তেঁতুলের যতগুণ

tamarind

“তেঁতুল খেলে রক্ত পানি হয়ে যায়” এই কথাটি শোনেন নাই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। হ্যাঁ জিভে জল আনা এই ফলটি খেলে আর যাই হোক রক্ত পানি হয়ে যাওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

বরং আমাদের অতি সুপরিচিত এই তেঁতুলের গুণের বহর কম নয়। তেঁতুলের রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ যা আমাদের শরীরের জন্য অনেক দরকারি।

আসুন দেখে নেই সুস্বাদু আর পুষ্টিকর ফল তেঁতুলের কিছু অসাধারণ উপকারিতা:

*তেঁতুল মস্তিষ্কের জন্য খুবই উপকারি। তেঁতুল যেকোন খাবার থেকে প্রয়োজনীয় আয়রন সংগ্রহ করে তা দেহের বিভিন্ন কোষে পরিবহন করে যা মস্তিষ্কের জন্য দরকার।

তাই মস্তিষ্ক ভালো রাখতে মাঝে মধ্যে একটু তেঁতুল আপনি খেতেই পারেন।

*অনেকেই দেহের অতিরিক্ত চর্বি নিয়ে দুশ্চিন্তাই থাকেন। এক্ষেত্রেও তেঁতুল আপনাকে সাহায্য করতে পারবে। তেঁতুল খেলে দেহের অতিরিক্ত চর্বি ঝরে যায়।

আপনি চাইলে তেঁতুলের শরবৎ বানিয়ে পান করতে পারেন। দেখবেন চর্বি কমে যাচ্ছে।


আরো পড়ুন– সহজেই ওজন কমানোর জন্য কিছু পরামর্শ


*আমরা সচারচরই টমেটো সস খেয়ে থাকি। চাইলে কিন্তু টমেটো সসের জায়গায় তেঁতুল বা তেঁতুলের টক বানিয়ে সসের বিকল্প হিসেবে খেতে পারি। এতে আমাদের রক্তের চর্বি কমে আসে।

*পেটফাঁপা বা বদহজমে তেঁতুলের চেয়ে কাজের জিনিস আর হয়না। আপনি যদি পুরাতন তেঁতুল পানিতে ভিজিয়ে লবণ ও চিনি সহযোগে পান করেন তাহলে আপনার পেটফাঁপা ও বদহজম দূর হয়ে যাবে।

*তেঁতুলের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান আমাদের শরীরে ক্যান্সারের জীবাণু ও সেল গঠনে বাধা প্রদান করে থাকে। তাই যদি ক্যান্সার রোধ করতে চান তাহলে তেঁতুল খেতে আপত্তি করবেন না।


আরো পড়ুন- ত্বকের ক্যান্সার প্রতিরোধে করণীয়


*পাইলস দূর করতে তেঁতুল খুব কার্যকরী। যারা দীর্ঘদিন ধরে পাইলসের সমস্যায় ভুগছেন তারা নিয়মিত তেঁতুলের জুস করে পান করতে পারেন। দেখবেন পাইলসের সমস্যা অনেকটাই কমে যাচ্ছে।

*তেঁতুলের গরম বা ঠাণ্ডা পানি ত্বকের ময়শ্চারাইজিং এজেন্ট হিসেবে ব্যবহার কড়া যেতে পারে।

শুধু গরম ফুটন্ত পানিতে কিছু পরিমাণ তেঁতুল যোগ করে সেই পানি ১৫ মিনিট হালকা আঁচে সিদ্ধ করার এর মধ্যে চা চামচ গ্রিনটি যোগ করে দিন।

এটি আপনি মুখ ধোয়ার কাজে ব্যবহার করলে আপনার ত্বক মশ্চারাইজ থাকার পাশাপাশি ত্বক সুন্দর আর উজ্জ্বল থাকবে।

*চুলের রুক্ষতা দূর করতে ও চুল সুন্দর করতে ব্যবহার করতে পারেন তেঁতুল। ১০ মিনিটের জন্য তেঁতুল পানির মধ্যে ডুবিয়ে রেখে  সেই আপনার চুলের গোঁড়া সহ পুরো চুলে ম্যাসাজ করুন।।


আরো পড়ুনঅসহ্য খুশকির যন্ত্রনা থেকে মুক্তির জন্য ৭টি সহজ পরামর্শ


এরপর গরম পানিতে একটি তোয়ালে ভিজিয়ে আপনার মাথার সম্পূর্ণ চুল সেই তোয়ালে দিয়ে মুড়িয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা পর ভালো কোন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। দেখুন চুল কেমন সুন্দর আর ঝলমলে হয়ে উঠবে।


সম্পর্কিত পোস্ট: