সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়েন? জেনে নিন স্ট্যামিনা বাড়ানোর ৫ টি কার্যকর পদ্ধতি

How to Improve Stamina

42-26585348
প্রতিদিনকার কাজ শেষ করে বাসায় ফেরার পর অথবা কাজের মাঝপথেই পরিশ্রান্ত হয়ে পড়েন অনেকে। অন্য কোন কাজ করার শক্তি বা ইচ্ছা কিছুই অবশিষ্ট থাকে না। এমনটা হয় স্ট্যামিনার(stamina) অভাবে। একজন মানুষ যত বেশি স্ট্যামিনার অধিকারী হবেন, তাঁর জীবনে সফলতার সম্ভাবনা তত বেশি বাড়বে। তাই জেনে নিন দৈনন্দিন জীবনের ৫ টি অতি সাধারণ বিষয় সম্পর্কে যা আপনার স্ট্যামিনা বাড়িয়ে তুলবে (increase stamina) অনেকগুণ।

১. পুষ্টিকর খাবার খান স্ট্যামিনা বাড়াতে (Stamina through diet)

প্রচুর শাক সবজি, ফল এবং ভিটামিন যুক্ত খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন। এসব খাবার আপনার স্ট্যামিনা বাড়িয়ে তুলতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এজন্য আপনাকে জানতে হবে কোন খাবারগুলো স্ট্যামিনা বাড়ায় (food to improve stamina)। মটরশুটি, সবুজ পাতাযুক্ত সবজি, কলা, চর্বিমুক্ত মাংস, মাছ, মুরগি, লাল আঙ্গুর স্ট্যামিনা বাড়ায়। এই খাবারগুলোর গুণাগুণ বিস্তারিত জানতে পড়ুন এই লেখাটি।  ফ্যাট যুক্ত, তেলে ভাজা খাবার থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করুন। এছাড়া দিনের খাবারকে সকালের নাস্তা, দুপুর এবং রাতের ভাত এভাবে ভাগ না করে, ৬টি ছোট ছোট ভাগে ভাগ করুন। এতে আপনার পুষ্টির চাহিদা সমানভাবেই পূরণ হবে, অতিরিক্ত হিসেবে পাবেন সারাদিন কাজ করার শক্তি।

২. পানি পান করুন বেশি বেশি (Stay hydrated)

প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণ পানি পান করতে চেষ্টা করুন। কমপক্ষে ৮-১০ গ্লাস পানি অবশ্যই পান করা উচিত। পানি আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে, কিডনিতে পাথর হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে, মাংসপেশিকে শক্তি যোগায়। এছাড়াও পানির বিকল্প হিসেবে খেতে পারেন, বিভিন্ন স্পোর্টস ড্রিংক, ডাবের পানি, স্যালাইন, ভিটামিন মিশ্রিত পানি। ঠিক কোন ধরণের পানীয় আপনার স্ট্যামিনা বাড়াতে সাহায্য করবে তা জেনে নিন এই লেখাটি থেকে। বাজারে প্রচলিত কোল্ড ড্রিংক কোন উপকারে আসে না, তাই এসব পান করা থেকে বিরত থাকুন।

৩. ব্যায়াম করুন কমপক্ষে ১৫০ মিনিট (Developing physical stamina)

যদিও ব্যায়াম করার পর ক্লান্তি ভর করে, কিন্তু এই ব্যায়ামই সারা সপ্তাহ অনেক বেশি স্ট্যামিনার যোগান দেয়। প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে ১৫০ মিনিট সারা শরীরের পরিশ্রম হয় এমন ব্যায়াম (Stamina Exercise) করুন।

৪. আপনাকে আনন্দ দেয় এমন কিছু করুন (Choose physical activities that you love)

সপ্তাহের একঘেয়ে কাজ আমাদের মস্তিষ্কে চাপ সৃষ্টি করে। তাই এমন কিছু করুন যা আপনাকে আনন্দ দেয়, মন ভালো করে। হতে পারে তা সাইকেল চালান, সাঁতার কাটা, পাহাড়ে বেড়ানো, ভালোভাবে দৌড়ানো (improve running) অথবা উদ্দেশ্যহীনভাবে হাঁটা। এসব কাজ একদিকে যেমন আপনার মন ভাল করে দেয়, তেমনি স্ট্যামিনাও (stamina) বাড়িয়ে তুলতে ভূমিকা রাখে।

৫. প্রতিদিন পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন (Giving your body adequate rest)

ব্যায়াম, খাবার ইত্যাদি আপনার স্ট্যামিনা বাড়াতে যেমন সাহায্য করে, একই ভাবে সাহায্য করে প্রচুর ঘুমও। প্রতিদিন কমপক্ষে ৭-৯ ঘণ্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন। অপর্যাপ্ত ঘুম আমাদের কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেয়, সাথে কাজে ভুল হবার সম্ভাবনাও বাড়িয়ে তুলে । অপরদিকে রাতের নিরবচ্ছিন্ন সুন্দর ঘুম সারাদিন সতেজ রাখে, কাজে পূর্ণ মনোযোগ দিতে সাহায্য করে।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।