শীতের সবজি লাউয়ের যতগুণ

bottle-gourd

লাউ আমাদের কাছে অতি সুপরিচিত একটি সবজি। এখন প্রায় সারা বছর লাউ পাওয়া গেলেও শীতের এই সময়টাই আমরা লাউয়ের আধিক্য বেশী লক্ষ্য করি।

সবুজ রঙের এই সুস্বাদু সবজিটির গুণের কথা বলে শেষ করা যাবেনা।

প্রতি ১০০ গ্রাম লাউয়ে রয়েছে জলীয় অংশ ৯৬.১০ গ্রাম, আঁশ ০.৬ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ১২ কিলোক্যালরি, প্রোটিন ০.২ গ্রাম, চর্বি ০.১ গ্রাম, শর্করা ২.৫ গ্রাম।

খনিজ উপাদানের মধ্যে ক্যালসিয়াম ২০.০ মিলিগ্রাম, আয়রন ০.৭ মিলিগ্রাম ছাড়াও সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, জিংক, ফসফরাস ও সেলেনিয়াম রয়েছে।

এ ছাড়া ভিটামিন এ, বি-কমপ্লেক্স সি ছাড়াও এতে ফলিক এসিড, ওমেগা-৬ ফ্যাটি এসিড আছে।

আসুন আজ আপনাদের কাছে এই অতিপরিচিত লাউয়ের কিছু এমন  স্বাস্থ্য উপকারিতার কথা জানাবো যা জেনে হয়তো লাউয়ের কদর আপনার কাছে আরও একধাপ বেড়ে যাবে।

উচ্চরক্তচাপ কমাতে

লাউয়ে বেশি পরিমাণে পটাশিয়াম থাকায় উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন এমন রোগীর পক্ষে এটা খুবই উপকারী।

যাদের উচ্চরক্তচাপ নিয়ে প্রায়ই সমস্যায় ভুগতে দেখা যায় তারা যদি নিয়ম করে তাদের খাবার তালিকায় লাউ রাখেন তাহলে আর উচ্চরক্তচাপ নিয়ে ভুগতে হবে না।


আরো পড়ুনউচ্চরক্তচাপ কমান ৬ টি সহজ উপায়ে


ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে

ক্যালোরির পরিমাণ কম থাকায় ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও লাউ যথেষ্ট উপকারী। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীরা এটা খাওয়া মানা সেটা খাওয়া মানে এতো সব মানার মধ্যে নিশ্চিন্তে লাউ খেতে পারেন।


আরো পড়ুনডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি


হজমে সাহায্যকারী

লাউ এমন একটি সবজি যা কিনা প্রচুর পরিমাণে দ্রবনিয় ও অদ্রবনিয় ফাইবারে পরিপূর্ণ।

এসব ফাইবার খাদ্য হজমে খুব সাহায্য করে, এমনকি নিয়ম করে লাউয়ের তরকারি খেলে আমাদের পেটের অ্যাসিডিটি সমস্যা অনেকখানিই কমে যায়।

কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পেতেও লাউয়ের তুলনা হয়না। হজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পেতে লাউ বেশী করে খান।

ওজন কমাতে

শরীরের বাড়তি ওজন নিয়ে চিন্তিত? তাহলে আর দেরী না করে খাবারের তালিকায় লাউয়ের নামটি যোগ করে ফেলুন। লাউ অত্যন্ত কম ক্যালোরি সমৃদ্ধ ও কম ফাইবার যুক্ত খবার।

যার অন্তর্ভুক্ত পুষ্টিমানের মধ্যে প্রায় ৯৬% ই পানি। তাই আপনি নিশ্চিন্তে ওজন কমানোর ডায়েট হিসেবে লাউ খেতে পারেন।

প্রসাবে জ্বালা পোড়া কমাতে

প্রায়ই প্রসাবে অত্যন্ত জ্বালাপোড়ার সমস্যার সম্মুখীন হয়। অনেকেই ভরপেট পানি পান করতে করতে বিরক্ত হয়ে যান।

লাউয়ের যেহেতু সব অংশটাই জলীয় তাই আপনার এই প্রসাবজনিত জ্বালাপোড়া কমাতে লাউ খুব উপকারি।

পানি শুন্যতা দূর করতে

যেকোন ধরণের পানি শুন্যতা দূর করতে লাউ কার্যকরী একটি খাদ্য উপাদান। জ্বর, ডায়রিয়া ও জন্ডিস এইসব পানি শুন্যতা সংক্রান্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে লাউ বেশী করে খান।

অনিদ্রা দূর করতে

এই সবজি দেহের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসমনিয়া বা নিদ্রাহীনতা দূর করে পরিপূর্ণ ঘুমের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।


আরো পড়ুনকিভাবে আপনার অনিদ্রার সমস্যা সমাধান করবেন?


যারা ঘুমের ঘাটতির জন্য প্রতিনিয়ত কষ্ট করে যাচ্ছেন তারা শুধুমাত্র লাউ বেশী করে খেলেই ঘুমের জন্য উপকার পাবেন।

শীতের সবজি লাউ

লাউ খেলে ভেতর থেকে আপনার চুল ও ত্বক সুন্দর আর মসৃণ হয়ে ওঠে। লাউয়ের পুষ্টি উপাদান পেটের খাদ্য হজম সমস্যা দূর করে বলে আপনার ত্বকে ব্রণ ওঠার সমস্যা থাকেনা।

এমনকি শীতের  শুষ্ক আবহাওয়াতে আমাদের ত্বক শুষ্ক হয়ে পড়ায় লাউ খেলে ত্বকের শুষ্কভাব দূর হয়। আবার আপনি যদি নিয়মিত লাউ খান তাহলে আপনার চুলের গোঁড়া শক্ত হয় আর চুল পড়া কমে যায়।

গর্ভবতী মায়েরা লাউয়ের তরকারি খেলে সন্তানের জন্য বুকের দুধের পরিমাণ বাড়াতে পারেন।

এছাড়া লাউ খাওয়ার পাশাপাশি আপনি যদি লাউয়ের আগাডগা রান্না করে খেতে পারেন তাহলেও শরীরের নানা সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।


সোর্সঃ http://www.stylecraze.com/articles/amazing-benefits-of-lauki-juice-for-health-and-beauty/


সম্পর্কিত পোস্ট: