যে সব রোগের প্রতিষেধক হিসেবে গ্রীন টি পান করতে পারেন

green-teaগ্রীন টি বা সবুজ চা স্বাস্থ্যের পক্ষে অত্যন্ত উপকারী। প্রতিদিন অন্তত ২ কাপ চা আমরা প্রায় সবাই পান করি। এর পরিবর্তে যদি গ্রীন টি পান করা যায় তাহলে বেশ কিছু রোগের সম্ভাবনা থেকে মুক্ত থাকা যায়। জেনে নিন এমন কিছু রোগ সম্পর্কে যার ঝুঁকি কমায় গ্রীন টি।

১. হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়ঃ

হৃদরোগের অন্যতম কারণ Blood clots গঠনে বাধা সৃষ্টি করে গ্রীন টিতে থাকা উপাদান। এছাড়াও এটি আমাদের রক্ত পরিবহণ নালীগুলোকে প্রসারিত করে এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

২. খাদ্যনালীর ক্যান্সার প্রতিরোধ করেঃ

নিয়মিত গ্রীন টি পান খাদ্যনালীর ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই কমিয়ে দেয়। এছাড়াও এই চা তে থাকা বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান ক্যান্সারের কোষগুলো এমনভাবে ধ্বংস করে যাতে এর আশেপাশে থাকা সুস্থ কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

৩. ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখেঃ

খাওয়ার পর রক্তে চিনির পরিমাণ বেড়ে যাওয়া যে কোন ডায়াবেটিস রোগীর জন্যই দুশ্চিন্তার কারণ। প্রতিদিন ২ কাপ বা এর চেয়ে বেশি গ্রীন টি পান করলে তা শরীরে গ্লুকোজের পরিমাণকে নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৪. কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখেঃ

গ্রীন টি Low-density lipoprotein (LDP) যা খারাপ কোলেস্টেরল নামে পরিচিত, এর পরিমাণ কমায়। ফলে High-density lipoprotein (HDL) যা স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী কোলেস্টেরল তার অনুপাত বৃদ্ধি পায়।

৫. আলঝেইমার্স ও পারকিনসন্স ডিজিজ এর সম্ভাবনা হ্রাস করেঃ

আলঝেইমার্স বা স্মৃতি বিনষ্টকারী রোগ এর চিকিৎসা এখনো পর্যন্ত তেমন উন্নত না হলেও জানা গেছে গ্রীন টি তে থাকা উপাদান এই রোগ হবার সম্ভাবনা হ্রাস করে। পারকিনসন্স ডিজিজ এর অন্যতম কারণ হলো আমাদের মস্তিষ্কের ডোপামিন উৎপাদনকারী কোষগুলোর মৃত্যু। গবেষণাগারে ইঁদুরের উপর পরীক্ষা করে দেখা গেছে গ্রীন টি মস্তিষ্কের কোষগুলোকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচায় এবং ক্ষতিগ্রস্ত কোষগুলোকে সুস্থ করতে ভূমিকা রাখে।

৬. ওজন কমায়ঃ

গ্রীন টি ওজন কমাতে সাহায্য করে। এটি মেটাবোলিজম বৃদ্ধি করে, এতে থাকা পলিফেনল আমাদের শরীরের চর্বি বা ফ্যাটকে দ্রুত কমায়। প্রতিদিন ১ কাপ গ্রীন টি আমাদের শরীরের ৭০ ক্যালরি কমিয়ে দেয়। ফলে শুধু মাত্র গ্রীন টি পান করেই আপনি বছরে প্রায় ৩ কেজির মত ওজন কমাতে পারেন।

৭. বিষণ্ণতা থেকে মুক্ত রাখেঃ

Theanine নামক এমাইনো এসিড এর অন্যতম কাজ আমাদের শরীর এবং মনকে শান্ত করা। গ্রীন টি তে যথেষ্ট পরিমাণে এই Theanine থাকে। তাই নিয়মিত গ্রীন টি পান আমাদের মনকে শান্ত রাখে এবং বিষণ্ণতা দূর করতে সাহায্য করে।

প্রতিদিন ২ থেকে ৫ কাপ গ্রীন টি পান আপনাকে সুস্থ রাখবে এইসব রোগ থেকে। তবে গ্রীন টি তে থাকে Caffeine যা অতিরিক্ত গ্রহণে অনিদ্রা দেখা দিতে । এতে আরো আছে Tannins ,যা আয়রন এবং ফলিক এসিড পরিমাণ হ্রাস করে। তাই গর্ভবতী মহিলাদের ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে গ্রীন টি পান করা উচিত।

গ্রীন টি এর আরও কিছু গুণাগুণ জানতে পড়ুনঃ
১. ত্বকের যত্নে ব্যবহার করুন গ্রিন টি
২. যে ৫টি কারণে ওজন কমাতে গ্রীন টি পান করবেন

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।