পরামর্শ লিখুন  

আপনার পেশা বা বয়স যাই হোক, আপনি এমন অনেক বিষয় জানেন যা অনেকেই জানে না। আপনার জ্ঞান প্রকাশিত হলেই অনেকেই উপকৃত হবে। পাশাপাশি তৈরি হবে আপনার ভাবমূর্তি। নিজের ভাষায় নিজের মতো করে পরামর্শ লিখুন।

পরামর্শ.কম অন্যান্য তথ্যভিত্তিক সাইট থেকে আলাদা। অনেক সাইট যেখানে যেকোনো ধরনের নিবন্ধ প্রকাশ করে এই সাইটে কেবল পরামর্শ তথা গাইড (how to ) ভিত্তিক নিবন্ধ প্রকাশ করে।

পরামর্শ ধরনের লেখা সাধারণত কোন কিছু কিভাবে করবে তার উপায় , কৌশল ইত্যাদি উল্লেখ করা হয়। যেমন “ইমেজ ডাউনলোড করার ৭ টি সাইট ” কিংবা “ডাবের পানির উপকারিতা” লেখাগুলো পরামর্শ ধরনের লেখা নয়। লেখা গুলোতে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। অন্যদিকে ” তীব্র পেটের ব্যাথায় যা যা করবেন” অথবা ” ফ্লিকার থেকে ইমেজ ব্যবহার করবেন যে ভাবে ” পরামর্শ ধরনের লেখা।

নিয়মঃ

১) লেখক হিসেবে আপনার একাউন্ট তৈরি না থাকলে এখানে ক্লিক করে তা তৈরি করুন।
২) আপনার সংক্ষিপ্ত পরিচিতি যোগ করুন।
৩) আপনার ছবি সহ gravator.com এ একাউন্ট তৈরি করুন।
৪)  লেখা তৈরি ও প্রকাশের নিম্নোক্ত নীতিমাল গুলো পড়ে নিন।
৫) আপনার লেখাটি আমাদের সম্পাদনা বিভাগের অনুমোদিত হলে সেটি প্রকাশের জন্য বিবেচনায় আনা হবে।

পরামর্শ.কম এ যেকোন লেখা প্রকাশের ক্ষেত্রে নিচে বর্ণিত নিয়মগুলো অনুসরণ করা হবে।

সাধারণ নিয়ম

(১) লেখার মাধ্যম হবে বাংলা। সহজ ও প্রাঞ্জল ভাষায় এমনভাবে তথ্য উপস্থাপন করতে হবে যেন পাঠক লেখাটি পড়ে খুব সহজেই তা বুঝতে পারেন।

(২) যে বিষয়ে আপনি লিখবেন সেই বিষয়ে এই সাইটে আগে লেখা হয়েছে কিনা তা অনুসন্ধান করুন। একই ধরনের লেখা গ্রহণযোগ্য হবে না। তবে একই বিষয়ে ভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে ভিন্ন তথ্য সমৃদ্ধ লেখা প্রকাশ করা হবে।

(৩) লেখা হতে হবে পরামর্শ অর্থাৎ গাইড ধরনের। সাধারণভাবে একটি নিবন্ধে কোন বিষয়ে লেখকের মতামত বা বিভিন্ন তথ্য নিয়ে লেখা হয়। পরামর্শ বা গাইড ধরনের লেখায় পাঠককে কোন কাজ কিভাবে করতে হবে সেটি জানানো হয়।

(৪) লেখাটি হতে হবে মৌলিক। ইতিপূর্বে কোন বাংলা সাইটে প্রকাশিত হয়নি এমন হতে হবে। আপনি চাইলে ভিন্ন ভাষায় প্রকাশিত লেখাকে নিজের মতো করে উপস্থাপন করতে পারবেন। হুবহু বঙ্গানুবাদ ধরনের লেখা প্রকাশের জন্য অনুমোদন করা হবে না।

লেখালেখি

(১) বিষয়বস্তুর ধরণঃ ইতিমধ্যে আমাদের সাইটে বেশ কিছু ক্যাটাগরি যোগ করা হয়েছে। আপনার লেখার প্রয়োজন অনুযায়ী নতুন ক্যাটাগরি যোগ হবে। সময়ের সাথে সাথে প্রয়োজনীয়তা অনুসারে এ ক্যাটাগরিগুলোতে যেকোন ধরণের পরিবর্তন, পরিমার্জন, সংশোধন করার ক্ষমতা পরামর্শ.কম সম্পাদকমন্ডলী সংরক্ষণ করে।

(২) লেখার উৎসঃ পরামর্শ বা নির্দেশনামূলক (guide) যেকোন মৌলিক লেখা প্রকাশের জন্য বিবেচিত হবে। এছাড়া ভিন্ন ভাষার তথ্য নিজের মতো অনুবাদ করে প্রকাশ করা যেতে পারে। তবে হুবহু বাংলা অনুবাদ গ্রহণযোগ্য হবে না। তথ্যের উৎস হিসেবে আমাদের source site এর তালিকা থেকে সহযোগিতা নেয়া যেতে পারে।

(৩) বিষয়বস্তু নির্বাচনঃ পরামর্শ.কম সব সময়ই চেষ্টা করবে পাঠকের জীবন ঘনিষ্ঠ যেকোন বিষয়ের উপর পরামর্শ বা নির্দেশনা প্রদানমূলক লেখা প্রকাশ করতে। পাঠক সেটাই পড়তে আগ্রহী হন যা তিনি জানেন না। তাই লেখার বিষয়বস্তু নির্বাচনের ক্ষেত্রে নতুনত্ব ও বৈচিত্র্য থাকা খুবই জরুরি।

(৪) শব্দ সংখ্যাঃ একটা জিনিস মনে রাখতে হবে, ইন্টারনেটে খুব বেশি বড় লেখা পড়ার ধৈর্য্য ও সময় অনেকেরই থাকে না। তাই যথাসম্ভব কম শব্দে অপ্রয়োজনীয় শব্দ পরিহার করে সব তথ্য সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে হবে।  শব্দ সংখ্যা কমপক্ষে ৪০০ হতে হবে।

(৫)  পেক্ষাপটঃ  যে বিষয়ের উপর লেখা হবে, সেটা বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কতটুকু গ্রহণযোগ্য সেটাও বিবেচনা করতে হবে।

(৬) বাস্তবতাঃ   বাস্তবতার সাথে সামঞ্জস্যবিহীন ও যুক্তিতে টেকে না- এরকম লেখা প্রকাশের জন্য মনোনীত হবে না।

(৭) নকল থেকে সাবধানঃ অন্য কোন বাংলা ওয়েবসাইট থেকে হুবহু নকলকৃত লেখা প্রকাশের জন্য বিবেচিত হবে না। এছাড়া লেখা প্রকাশিত হওয়ার পর যদি জানা যায় যে, কোন লেখা অন্য কোন সাইট থেকে নকল করা হয়েছে সেক্ষেত্রে ঐ লেখা বাতিল করা হবে। এছাড়া সেই লেখকের আর কোন লেখা পরামর্শ.কম গ্রহণ ও প্রকাশ করবে না।

 

ছবি

লেখার সাথে সম্পর্কযুক্ত ছবি দেয়া খুবই গুরত্বপূর্ণ। একটি সুন্দর ও অর্থবহ ছবি লেখার আবেদন পাঠকের কাছে বাড়িয়ে দেয় অনেকটুকুই।

(১) পরামর্শ.কম এ যেসব লেখা প্রকাশিত হবে সেসব ক্ষেত্রে প্রথমে চেষ্টা করা হবে নিজেরাই সম্পাদনা করে ছবি তৈরি করে নিতে। এক্ষেত্রে এডোব ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটরসহ বিভিন্ন সফটওয়্যারের সাহায্য নেয়া যেতে পারে।

(২) এটা সম্ভব না হলে, ইন্টারনেট থেকেও ছবি সংগ্রহ করা যাবে। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই ছবির উৎস, সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট/ ফটোগ্রাফারের নাম উল্লেখ করতে হবে।

(৩) লেখার সাথে ছবি দেয়ার ক্ষেত্রে ছবির মাপ গুরত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে পরামর্শ.কম কর্তৃক নির্ধারিত মাপের ছবি ব্যবহার করতে হবে।

(৪) ছবির সাইজ – লেখায় সংযুক্ত ছবি দৈর্ঘ্যে ৭০০ পিক্সেল এবং প্রস্থে ২০০ পিক্সেল হতে হবে।

ছবি যুক্ত করার অপশন সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। লেখার সাথে ছবি দিতে হলে পরামর্শ.কম এর ফেসবুক পেইজের ইনবক্সে দিতে পারেন। 

পাঠযোগ্যতা

  • লম্বা লাইন লিখা থেকে বিরত থাকুন।
  • প্রতি ২/৩ লাইন অন্তর অন্তর প্যারাগ্রাফ তৈরি করুন।
  • ছবির আকার সঠিক মাপে রয়েছে কিনা নিশ্চিত হয়ে নিন।
  • একটি লেখা শেষ হলে সেটা সাথে সাথে সাইটে না দিয়ে কয়েকবার ভালো করে পড়ে নেয়া উচিত। লেখার বানান ও ভাষাশৈলী এবং তথ্যগত গ্রহণযোগ্যতা নিশ্চিত করতে এর বিকল্প নেই।

পরামর্শ.কম সাইটে লেখা দেয়ার নিয়ম

(১) প্রথমেই লেখা দেয়ার জন্য সাইটে একটি আইডি খুলতে হবে। সেখানে নিজের সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য ও ছবি দিতে হবে। উল্লেখ্য, ছদ্মনাম বা প্রতীকী কোন নাম গ্রহণযোগ্য হবে না।

(২) আইডি সক্রিয় হলে সাইটের উপরে +New ট্যাবে গিয়ে Post ক্লিক করলে Add New Post নামে একটি পেইজ খুলবে। এখানে আপনাকে যা যা করতে হবে-Enter title here ঘরে গিয়ে আপনার লেখার শিরোনামটি লিখুন। এরপর যে বড় চার কোণা ঘর রয়েছে সেখানে আপনার লেখাটি লিখুন।

এ ঘরটির ঠিক উপরেই অনেকগুলো চিহ্ন রয়েছে, যেমন- অক্ষর মোটা/ চিকন করা, শব্দের নিচে দাগ দেয়া, সংখ্যা অনুসারে সাজানো ইত্যাদি। প্রয়োজনে এগুলোর সাহায্য নিন। লেখাতে ছবি/অডিও/ভিডিও যুক্ত করতে চাইলে Add media তে ক্লিক করে Upload Files নির্বাচন করুন।

এটা থেকে আপনি আপনার কম্পিউটারে সংরক্ষিত মিডিয়া ফাইল থেকে লেখার জন্য ছবি/অডিও/ভিডিও সংগ্রহ করতে পারবেন। ফাইলটি select করে upoload সম্পন্ন হলে সেটার উপর একটি টিক-চিহ্ন প্রদর্শিত হবে। এরপর Insert into post নির্বাচন করলে মিডিয়া ফাইলটি লেখার সাথে যুক্ত হবে। লেখার স্বাপেক্ষে ফাইলটি ডানে, বামে কিংবা মাঝামাঝি অবস্থানে স্থাপন করা যাবে।

(৩) এরপর Theme SEO settings এ গিয়ে custom document title এর ঘরে লেখাটির শিরোনামটিই আবার লিখুন।

(৪) তারপর custom post/page meta description এর ঘরে আপনার লেখার বিষষের উপর ছোট সার-সংক্ষেপ লিখুন।

(৫) এরপর সাইটের সর্বডানের কলামে ক্যাটাগরি বিভাগ থেকে সংশ্লিষ্ট বিভাগের পাশের ঘরে টিক-চিহ্ন দিয়ে ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন। [আর নতুন ক্যাটাগরি যোগ করতে চাইলে সাইটের সর্ব বামের কলাম থেকে Category বিভাগ থেকে Add new category নির্বাচন করে name এর ঘরে নতুন ক্যাটাগরির নাম বাংলায় লিখে সেটা যোগ করুন। এরপর slug লেখা ঘরে সে ক্যাটাগরির নাম ইংরেজিতে লিখুন। ]

(৬) সাইটের সর্বডানের কলামে এর পরেই রয়েছে tags। এখানে আপনার লেখাটির বিষয়বস্তু সংক্রান্ত গুরত্বপূর্ণ কয়েকটি শব্দ পর পর কমা (,) চিহ্ন ব্যবহার করে লিখুন। যেমন- ‘গরমে সুস্থ থাকার উপায়’ শিরোনামের লেখার ক্ষেত্রে tag হতে পারে গরম, সুস্থ ইত্যাদি।

(৭) লেখার শিরোনামের ঘরের ঠিক নিচেই রয়েছে Permalink এর ঘর। এখানে http://localhost:8888/wp/ এই অংশটির পর যে লেখাটি লিখছেন সেটার শিরোনাম এর কাছাকাছি ইংরেজি শব্দগুলো হাইফেন (-) দিয়ে লিখুন। যেমন- লেখার শিরোনাম ‘গরমে সুস্থ থাকার উপায়’ হলে permalink এর edit এ গিয়ে লিখতে হবে how-to-stay-fit-at-summer। এরপর ok দিতে হবে।

(৮) সম্পাদনার পর প্রকাশ করার আগে লেখাটি কেমন দাঁড়ালো সেটা দেখতে সাইটের সর্ব ডানের কলামে Preview Changes নির্বাচন করুন। নতুন ট্যাবে আপনি সম্পাদিত লেখাটি দেখতে পাবেন। পুনরায় সম্পাদনার প্রয়োজন হলে সাইটের সবার উপরে Edit Post নির্বাচন করুন।

(৯) চূড়ান্ত সম্পাদনার পর Save নির্বাচন করুন। লেখাটির কোন অংশের পরিবর্তনের প্রয়োজন হলে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে । অন্যথায় লেখাটি অনুমোদিত হলে প্রকাশিত হবে।

সম্মানী

যে সমস্থ লেখকের সাথে আমাদের চুক্তি থাকবে আমরা কেবল তাকেই লেখার জন্য সম্মানী দেই। আপনার লেখা প্রকাশিত হলে আমরা যদি মনে করি আপনার সাথে চুক্তি করব তখন যোগাযোগ করে আপনার সম্মানীর হার স্থির করবো। সম্মানী সংক্রান্ত যেকোন সিদ্ধান্ত ও নিয়ম পরিবর্তন কিংবা সংশোধন করার ক্ষমতা পরামর্শ.কম কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

 কিছু প্রশ্নোত্তর

প্রশ্নঃ আমার আইডিতে লগ ইন করতে পারছি না কেন?
উত্তরঃ আইডি তৈরি হয়ে গেলে আপনি যে ইমেইল দিয়ে আইডি খুলেছেন, সেখানে একটি এক্টিভেশন লিঙ্ক যাবে। সেই লিঙ্কে ক্লিক করে সাইটে লগ-ইন করলে আপনার আইডিটি সক্রিয় হবে। সাধারণভাবে এই লিঙ্ক আপনার ইমেইল ইনবক্সে যাবে। তবে অনেক ক্ষেত্রে ইনবক্সে না গেলে আপনার স্প্যাম ফোল্ডারটিও চেক করুন।

প্রশ্নঃ আমার আইডিতে ছবি যুক্ত করবো কিভাবে?
উত্তরঃ আইডিতে অবশ্যই নিজের ছবি দিতে হবে। এজন্য আপনাকে gravator.com এ গিয়ে আইডি খুলতে হবে ও ছবি যুক্ত করতে হবে।

প্রশ্নঃ গ্র্যাভেটর আমার কাছে জটিল মনে হচ্ছে। ছবি যুক্ত করার অন্য কোন উপায় আছে কি?
উত্তরঃ সাধারণভাবে গ্র্যাভেটরে একাউন্ট খুলে ছবি যুক্ত করাই গ্রহণযোহ্য। তবে বিকল্প পদ্ধতি হিসেবে প্রোফাইলে ছবি যুক্ত করার জন্য নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন।
ধাপ-১ ইউজারনেম ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে সাইটে প্রবেশ করুন। সাইটের উপরে ডান কোণে “লগ ইন” ক্লিক করুন।
1-1
ধাপ-২
লগ ইন করুন। এরপর এরকম একটি পেইজ আসবে।
p-1ধাপ-২: “এডিট প্রোফাইল” ক্লিক করুন।
p-2ধাপ-৩- ভিউ প্রোফাইল ক্লিক করুন।
ধাপ-৪ প্রোফাইল ইনফো তে গিয়ে প্রোফাইল পিকচার অপশনে গিয়ে “আপডেট ইমেজ” ক্লিক করুন।
p-3ধাপ-৫: ব্রাউজ করুন আপনার ছবি কম্পিউটার থেকে।
ধাপ-৬:আপ্লোড ইমেজ বাটনে ক্লিক করুন।
p-4এবার “আপডেট প্রোফাইল পিকচারস” নামে একটি উইন্ডো আসবে।

ধাপ-৭: ক্রপ ইমেজ সিলেক্ট করে ছবির পছন্দমত অংশ নির্বাচন করুন।
ধাপ-৮: “সেভ ইমেজ” ক্লিক করুন।
p-5ধাপ-৯: একই পেইজের নিচের দিকে “আপডেট প্রোফাইল” বাটন ক্লিক করুন।
p-6ধাপ-১০: যুক্ত হয়ে গেল আপনার ছবি!
p-7

প্রশ্নঃ আমি আমার আইডিতে নিজের পরিচিতি কিভাবে লিখবো?
উত্তরঃ সাইট আইডি যখন খুলবেন তখন জীবনবৃত্তান্ত নামে একটি বক্স পাবেন, সেখানে নিজের বিষয়ে যা লিখতে চান, তা লিখে ফেলুন। অবশ্যই বাংলাতে।
ধাপ-১
1-1ধাপ-২
1-2 copyধাপ-৩
1-3ধাপ-৪
1-4

প্রশ্নঃ পরামর্শ টিমের সাথে আমি কিভাবে যোগাযোগ করতে পারি?
উত্তরঃ খুবই সহজ। আমাদের সাইটের মেসেজ অপশনের মাধ্যমে বা ফেসবুক ফ্যান পেইজের ওয়াল/ মেসেজ কিংবা ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে আপনি যে কোন মূহূর্তে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন।

প্রশ্নঃ লিখতে চান পরামর্শ-তে। শুরুটা কিভাবে হবে? 

উত্তরঃ আপনি যে বিষয় নিয়ে লিখতে চান সেটার উপর একটি লেখা সাইটে জমা দিন। সেই লেখাটি যদি প্রকাশিত হয়, তবে সেই একই বিষয়ের উপর আরো ৩-৪ টি  লেখার শিরোনাম আমাদের পাঠান। এর জন্য আমাদের ফেসবুক ফ্যান পেইজের ইনবক্স, ফেসবুক গ্রুপ, mehdi.xponent@gmail.com বা info@poramorsho.com ঠিকানায় ই-মেইল করুন। এরপর আপনাকে জানিয়ে দেয়া হবে আপনি সে বিষয়ের উপর লিখবেন কিনা।

প্রশ্নঃ শিরোনামগুলো কি ধরণের হবে?
উত্তরঃ আপনি যে বিষয়ের উপর লিখতে চান, সেটা নিয়ে সিরিজ আকারে বা ধারাবাহিকভাবে লিখতে হবে। যেন আপনার লেখাগুলো পর্ব আকারে পড়ে একজন পাঠক সে বিষয়ে একটি পরিপূর্ণ ধারণা পান।

এ ধরণের লেখার উদাহরণ নিচের প্রশ্নে দেয়া হয়েছে।

প্রশ্নঃ এরকম লেখার উদাহরণ দেবেন কি?
উত্তরঃ  নিচের দুটি লেখা দেখুন-

৩৫তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রস্তুতি- ইংরেজি
http://localhost:8888/wp/35th-bcs-preliminary-examination…/

USA ভিসা সাক্ষাৎকারে যাওয়ার পূর্বে যে বিষয় গুলো আপনার জানা জরুরি
http://localhost:8888/wp/important-instructions-before-vi…/

লেখাগুলো পড়ে দেখুন। প্রথম লেখার শেষে আরো কিছু লেখা যুক্ত করা হয়েছে। যেমন- বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতির শুরুটা কেমন হবে, এরপর আসে বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি- বাংলা, এরপর ইংরেজি। ধীরে ধীরে অন্য বিষয়ের প্রস্তুতি নিয়েও লেখা আসবে। এর ফলে পাঠকরা এক লেখাতেই সব তথ্য পেয়ে যাচ্ছেন।

২য় লেখা আমেরিকা যাওয়া সংক্রান্ত। এক্ষেত্রে কিভাবে ভিসার জন্য আবেদন করবেন সেই তথ্য দিয়ে শুরু হয়েছে। এরপরে এখন পর্যন্ত এর পরের কিছু ধাপ নিয়ে লিখা এসেছে। এটার উদ্দেশ্য হচ্ছে কেউ যদি আমেরিকা যেতে চান, তিনি যেন আমাদের সাইটে এসে একটি পরিপূর্ণ নির্দেশনা পেতে পারেন।

এখন থেকে আপনারা যে কোন বিষয় নিয়ে লেখার আগে এ বিষয়টি খেয়াল রাখবেন। আপনার লেখাটি যদি হয় “ডিম এর গুণাগুণ বা কোন গুণাগুণের জন্য ডিম খাবেন” এরকম লেখা, তবে এর পরের লেখাটি কি নিয়ে হতে পারে? যেমন- “ডিম পোচ বা মামলেট করার সহজ/ ব্যতিক্রমী কোন নিয়ম”,ডিমের কোন স্পেশাল রেসিপি”… এরকম।

মোট কথা, লেখাগুলো ধারাবাহিক নির্দেশনা/ গাইডলাইন হতে হবে।

প্রশ্নঃ লেখার জন্য আইডিয়া খুঁজবেন কিভাবে?
উত্তরঃ  

  • লেখার সময় লক্ষ্য রাখবেন আপনার আর্টিকেলটি পড়ে সাধারণ মানুষ সাথে সাথেই এর মর্ম উপলব্ধি করতে পারবে কি না। একদম সহজ সরল ভাষায় লিখুন।
  • আপনার লেখা আর্টিকেলটি জনপ্রিয়তা পাবে কিনা এই চিন্তা না করে বরং এটা লক্ষ্য রাখুন আর্টিকেলটি যেন তথ্যবহুল হয়। একজন মানুষ আপনার লেখাটি পড়ার পর যেন একই বিষয়ে অন্য কোন আর্টিকেলের সাহায্য নেয়ার প্রয়োজনীয়তা অনুভব না করে। সোজা ভাষায় আপনার লেখাটি পড়ার পর পাঠকের মনে যেন এই কথাটা আসে “আরে এ তথ্যটিই তো মনে মনে খুঁজছিলাম!”
  • যেহেতু পরামর্শ.কম এর লেখাগুলো আজীবনই মানুষের উপকারের উদ্দেশ্যে অনলাইনে থেকে যাবে তাই লেখার সময় সংশ্লিষ্ট একদম নতুন তথ্যগুলোই ব্যবহার করুন।
  • আপনি যে বিষয়ে লিখছেন যে বিষয়ে আরও কিছু আর্টিকেল পরামর্শ.কম এ থাকতে পারে। এক্ষেত্রে যদি সম্ভব হয় ইন্টারনাল লিংক করে দিন, না পারলে চেষ্টা করুন অন্তত আর্টিকেলের শিরোনামটি আপনার লেখার শেষে উল্লেখ করে দিতে। আর যদি সম্ভব না হয় তাহলে থাকুক। আপনার হয়ে এই কাজটি করার জন্য পরামর্শ.কম টিমতো আছেই।
  • আপনি যে বিষয় নিয়ে লিখতে চাচ্ছেন যে বিষয়ে পরামর্শ.কম এ যদি আরও আর্টিকেল থেকে থাকে তবে প্রথমে সেই আর্টিকেলগুলো পড়ে নিন। আবার আপনি যা লিখতে চাচ্ছেন তার সাথে মিলিয়ে দেখুন। যদি আপনার আর্টিকেলে খুব বেশি নতুন তথ্য না থেকে থাকে তাহলে অন্য কোন বিষয়ে লেখার চেষ্টা করুন। এজন্য সাইটের হোম পেইজের অনুসন্ধান বক্সে লেখার বিষয় লিখে সার্চ করুন।
  • অনেক সময় আইডিয়া শূন্যতায় ভুগতে পারেন। এক্ষেত্রে পরামর্শ.কম এর পুরানো আর্টিকেলগুলো পড়ুন। কোন একটি আর্টিকেল দেখে আপনার মনে হতে পারে আপনি এর চেয়ে ভাল ভাবে লিখতে পারবেন, তাহলে লিখে ফেলুন। অথবা যদি মনে হয় আর্টিকেলটি ঠিকই আছে কিন্তু এর সাথে আরও কিছু তথ্য যোগ করলে ভাল হয় তাহলে সেই অংশটি লিখে তথ্যের লিংক এবং আর্টিকেলের লিংকটি আমাদের ইমেইল করুন।
  • লেখার বিষয়বস্তু/টপিক নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে বা লেখা সংক্রান্ত অন্য যে কোন সাহায্য প্রয়োজন হলে contact@poramorsho.com  মেইল করুন অথবা ফেসবুক পেইজ বা গ্রুপে  পোস্ট করুন। অফিস খোলা দিন গুলোতে ২৪ ঘন্টার মধ্যে আমরা উত্তর দিয়ে থাকি।
  • যেখান থেকেই আপনার আর্টিকেলের জন্য তথ্য সংগ্রহ করুন না কেন, লেখার শেষে তথ্যসূত্র উল্লেখ করে দিন।
  • দয়া করে অন্য কোন বাংলাদেশি ওয়েবসাইট থেকে কপি পেস্ট করবেন না। যদি অন্য কোন ওয়েবসাইটের লেখা দেখে মনে হয় আপনি তার চেয়ে ভালভাবে লিখতে পারবেন তবে লিখুন। কিন্তু হুবহু কপি পেস্ট আর্টিকেল কখনোই পরামর্শ.কম গ্রহণ করে না।
  • অনেক অনেক বেশি করে বই/পত্রিকা পড়ুন। মানুষের সাথে মিশুন। শুধুমাত্র এভাবেই আপনি সঠিক জ্ঞান আহরণ করতে পারবেন।

প্রশ্নঃ লেখা শুরু করার পর কোন বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে?

উত্তরঃ 

    • বানান- একটা লেখাতে পাঠক ধরে রাখার প্রধান উপায় হচ্ছে বানান ভুল না করা। মনে রাখবেন ফেসবুক স্ট্যাটাস আর সাইটে লেখালেখি করা ভিন্ন বিষয়। বানান নিয়ে দুর্বলতা সবারই থাকবে, কিন্তু সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে যেন এসব এড়ানো যায়। যেমন- “সারা” ও “সাড়া”, “ধোঁয়া” ও “ধোয়া”, “যায়” ও “যাই” ইত্যাদি কিংবা শব্দের বানানে “ন” নাকি “ণ” হবে সেটা নিশ্চিত হওয়া। আরো পড়ুন এই লিঙ্কে
    • যুক্তবর্ণ সমস্যা- অনেকেই অভ্র-তে যুক্ত বর্ণ লিখতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন। যেমন- “পিচ্চি”কে “পিচ্ছি” বা “বাচ্চা”কে “বাচ্ছা” লেখা। এক্ষেত্রেAvro Mouse-Click n’ Type অপশনের সাহায্য নিন
    • কথ্য ভাষা ও আঞ্চলিকতা- এ দুটি বিষয় অবশ্যই পরিহার করতে হবে। আমাদের সবারই কম বেশি আঞ্চলিকতার টান রয়েছে কথাতে। এটা দোষের কিছু নয়। তবে সেটা যেন লেখাতে চলে না আসে। যেমন- মুখে বলার সময় অনেকেই হয়তো “আপনি” কে “আপনে”, “খেয়েছি” কে “খাইসি” বলেন। কিন্তু লিখার সময় এ ভুলগুলো করা যাবে না মোটেও।
    • অপ্রাসংগিক কথা বলা- যে কথা একটি বাক্যে বোঝানো যায়, সেটাকে দীর্ঘ করলে লেখা তার আকর্ষণ হারায়। লেখাটি শেষ করে কয়েক বার লেখাটি পড়বেন। অনেক বানান বা তথ্যগত বিভ্রাট, বাক্যের অসামঞ্জস্যতা প্রথম বার লেখাতে থেকে যেতে পারে। অতিরিক্ত ভুল সর্বস্ব লেখা বাতিল হবে কিংবা পুনরায় ঠিক করে দেয়ার জন্য লেখকের কাছে পাঠানো হবে। তাকে সেটা ঠিক করে আবার সাইটে জমা দিতে হবে। 

সাইটে লেখা পোস্ট করবো কিভাবে?
উত্তরঃ সাইটে লগ ইন করলে আপনি সাইটের উপরের দিকে কালো রঙের মেন্যু বার দেখতে পাবেন। সেখানে +নতুন অপশন থেকে প্রকাশনা বাটন ক্লিক করলে আপনি লেখা পোস্ট করার ফিল্ড পাবেন। এখানে শিরোনাম, মূল লেখার বডি, ডান পাশে লেখার বিভাগসমূহ অপশন নির্বাচন করবেন। এছাড়া ডান পাশের কলামে ট্যাগ অপশনে গিয়ে আপনার লেখাটি থেকে কিছু গুরত্বপূর্ণ শব্দ কমা (,) দিয়ে বসিয়ে দিন। এর ফলে সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে আপনার লেখাটি খুঁজে পেতে সহজ হবে। এরপর ডান পাশের কলামেই “পর্যালোচনার জন্য জমা দিন” বাটন লিক করুন। আর আপনার যদি মনে হয় আপনি আপনার লেখাতে কোন পরিবর্তন আনবেন তবে “খসড়া সংরক্ষণ করুন”  বাটন ক্লিক করুন।