অ্যাসিডিটি থেকে ঝটপট আরাম পেতে যা করবেন

acidity“অ্যাসিডিটি” সমস্যাটি অনেক ছোট কিন্তু ভোগান্তি অনেক। অ্যাসিডিটির (acidity) জন্য দায়ী সাধারণত খাবার দাবারে অনিয়ম, অতিরিক্ত মশলাযুক্ত খাবার খাওয়া, মানসিক চাপ, ব্যায়াম না করা। ওষুধ খাওয়া বা ওষুধ না খেয়ে কষ্ট সহ্য করার থেকে ভালো যদি ঘরোয়াভাবে এই সমস্যার সমাধান করা যায়। আসুন অ্যাসিডিটি থেকে ঝটপট আরাম পেতে আপনাদের কিছু পরামর্শ দেওয়া যাক।

  • পুদিনা পাতাঃ যখনই বুঝতে পারবেন আপনার অ্যাসিডিটির সমস্যা হচ্ছে তখনই দেরি না করে দুই তিনটা পুদিনা পাতা (mint leaves) মুখে নিয়ে চিবোতে শুরু করুন। খেয়াল রাখুন চিবোনোর পর পাতা রসটা যাতে আপনি গিলে খেয়ে ফেলেন। দেখুন আপনার অ্যাসিডিটি সমস্যা কমে যাবে। আপনি ৫ থেকে ৬ টা পুদিনা পাতা এক কাপ পানিতে ১৫ মিনিট সিদ্ধ করুন। মিষ্টি স্বাদের জন্য সামান্য মধু মিশিয়ে পানীয়টুকু পান করুন। ঝটপট অ্যাসিডিটিতে আরাম দিতে এর তুলনা হয় না।
  • দারুচিনিঃ এক কাপ পানিতে হাফ চা চামচ দারুচিনি (cinnamon) গুঁড়া মিশিয়ে কয়েক মিনিট জ্বাল দিয়ে এই পানি পান করুন। যাদের দীর্ঘদিনের অ্যাসিডিটির সমস্যা আছে তারা দিনে দুই বার এই পানীয় পান করলে অ্যাসিডিটির সমস্যা চলে যাবে।
  • আদাঃ অ্যাসিডিটির সমস্যা শুরু হওয়ার সাথে সাথে একটুকরা আদা (ginger) নিয়ে চিবিয়ে খান। দেখবেন সমস্যা কমে যাবে। এক কাপ পানিতে কিছুটা আদা নিয়ে জ্বাল দিয়ে খেলেও অ্যাসিডিটির সমস্যা কমে যায়।
  • ঠান্ডা দুধঃ অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করতে ঠাণ্ডা দুধ খুব কাজে দেয়। যখনই অ্যাসিডিটি সমস্যা হচ্ছে বুঝতে পারবেন তখন খাবার খাওয়ার পর শুধু একগ্লাস ঠাণ্ডা দুধ খেয়ে নেবেন। এতেই আপনার অ্যাসিডিটির সমস্যা কমে যাবে। তবে যাদের দুধ খেলে অ্যাসিডিটির সমস্যা হয় তারা দুধ পান করতে সতর্কতা অবলম্বন করুন।
  • লবঙ্গঃ সামান্য কয়েকটি লবঙ্গ (cloves) মুখে পুরে চিবোতে থাকুন। দেখুন এটা কেমন ম্যাজিকের মতো অ্যাসিডিটির সমস্যা সমাধানে কাজে দেয়!

অ্যাসিডিটির সমস্যা (acidity problem) প্রাথমিকভাবে খুব মারাত্মক কিছু মনে না হলেও এটাকে অবহেলা করা কিন্তু উচিত নয় মোটেও।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।