জেনে নিন করলার উপকারিতা

bitter cucumber

আজ খাবারের তালিকায় করলা আছে। এই একটা কথা শুনেই অনেকে চোখ কুচকে ফেলেন বা করলার তেত স্বাদের কথা ভেবে খেতে বসার আগ্রহই শেষ করে ফেলেন।

কিন্তু আপনি কি জানেন তেত স্বাদের এই সবজীটির গুণ কত?

সত্যি বলতে করলার গুণের বহর বলে শেষ করা যাবেনা। খেতে তেত হলেও এই সবজীটি আমাদের জন্য ভীষণ উপকারি।

দৃঢ় বিশ্বাস নিয়ে বলা যায় আপনি যদি একবার এই করলার গুণের কথা মনোযোগ দিয়ে শোনেন তাহলে তেতো বলে এই খাবারটিকে একদম উপেক্ষা করতে পারবেন না।

আসুন জেনে নেই করলার কিছু উপকারিতা সম্পর্কেঃ

লিভার টনিক(Liver tonic)

প্রতিদিন একগ্লাস করলার জুস আপনার লিভার জনিত সব রকম সমস্যার সমাধান করে। টানা এক সপ্তাহ করে গ্রহণ করেই দেখুন ফলাফল আপনি নিজেই পাবেন।

 ইমিউন সিস্টেম(Immune system)

সিদ্ধ করলা ও করলার পাতা খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এছাড়া আমাদের শরীরে ওত পেতে থাকা নানা ধরণের রোগ যা এখনো প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি সেসব রোগ নির্মূল করতে করলার জুড়ি নেই।

ব্রণ(Acne)

ত্বকের ব্রণের সমস্যা নিয়ে জর্জরিত মানুষের সংখ্যা আমাদের মধ্যে কম নেই। নিয়মিত করলার জুস বা করলা দিয়ে তৈরি নানা ধরণের খাবার আমাদের শরীর থেকে ব্রণের সমস্যা দূর করে।

কারণ করলা আমাদের শরীরে রক্ত বিশুদ্ধ রাখে যার কারণে ত্বকে ব্রণ জনিত কোন সমস্যা দেখা দেয় না।


আরো পড়ুন– প্রাকৃতিক উপায়ে দ্রুত ব্রণ সারিয়ে তুলুন


ডায়াবেটিস(Diabetes)

ডায়াবেটিসের অন্যতম সহজলভ্য প্রতিষেধক হলো করলা। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীরা যদি নিয়ম করে প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস করে করলার জুস করে পান করেন তাহলে ডায়াবেটিস অনেকটাই নিয়ন্ত্রনে থাকবে।


আরো পড়ুন– ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে করলার জুস তৈরি করবেন যেভাবে


কোষ্ঠকাঠিন্য(Constipation)

করলার ফাইবার উপাদান খাদ্য হজম জারিত হতে সাহায্য করে। যার ফলে শরীর সুস্থ থাকে ও কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে আমরা নিরাপদে থাকতে পারি।

কিডনি এবং মূত্রাশয়(Kidney and bladder)

করলা কিডনি জনিত সমস্যা সমাধানে খুব উপকারি। আপনার কিডনিতে যদি পাথর থাকে নিয়মিত করলা গ্রহণ করুন সুস্থ থাকবেন।

আবার যারা মূত্রাশয়ের সমস্যা জনিত কারণে কষ্ট পান তাড়াও  করলা কে কখনো খাবার তালিকা থেকে বাদ দেবেন না।

হৃদরোগ (Heart disease)

হৃদরোগের জন্য করলা খুব উপকারি। করলা আমাদের দেহের খারাপ কলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে হৃদযন্ত্র ভালো রাখে। হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীরা রোজ রোজ করলা খান।


আরো পড়ুনঘরোয়াভাবে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখবেন যেভাবে


ক্যান্সার(Cancer)

আমাদের শরীরে ক্যান্সারের আক্রমণ প্রতিরোধ করতে করলার কোন তুলনা হয়না। ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে করলা রোজকার খাবারের তালিকায় রাখুন।


আরো পড়ুনত্বকের ক্যান্সার প্রতিরোধে কি করণীয়


ওজন কমাতে(Weight loss)

করলার জলীয় উপাদান খুব যত্ম নিয়ে আপনার শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমিয়ে দেবে। তাই শরীরের বাড়তি ওজন নিয়ে যারা চিন্তিত তারা আজ থেকেই করলার সাথে বন্ধুত্ব করে নিন।

অ্যান্টি এজিং(Anti-ageing)

করলার ভিটামিন সি উপাদান ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের ত্বকে বয়সের ছাপ ফেলতে দেয়না। বরং অনেকদিন অব্দি ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে।

করলার এতো গুণের কথা জানার পর নিশ্চয় আর করলা ভীতি আপনার মধ্যে কাজ করবে না।


সোর্সঃ http://www.stylecraze.com/articles/amazing-benefits-of-bitter-melonbitter-gourd/


সম্পর্কিত পোস্ট: