যে ৪টি উপায়ে বাড়িয়ে তুলবেন আপনার বাড়ির নিরাপত্তা

4 security objects to be safe at home

safety
চোরের উপদ্রব আর দিনে দুপুরে ডাকাতি হচ্ছে হর হামেশাই। এছাড়া কোন সামাজিক বা ধর্মীয় অনুষ্ঠানে বাড়ি খালি রেখে যেতেও অনিচ্ছা প্রায় সবারই, কারণ ফিরে এসে হয়তো দেখতে হবে সব মূল্যবান সামগ্রী চুরি হয়ে গেছে। এই আধুনিক যুগে সারাদিন বাড়ি পাহারা দিয়ে বসে থাকার দরকার হয় না। বিভিন্ন ধরণের নিরাপত্তা যন্ত্র এবং পদ্ধতি উদ্ভাবিত হয়েছে যা আপনাকে নিরাপদ রাখতে সক্ষম। তেমনই ৪টি নিরাপত্তা পদ্ধতি সম্পর্কে লিখছি যা বাড়িয়ে তুলবে আপনার বাড়ির নিরাপত্তা (home security)

১. বাড়িতে স্থাপন করুন এলার্ম সিস্টেম (install Alarm System):

এলার্ম সিস্টেম এখন আরও উন্নত হয়েছে যা চালু করা যায় ব্লটুথের মাধ্যমেই। তার বিহীন এই এলার্মগুলো (wireless home security systems) লাগিয়ে নিতে পারেন বাড়ির গেট, দরজা বা জানালায়। অনাকাঙ্ক্ষিত কেউ অসময়ে প্রবেশ করতে চাইলেই নিকটস্থ পুলিশ এবং আপনাকে সতর্ক করে দিবে এই এলার্ম সিস্টেম। এছাড়াও আপনি বাড়ির বাইরে থাকা অবস্থায় এলার্ম (security alarm) বাজলে আপনার মোবাইলে পৌছে যাবে SMS.

২. লাগিয়ে নিন উজ্জ্বল সিকিউরিটি লাইট (security Lightning):

যে কোন অপরাধীই উজ্জ্বল আলোকে ভয় পায়। তাই নিরাপত্তা বাড়াতে বাড়ির আশে পাশে লাগিয়ে নিন উজ্জ্বল সিকিউরিটি লাইট। মোশন সেন্সর (motion Sensor) আছে এমন লাইট লাগিয়ে নিলে তা নিভে থাকবে অন্ধকারে, কিন্তু যখনই কেউ আপনার বাড়ির আঙ্গিনায় প্রবেশ করবে নিজ থেকে এই লাইটগুলো জ্বলে উঠবে।

৩. কাল্পনিক উপস্থিতি ধারণা প্রদানকারী ডিভাইস (presence simulator for the safety of house):

Presence Simulator বা কাল্পনিক উপস্থিতি ধারণা প্রদানকারী ডিভাইসগুলো খুবই কার্যকরী। বাড়ির বাইরে যাওয়ার সময় এটি চালু করে গেলে আপনার অনুপস্থিতিতেই টিভি চলবে, সাউন্ড সিস্টেমে গান বাজবে। অনাকাঙ্ক্ষিত কারো মনে এই ধারণা জন্মাতে বাধ্য করবে যে কেউ না কেউ বাসায় আছে। আপনার যদি প্রায়ই বাড়ি খালি রেখে বাইরে যেতে হয় তবে লাগিয়ে নিন Presence Simulator.

৪. ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা লাগান (video surveillance):

উপযুক্ত স্থানে লাগানো ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরাও (cctv camera) বাড়িয়ে তুলতে পারে আপনার বাড়ির নিরাপত্তা। প্রথমত, কোথাও এই ক্যামেরা লাগানো আছে দেখলে যে কেউ অপরাধ করতে ভয় পায়, তাছাড়া কেউ অপরাধ করে পালিয়ে গেলেও পরে রেকর্ড করা ভিডিও ফুটেজ দেখে সহজেই অপরাধীকে সনাক্ত করে নেয়া যায়। এই ক্যামেরা ডিজিটাল পিপ হোল হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। দরজার বাইরে ক্যামেরা লাগিয়ে টিভির সাথে সংযোগ দিয়ে দিন। দরজা খোলার আগেই টিভিতে দেখে নিতে পারবেন কে আছে দরজার ওপাশে।

বাংলাদেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বাড়ি সুরক্ষিত রাখার এই ডিভাইসগুলো সরবরাহ করে। যে কোন ইলেক্ট্রনিকস মার্কেট বা ইন্টারনেটে যোগাযোগ করে সহজেই বাড়িতে লাগিয়ে নিতে পারেন এই ডিভাইসগুলো।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।