আপনার কুরবানির পশু নির্বাচন করবেন কিভাবে?

How to Identify a Healthy Animal for Qurbaniপবিত্র ঈদ উল আযহা আসন্ন, আর তাই পশু কেনার ধুম পড়ে যাবে আজ থেকেই। তাই কুরবানির পশু নির্বাচনের ক্ষেত্রে থাকছে কিছু পরামর্শ জেনে নিন।

  • আপনার সামর্থ্য অনুযায়ী পশু দেখা শুরু করুন। রঙ বা সাজসজ্জা কোন ব্যাপার না পশু নির্বাচনের ক্ষেত্রে। মূল ব্যাপার হচ্ছে, কুরবানির পশুটি ন্যুনতম দুই দাঁতের কিনা, দেখতে আকর্ষণীয় কিনা, লালনপালন হয়েছে কোন এলাকায়, তার চামড়া ইত্যাদি। দেশী পশু নির্বাচনে প্রাধান্য দিন কেননা এতে মাংসের একটি সুস্বাদু স্বাদ পাওয়া যায়। তবে বিদেশী গরু নির্বাচনের ক্ষেত্রে লালনপালনের স্থান, বয়স তথ্য নিয়ে নিন।
  • গরু কেনার সময় তার পুরো শরীরের চামড়া ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করুন, কেননা অনেক সময় দেখা যায় গরুর পায়ুপথ বা শরীরের কোন অংশে চামড়ায় ঘা দেখা যেতে পারে। ঘায়ের রঙ হালকা গোলাপি রঙের হবে এবং সেখানে মাছি বসবে। কিছুক্ষণ পরপরই দেখবেন যে গরু লেজ নাড়ছে। চামড়া কোন অংশে থ্যাতলানো থাকলেও সেই গরু পরিহার করে অন্য গরু পর্যবেক্ষণ করুন। চামড়ার মান ভাল কিনা সেটা বুঝবেন গরুর গলার অংশে চামড়া দেখে ও ধরে। যদি সেখানকার চামড়া ভারি হয় তাহলে বুঝবেন যে চামড়া উন্নতমানের।
  • গরুর ক্ষুর, পা পর্যবেক্ষণ করবেন ভালভাবে। অনেকসময় গরু ক্ষুরারোগে আক্রান্ত থাকে যার কারণে গরু ভালভাবে দাঁড়াতে বা হাঁটতে পারেনা। এটা আপনি স্বচক্ষে দেখতে পারবেন।
  • কুরবানির গরুর চোখ দিয়ে অবিরাম পানি পড়া, উকুন রোগ, অরুচি, বদহজম ইত্যাদি সাধারণ কিছু উপসর্গ দেখা যায়। অতিরিক্ত মোটা, অতীব স্বাস্থ্যবান গরু বা ট্যাবলেট দেওয়া গরু কিনবেন না। এসব গরুর গায়ে টিপ দিয়ে পর্যবেক্ষণ করলে আপনি দেখতে পাবেন যে, টিপ দেওয়া স্থানটি ভিতরের দিকে চুপসে গিয়েছে অর্থাৎ শরীরে পানি জমে গেছে এবং গরু শরীরের অতিরিক্ত ভারের কারণে ভালভাবে দাঁড়াতে বা হাটতে পারবে না।গরুর গোবর আপনি স্বচক্ষে দেখে নিতে পারেন, খুব পাতলা বা খুব ঘন কিনা, সবুজ কিনা ইত্যাদি অসুস্থতার লক্ষণ প্রকাশ করে
  • একইভাবে ছাগল/খাসি/বকরি/মহিষ কেনার সময়ও তার চোখ, চামড়া, ক্ষুর, মুখ, মল ইত্যাদি দেখে নির্বাচন করবেন। পশুর দর কষাকষির আগে আপনার কুরবানির পশু নির্বাচন করুন।

মনে রাখবেন, একটি অসুস্থ পশু আপনার কুরবানির প্রধান অন্তরায়।

মনে রাখুন

সিটি কর্পোরেশন/যথাযথ কর্তৃপক্ষের আওতাভুক্ত পশুর হাট থেকে আপনার প্রিয় পশু গরু, ছাগল, ভেড়া নির্বাচন করুন। ছোট কোন অবৈধ হাট বা বাজার বা রাস্তাঘাটের কারো কাছ থেকে পশু ক্রয়ের লেনদেনে যাবেন না। তাছাড়া হাটে একা না গিয়ে কয়েকজন মিলে পশু কিনতে গেলে ভাল। কেননা এতে দেখা যায়, অসুস্থ পশু ও দালালদের খপ্পরে পড়ে আপনার কুরবানি পণ্ড হয়ে যেতে পারে। হাট থেকে পশু কিনে ইজারাদারের কাছে আপনার পশুর হাসিল পরিশোধ করুন।তবে হ্যাঁ, গরুর মালিক বা রাখাল আপনার একান্ত পরিচিত হলে পশু সম্পর্কে ভালভাবে তথ্য নিয়ে আপনি পশু ক্রয় করতে পারেন।

ছবি-প্রথম আলো

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।