একটি জনপ্রিয় ব্লগ পোস্ট লেখার জন্য যে বিষয়গুলো অবশ্যই জানা প্রয়োজন

blogসব ব্লগারই চান তার লেখাটি সবচেয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠুক এবং তার মাধ্যমে ব্লগে প্রচুর নতুন পাঠক যুক্ত হোক। প্রত্যেকটি নতুন পোস্ট দেয়ার আগে এই ভাবনাটি সব ব্লগারের মনেই আসে এবং তাকে হয়তো হতাশ হতে হয় যখন দেখা যায় আকাঙ্ক্ষা অনুযায়ী সাড়া তিনি পাননি । তাই পোস্ট লেখার আগে কিছু বিষয় মাথায় রাখা দরকার, যার উপযুক্ত প্রয়োগ আপনার লেখাটিকে করে তুলতে পারে অত্যন্ত জনপ্রিয়।

লেখার আগে যে বিষয়গুলো বিবেচনা করবেনঃ

  • আইডিয়া এবং বিষয়বস্তু নির্বাচনঃ লেখা শুরু করে দেয়ার আগে ভাবুন এমন কি নিয়ে লেখা যায় যা পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে। এমন কোন বিষয় নির্বাচন করুন যা নিয়ে এর আগে বেশি লেখা আসেনি বা আসলেও তথ্য সমৃদ্ধ নয়। সর্বোপরি এটা মাথায় রাখুন, কেমন লেখা থেকে মানুষের উপকার হতে পারে। কারণ যত বেশি মানুষ আপনার লেখা থেকে উপকৃত হবে ততই আপনার লেখা জনপ্রিয়তা অর্জন করবে।
  • সাম্প্রতিক বিষয়গুলো নজরে রাখুনঃ নজর রাখুন প্রতিদিন সারা বিশ্বে কি কি ঘটে চলেছে তার দিকে। বিভিন্ন অনলাইন সংবাদ মাধ্যম এবং টেলিভিশন এক্ষেত্রে আপনার সহায়ক হতে পারে। জানুন মানুষের নিত্যনতুন চাহিদা সম্পর্কে। এ থেকেও আপনি পেয়ে যেতে পারেন অসাধারণ কোন লেখার বিষয়বস্তু।
  • আকর্ষণীয় শিরোনামঃ একটি আকর্ষণীয় এবং যথোপযুক্ত শিরোনাম আপনার লেখার প্রতি অনেক বেশি পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম। খুব কম লেখকই পারেন প্রথমবারেই এমন কোন শিরোনাম লিখতে। তাই সাধারণ লেখকদের জন্য শিরোনামের পেছনে যথেষ্ট সময় ব্যয় করা আবশ্যক। খুব বেশি নয়, ৫ থেকে ১০ মিনিট ভাবুন আপনার লেখার সম্ভাব্য শিরোনামগুলো কি কি হতে পারে, এবং তা লিখে ফেলুন। এর পর নির্বাচন করুন তাদের মধ্য থেকে কোনটি সবচেয়ে উপযুক্ত।
  • আপনার পূর্বের লেখা যাচাই করুনঃ আপনার এমন কোন লেখা যদি থেকে থাকে যা আগে পাঠকপ্রিয় হয়েছে, তাহলে তা যাচাই করুন। কোন কোন বিষয়গুলো পাঠক পছন্দ করেছে, কোন বিষয়ে তারা আগ্রহ দেখিয়েছে এবং কোন বিষয়গুলোর সমালোচনা করেছে। অন্যান্য ব্লগারের সেরা লেখাগুলোও পরীক্ষা করুন। চেষ্টা করুন তাদের লেখার সেরা দিকগুলো আপনার লেখায় ফুটিয়ে তুলতে।

লেখাটি প্রকাশ করার আগে যা করবেনঃ

  • লেখার মূল বক্তব্য প্রকাশ করুন ভূমিকায়ঃ সাধারণত বিস্তারিত কোন লেখা পড়ার আগেই পাঠক চোখ বুলিয়ে নেয় ভূমিকায়। বুঝতে চেষ্টা করে তাকে আগ্রহী করার মত কোন বিষয় লেখাটিতে আছে কি না। তাই আপনার লেখাটি কি ধরনের তথ্য বহন করছে তা সংক্ষিপ্ত আকারে লিখুন ভূমিকায়।
  • এমন তথ্য যা তাৎক্ষণিক ভাবে পাঠকের দৃষ্টি কাড়তে সক্ষমঃ লেখায় তথ্য যোগ করুন এমনভাবে যাতে তা পাঠককে বাধ্য করে সম্পূর্ণ লেখাটি পড়তে। যদি পরামর্শ ভিত্তিক লেখা হয় তাহলে ৩-৪টি পয়েন্টের পরিবর্তে ১৫-২০ টি পয়েন্ট উল্লেখ করুন। পাঠক তখনই আপনার লেখাটি পড়তে চাইবে যখন তারা দেখবে অন্যান্য লেখার চেয়ে আপনার লেখাটি বেশি তথ্য সমৃদ্ধ।
  • লেখার বিন্যাস এবং ছবিঃ এই দুটি জিনিসের অভাবেই অনেক সময় খুব ভালো লেখাও পাঠক এড়িয়ে যায়। লেখাকে সুন্দর ভাবে সাজান বুলেট পয়েন্ট, নাম্বারিং ইত্যাদি দিয়ে। ছবি যুক্ত করুন যাতে আপনার লেখার বিষয়বস্তু সম্পর্কে পাঠক এক নজরেই ধারণা পেয়ে যেতে পারে।
  • আপনার লেখাটির পেছনে প্রচুর সময় দিনঃ একটি ভালো পোস্ট লেখার অন্যতম পূর্বশর্ত তার পেছনে প্রচুর সময় ব্যয় করা। যত বেশি সময় আপনি লেখাটির পেছনে দিবেন, ততই তা হয়ে উঠবে তথ্য সমৃদ্ধ এবং আকর্ষণীয়। লেখার পেছনে বেশি সময় দেয়ার আরেকটি কারণ হল এতে আপনার ভুলগুলো বের হয়ে আসবে এবং লেখায় এমন অনেক বিষয় যোগ করার সম্ভাবনা বাড়বে যা লেখাটি শুরুর প্রথম দিকে আপনার কল্পনাতে আসেনি।

ব্লগ নিয়ে আরো পড়ুন

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।