সহজেই খাবারের ফরমালিন দূর করার জন্য কিছু পরামর্শ

10428841_711509242228452_1983532842_n
বাজারে চলে এসেছে গ্রীষ্মের প্রায় সব ফল। তাই তো এটিকে বলা হয় মধু মাস। পাকা ফলের রসে মুখ রঙিন করার এখনই সময়। কিন্তু মনে রাখতে হবে ফরমালিনের ব্যাপারটাও। ফুলের যেমন কাঁটা আছে, ফলের আছে ফরমালিন। ফল তো আছেই সাথে সবজি, মাছেও যত্রতত্র ব্যবহার করা হচ্ছে নানা রাসায়নিক দ্রব্য যা আমাদের শরীরের জন্যে দারুণ ক্ষতিকর। স্বাস্থ্যবিদদের মতে, এইসবের কারণে স্থায়ী ক্যান্সার হতে পারে। তাই আসুন জেনে নিই ঘরে বসে কিভাবে ফরমালিনের মাত্রা কমানো যায়।

১) ফলঃ
ফল কেনার আগে আপনি বাজারেই ভালভাবে পরখ করে নিন। কিছু ফল দেখবেন কোন একপাশ সবুজ রয়ে গেলেও অন্যপাশ একদমই লাল। এইসব ফলে ফরমালিন থাকার সম্ভাবনা বেশি। বাসায় আনার পর সাধারণ পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে পারেন। এছাড়া পানিতে পরিমাণমত ভিনেগার বা লবণ মেশান। এবার ২০-২৫ মিনিট এতে ভিজিয়ে রাখুন। পরে ভালোভাবে কাপড়স বা টিস্যু পেপার দিয়ে মুছে সংরক্ষণ করুন।

২) সবজিঃ
বর্তমানে অনেক সবজিতেই ফরমালিন ব্যবহার করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে সব্জির খোসা ছাড়িয়ে ভাল করে ধুয়ে নিতে পারেন। আরো নিশ্চিত হওয়ার জন্যে রান্না করার আগে দশ মিনিট কুসুম লবণ গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।

৩) মাছঃ
মাছ সাধারণ পানিতে রাখলে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে। এতে ফরমালিনের পরিমাণ অনেকটাই কমে আসবে। তবে এক লিটার পানিতে এক কাপ ভিনেগার মিশ্রিত পানিতে ভিজিয়ে রাখলে প্রায় ৯০% ফরমালিন দূর হয়। ভিনেগার না থাকলে লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন।

মনে রাখবেন ফল, সবজি, মাছ প্রচুর পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এতে যে কোন রাসায়নিক দ্রব্যের পরিমাণ কমে আসবে। আর এইসব ফল পরিষ্কার করার পর আপনার হাতও সাবান দিয়ে ভাল করে পরিষ্কার করে নিন। সুস্থ থাকুন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।