নারীরা যেভাবে রাগ নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে পারেন

ANGERরাগ মানুষের একটি স্বাভাবিক অনুভূতি। রাগ কম-বেশি সবারই আছে। তবে বেশীরভাগ সময়ই রাগ হয় অন্যের কোন কথা বা কাজের জন্য। আর এই মন খারাপের বিষয়টা সত্যি বলতে ছেলেদের চেয়ে আমাদের মেয়েদের একটু বেশিই হয়। কখনও কখনও হঠাৎ করে এই রাগ এমনই বেড়ে যায় যে তা আমরা বুঝে উঠার আগেই বাজে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়ে যায়। এই রাগের কারণে হয়তো সুন্দর সম্পর্কগুলো অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়। রাগ খুবই স্বাভাবিক একটি অনুভূতি। তবে রাগ মানুষের চিন্তা শক্তিকে ব্যহত করে।

  • রেগে গেলে আমরা যা খুশি তাই বলে ফেলি। মাথায় যা আসে তাই করে ফেলি। কিন্তু এর কারণে পরে অসুবিধায় পড়তে হয় এবং নিজের ভিতর একধরণের খারাপ লাগা তৈরি হয়। তাই রেগে গেলে বেশি কথা বলা উচিত না চুপ করে থাকাই শ্রেয়।
  • রাগ উঠবে যখন বুঝতে পারবেন তখন প্রথমে নিজেকে শান্ত করার চেষ্টা করুন। কোন কথা না বলে চুপ করে থেকে নিজেকে বোঝানোর চেষ্টা করুন।
  • গভীরভাবে শ্বাস নিন। তারপর চুপ করে বসে ভাবুন রাগ উঠার কারণটা কি। রাগ না করার পিছনে যুক্তি বের করতে চেষ্টা করুন। আস্তে আস্তে রাগ কমে আসবে।
  • রাগ উঠলে একা একটি ঘরে গিয়ে হাই ভলিউমে গান শুনতে থাকুন। রাগ আস্তে আস্তে কমে যাবে।
  • রেগে যাওয়ার পর কথা যদি বলার প্রয়োজন হয় তাহলে আগে চিন্তা করুন কি বলবেন তারপর কথা বলুন।
  • কোন কোন ব্যপারে আপনার মেজাজ খারাপ হয় সে ব্যপারগুলো এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। তা নাহলে ব্যপারটিকে সহজ ভাবে সমাধান করার চেষ্টা করুন।
  • রাগ কমে গেলে তারপর সে ব্যপারটি নিয়ে কথা বলে সমাধান বের করার চেষ্টা করুন।
  • রাগ বেড়ে গেলে মজার কোন মুভি অথবা ভিডিও দেখতে পারেন।
  • যুক্তি দিয়ে নিজেকে বোঝানোর চেষ্টা করুন যে রেগে গেলে শুধু নিজেরই ক্ষতি হবে, অন্যের কোন ক্ষতি হবে না। এতে আপনা আপনি রাগ কমে আসবে।

রাগ তো আমরা সকলেই ভালোবাসি। তবে আমাদের মনে রাখতে হবে সেই রাগ যাতে খারাপ পরিস্থেতিতে না যায়। মনে রাখতে হবে “রেগে গেলেন তো হেরে গেলেন”।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।