যেভাবে ফুলদানীর ফুল ঘরোয়া পদ্ধতিতে সতেজ রাখবেন

flowerবেড রুম,অফিস রুম,বিয়ে বাড়ি যেখানেই সাজানোর কথা আসবে ফুল (flowers) ব্যতীত তা অচল। সাজ-সজ্জা ফুলের মাধ্যমে পরিপূর্ণতা পায়। ফুল বাগানে থাকুক আর ফুলদানীতে,যত্ন বিনা তা প্রাণহীন। একটু সজাগ হলেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে কাটা ফুল খুব সুন্দরভাবে বেশ কয়েকদিন টাটকা রাখতে পারি। কাজটি করার জন্য অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজন হয় না।খুব বেশি শ্রমও দিতে হয় না। হাতের কাছের কিছু খাদ্য-দ্রব্যদি দিয়েই সহজে করা যায়।যা ঘররের সৌন্দর্য্য যেমন বৃদ্ধি করে তেমন আমাদের মনকে প্রশান্তি দেয়।
ফুল পছন্দ করে না এমন লোকের সংখ্যা নগন্য। সৌখিনতা থাকলেও অনেক সময় ফুল তাজা রাখার পদ্ধতি জানা না থাকায়  ঘরের কোণে ফুলদানিটা খালি পড়ে থাকে। অনেক সময় চেষ্টা বৃথা। গিয়ে দেখা যায় পাঁপড়ি ঝরে পড়ে আছে,পাতা মচমচ করছে আর ফুলের বৃন্তগুচ্ছ ফুলদানিটার গলায় ঝুলে আছে।

কিভাবে ফুল ঘরোয়া পরিবেশে তাজা থাকবে? (how to keep flowers fresh at home)

দৈনন্দিন জীবনে আমরা যা কিছু খাই,ব্যবহার করি তেমন কিছু বস্তু এবং দ্রবাদির সহযোগিতায় ফুলদানির ফুল থাকবে সতেজ। যার জন্য আলাদা করে সময় বের করার প্রয়োজনও পড়বে না। বিকালের চা পান করতে করতেই ফুলের যত্নটুকু সেরে ফেলা যায় সহজে। যা আপনাকে একটি সুন্দর অবসরও উপহার দেবে। জেনে নেওয়া যাক সেগুলো কি কি?

  • চিনি(sugar): রান্না ঘরের একটি গুরত্বপূর্ণ উপাদান চিনি। যা ফুলকে প্রাণবন্ত রাখতে অতুলনীয়। ১লিটার হালকা গরম পানির সাথে ৪৫ মিঃলিঃ চিনি গুলিয়ে তাতে ফুল সাজিয়ে দিন। এভাবে ৫-৭ দিন তাজা থাকবে।
  • মাউথ ওয়াশ (mouth wash): এটি কম বেশি সবার ঘরে পাওয়া যাবে। ১ কাপ মাউথ ওয়াশ ফুল রাখার জন্য ব্যবহৃত পানিতে যোগ করুন। আপনার কলি ফুল গুলো ৩-৪ দিন পর থেকেই ফুটতে শুরু করবে।
  • তামার মুদ্রা (bronze coin): প্রাকৃতিক ভাবে তামা ব্যাকটেরিয়া নাশক। তাই বাজার থেকে ফেরত আসা তামার পয়সা সংগ্রহ করে টবের পানিতে ফেলে ন। দেখবেন সাত দিনেও ফুল ঝরে পড়েনি।
  • ভিনেগার (vinegar): ভিনেগার বা সিরকার ব্যবহার শুধু খাবারে নয়। এটা ফরমালিন দূরীকরণেও কাজে লাগে। এর আরো একটি গুণ রয়েছে এটা ফুলকে বাসি হওয়া থেকে দূরে রাখে। দুই টেবিল চামচ চিনির সাথে দুই টেবিল চামচ ভিনেগারের মিশ্রণ ফুলদানির পানিতে যোগ করে দিন।
  • ব্লিচ (bleach): এই রাসায়নিক পদার্থ সাদা করার ক্ষমতার জন্য নানাভাবে নানান কাজে ব্যবহার করা যায়। ১লিটার পানি আর ১/৪ টেবিল চামচ ব্লিচের মিশ্র্ণ ফুলকে এক সপ্তাহ অবধি সোজা রাখে। তাই এ পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন।
  • এসপিরিন ট্যাবলেট (aspirin tablet): একটি এসপিরিন ট্যাবলেট গুঁড়ো করে ফুলের পানিতে মিশিয়ে দিন। ফুলের যত্নে এটি বেশ উপকারী।
  • পরিষ্কার পানি (clean water): প্রতিদিন পানি বদলানো ফুলকে দীর্ঘ সময়ের নিশ্চয়তা দেয়। ফুলের জন্য কুসুম গরম পানি বেশ উপকারী। এর ফলে ফুলকে স্বাস্থ্যবান দেখায়। সপ্তম দিনেও নুয়ে পড়ে না।
  • ছুরি এবং কাচি (knife and scissors) : ফুলকে পানিতে দেয়ার পূর্বে সরু ছুরি দিয়ে ডাটাকে হেলানো বা ঢালু ভাবে ছেঁটে ফেলা এবং তাজা ভাব হারিয়েছে এমন পাঁপড়ি, পাতা কেটে ফেলা,ফুলকে উত্তাপ ও ফল থেকে দূরে রাখা, যে পাতাগুলো পানিতে ডোবার সম্ভাবনা আছে সেগুলো না রাখা ফুলকে দীর্ঘজীবন দেয়।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি।পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।