উচ্চরক্তচাপ কমান ৬ টি সহজ উপায়ে

bp2উচ্চরক্তচাপ বা হাই ব্লাডপ্রেসার, আমাদের  প্রতিদিনের জীবনে একটি মারাত্মক সমস্যা। সঠিক সময়ে এই রোগ নিয়ন্ত্রণ না করলে স্ট্রোক বা পক্ষাঘাত এর মত মারাত্মক কিছু হয়ে যেতে পারে। কাজেই আমাদের চেষ্টা করতে হবে রক্তচাপ যাতে না বাড়ে, চলুন দেখে নেই ৬ টি সহজ উপায়ে যেভাবে আমরা উচ্চরক্তচাপ কমাতে পারি :

১. ওজন কমানো :  বাড়তি ওজনের সাথে উচ্চরক্তচাপ  এর সম্পর্ক প্রবল। কাজেই যাদের অতিরিক্ত ওজন, তাঁদের আজ থেকেই সাবধান হতে হবে এবং ওজন কমাতে হবে। আপনি যদি সময়ের অভাবে ব্যায়াম করতে না পারেন, সমস্যা নেই, কিন্তু  প্রতিদিন যাতে ২৫ মিনিট হাঁটা হয়, সেদিকে খেয়াল রাখবেন। গবেষণায় দেখা গেছে, আপনি যদি ৪.৫ কেজি ওজন কমাতে পারেন, তাহলে এটা আপনার উচ্চরক্তচাপ  এর সমস্যা সমাধান করতে সক্ষম। আপনাকে আপনার কোমরের মাপের দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে, কোমরের মাপ যত সরু হবে, ততই ভালো হবে আপনার জন্য।

২. প্রতিদিনের ব্যায়াম : হ্যাঁ, আপনি যতই ব্যস্ত থাকুন, আপনাকে প্রতিদিন কিছু না কিছু  ব্যায়াম  করতেই হবে। প্রতিদিনের ৩০ মিনিট এর ব্যায়াম  আপনার উচ্চরক্তচাপ অনেকাংশে কমাবে। আপনি যদি ভারি ব্যায়াম না করতে পারেন, তাহলে কিছু সময় হাঁটুন, একেবারে ৩০ মিনিট হাঁটা হয়ত সম্ভব না, তাই সময়কে ভাগ করে নিন। সকালে ১৫ মিনিট এবং সন্ধ্যায় ১৫ মিনিট করে হাঁটুন।

৩. স্বাস্থ্যকর খাদ্যভ্যাস:  আপনাকে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে, চর্বিযুক্ত খাবার একেবারেই পরিহার করতে হবে। প্রচুর পানি পান করতে হবে, তাজা ফল এবং সবজি বেশি করে খেতে হবে। সাথে সাথে তাজা মাছ খেলে অনেকটা সুস্থ থাকা যাবে। চেষ্টা করবেন  প্রতিদিন এক কাপ করে দুধ খাওয়ার।

৪. খাদ্যে লবণ কম রাখা : হ্যাঁ, আপনার প্রতিদিনের খাবারে যতটা কম লবণ থাকবে, ততই ভালো। কারণ সামান্য পরিমাণে লবণ আপনার উচ্চরক্তচাপ  হঠাৎ করে বাড়িয়ে দিতে পারে, কাজেই তরকারিতে বেশি লবণ যাতে না দেয়া হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন এবং কোনভাবেই কাঁচা লবণ খাওয়া যাবে না।

৫. ধূমপান ছাড়ুন :আপনাকে এই ধূমপান ত্যাগ করতেই হবে। ক্যানসার এবং উচ্চরক্তচাপের অন্যতম কারণ হচ্ছে ধূমপান। আপনি একদিনে বাদ দিতে পারবেন না। চেষ্টা করুন যাতে সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন ধূমপান না করে থাকতে পারেন। একটা সময় সহজ হয়ে যাবে এটা।

৬. একঘেঁয়েমি দূর করুন : কাজের চাপে একঘেয়েমি আসে আমাদের, এটা খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু অতিরিক্ত হলে সেটা উচ্চরক্তচাপের কারণ হয়ে দাঁড়ায়, কাজেই বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিন, খেলাধুলা করুন, অবসরে নাটক দেখুন, একঘেয়েমি যেন কম হয়, সেদিকে খেয়াল রাখা জরুরি।

যে ৬ টি উপায় এর কথা উল্লেখ করা হলো, এগুলো মানা কিন্তু খুব কঠিন কিছু না। তাহলে আর দেরি কেন, দূর করুন উচ্চরক্তচাপ, ভালো থাকুন সব সময়।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।