


আরো পড়ুন– নতুন সম্পর্কের শুরুতেই যে কাজগুলো সম্পর্ককে করবে দীর্ঘস্থায়ী


*একটি ছেলে মায়ের পর একমাত্র স্ত্রির কাছেই সব থেকে বেশী যত্ন আর ভালোবাসা প্রত্যাশা করে। তাই স্বামীকে বশে রাখতে তার যত্ন নিন, হিসেব না করে তাকে ভালবাসুন।

তার প্রতি যত্ন আর ভালোবাসার মাত্রাটা এমন রাখুন যাতে সে নিজেকে আপনার কাছে একটি ছোট্ট বাচ্চার মতো অনুভব করে। আর এই অনুভূতি তাকে আপনার থেকে কখনোই দূরে থাকতে দেবেনা।

*আপনার স্বামী কোন কারনে হতাশা বা দুশ্চিন্তাই ভুগলে আপনি তার হতাশা কাটাতে চেষ্টা করুন, এমনটা কখনই করবেন না যাতে আপনার ব্যবহার বা কথা বার্তায় তার হতাশা আরো বেড়ে যায়।

তার সামনে মুখ টা দুঃখী দুঃখী বা ভার না করে হাসি মুখে থাকতে চেষ্টা করুন, তাকে সাহস দিন দেখবেন সে সব সময় তার সব ভালো খারাপ সময়গুলো আপনার প্রতিই নির্ভরশীল থাকবে।


আরো পড়ুন– আপনার ভালোবাসার মানুষটির খারাপ সময়ে তাকে সাহস যোগাতে যা করবেন


*মেয়েরা সব থেকে যে ভুল কাজটি বেশী করে থাকে সেটি হল নিজের স্বামীকে বাদে অন্য সব পুরুষের ভালো গুনগুলো স্বামীর সামনেই বলে বসে।

অথবা অন্য কোন পুরুষের ভালো দিকগুলোর সাথে নিজের স্বামীর খারাপ দিকগুলোর তুলনা করে ফেলেন।

এটি আপনার স্বামীকে মানসিকভাবে আপনার থেকে অনেক দূরে নিয়ে যায়। তাই সে যা তাকে সেভাবেই ভালবাসুন, মনে রাখবেন মানিয়ে নেওয়া, ত্যাগ করা আর বোঝাপড়ার আরেক নামই ভালোবাসা।

এই পৃথিবীতে ভালোবাসা ছাড়া ভালোবাসা কখনোই পাওয়া যায় না। আগে নিজে নিজেকে উজার করে দিয়ে ভালবাসুন দেখেবেন অপরপক্ষ থেকে ভালোবাসার কোন কমতি থাকবে না।


সোর্সঃ http://www.squidoo.com/how-to-make-your-husband-fall-in-love-with-you-again


সম্পর্কিত পোস্ট: