মারাত্মক রোগের ঝুঁকি থেকে মুক্ত থাকতে পানি পান করুন নিয়ম মেনে

Drinking Water For Good Health And Cure Diseaseবিশুদ্ধ পানির (pure water) অপর নাম জীবন। অগণিত বার শুনেছি কিংবা পড়েছি। কিন্তু নিয়ম মেনে ক’জনে আমরা পানি পান করি? প্রতিদিনের পানি পানকে যদি আমরা নির্দিষ্ট পরিমাণ ও নিয়মে বাঁধতে পারি তবে উপকৃত হবো হাজার গুন বেশি। যেমন- সকালে ভরা পেটে পানি পানের চেয়ে ভোরে খালি পেটে পান করার উপকার বেশি।

সুস্বাস্থ্যের জন্য এবং রোগকে দূরে রাখার জন্য আমাদের জানতে হবে কিভাবে, কি নিয়মে পানি পান করতে হবে। প্রতিনিয়ত আমরা নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছি। নিয়ম মেনে চলতে পারলে অনেক রোগের আক্রমণ থেকে রেহাই পেতে পারি।

সুস্বাস্থ্য ধরে রাখতে যেভাবে পানি পান করতে হবে

  • ভোরে পানি পানের উপকারীতার তালিকায় ত্বকেরর ঔজ্জ্ব্লতা, কোষের কর্মক্ষমতা, লসিকা গ্রন্থির ভারসাম্য,মলাশয় পরিশোধণ সহ রয়েছে নানা জটিল রোগের ঝুঁকি হ্রাস। শরীরের সুস্থভাব ধরে রাখতে জানতে হবে কোন অবস্থায় কি পরিমাণ পানি পান করতে হবে। যেমন- দেড় লিটার (৫-৬ গ্লাস) পানি ঘুম থেকে উঠার সাথে সাথে পান করতে হবে।
  • পানি পানের ১ঘন্টা আগে-পরে অন্য কিছু খাওয়া যাবে না।
  • প্রথম প্রথম একসাথে ৫-৬ গ্লাস পানি পান করা কষ্ট সাধ্য মনে হবে। তাই এর জন্য প্রয়োজন প্রতিদিন চেষ্টা করা এবং অল্প অল্প করে পরিমাণ বাড়ানো। যখন অভ্যাস হয়ে যাবে সে নিয়ম ধরে রাখতে হবে। যা আপনার সুস্বাস্থ্যকে ধরে রাখবে।

যে সব বিষয় খেয়াল করতে হবে

  • ঘু্ম থেকে উঠে, দাঁত ব্রাশ করার আগে করে ৪ গ্লাস পানি পান।
  • তারপর ব্রাশ করে নিতে হবে। কিন্তু কিছু খাওয়া যাবে না।
  • ৪৫মিনিট পর সকালের নাস্তা করতে হবে। নাস্তার শেষ করে ২ঘন্টা অন্য কিছু পান বা খাওয়া যাবে না।
  • বৃদ্ধ বা অসুস্থ হলে একসাথে ৫-৬ গ্লাস করে পানি পান না করে, প্রথমে ২গ্লাস ,বিরতি দিয়ে পরে ২ গ্লাস এভাবে চালিয়ে যেতে হবে।

এভাবে ধৈর্য্য ধরে প্রতিদিন এক নিয়ম পালন করে যেতে পারলে ১৮০ দিনে ক্যান্সার, ৯০ দিনে যক্ষা রোগ, ৩০ দিনে ডায়াবেটিস, ১০ দিনে গ্যাসট্রিক ও কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করার বিশেষ সক্ষমতা আপনার শরীরে তৈরী হবে।

পর্যাপ্ত পানি পান না করলে স্তন ক্যান্সার, কিডনিতে পাথর,অ্যাজমা,উচ্চরক্ত চাপ,আথ্রাইটিস,সাইনোসাইটিস ইত্যাদি রোগ আক্রমণ করবে খুব সহজেই। আর পর্যাপ্ত পানি নিয়ম করে পান করলে মুক্তি মিলবে অনেক কিছু থেকে। কেননা আমাদের দেহের অভ্যন্তরীণ প্রক্রিয়ায় পানি প্রয়োজন হয় ৭০% ,মস্তিষ্কের কোষ-৮০%,পেশী-৭৫%,হাড়-২৫% রক্ত ৮২% পানি দিয়ে গঠিত।

আরো জেনে নিন

জাপানের মেডিকেল সোসাইটির গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে নিয়ম মেনে পানি পান থেরাপির মত কাজ করে থাকে। যা নানা রোগ প্রতিরোধ করতে সক্ষম। ঔষধ ছাড়াই বেশ কিছু রোগ “এই ওয়াটার থেরাপির” মাধ্যমে দূরে করা যায়। তবে সেটি নির্ভর করছে আপনি দৈনিক কিভাবে পানি পান করছেন তার উপর।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য/রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক/ বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।