ঘরোয়া যে ৫ টি পদ্ধতিতে আপনার পা ফাটা রোধ করবেন

foot

পা ফাটা খুব সাধারণ একটি সমস্যা কিন্তু এর প্রভাব অনেক বেশী। সাধারন শুষ্ক আবহাওয়া, ত্বকে মশ্চারাইজারের অভাব, পানি কম পান করা ও পুষ্টিমান খাবার কম গ্রহণ করার ফলে এই সমস্যার সৃষ্টি হয়।

আপনার সুন্দর পায়ের গোড়ালি যদি ফাটা হয় তাহলে পুরো পায়ের সুন্দরের বারোটা বেজে যায়। তাই আসুন এই সমস্যার সমাধানে করনীয় উপায় নিয়ে আপনাদের কিছু পরামর্শ দেওয়া যাক।

পা ফাটা রোধে আপনার ৫ টি করনীয়ঃ

১) (Rice Flour) চালের গুঁড়াঃ

ঘরোয়া পদ্ধতিতে পা ফাটা রোধে চালের গুঁড়া একটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। প্রথমে একমুঠো চালের গুঁড়া নিয়ে এতে কয়েক ফোঁটা মধু মিশান, ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগার(apple cider vinegar) যোগ করে সব উপাদান একসাথে নাড়তে থাকুন যতক্ষন না একটি মিহি পেস্ট এ রূপান্তরিত হয়। সব শেষে এতে কয়েক ফোঁটা অলিভ ওয়েল মিশান। এরপর এটি আপনার পায়ের গোড়ালিতে লাগান। দেখবেন  এটি আপনার পায়ের ফাটা রোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখবে।

২)  (Lemon) লেবুঃ

লেবুর অ্যাসিডিক(acidic) উপাদান পা ফাটা রোধে খুব উপকারী। সরাসরি লেবুর রস আপনার পায়ের ফাটা অংশে দিতে পারেন অথবা মৃদু গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। এতে আপনার পায়ের খড়খড়ে অংশ নরম হয়ে যাবে। তবে মনে রাখবেন কখনোই অতিরিক্ত গরম পানি ব্যবহার করবেন না এতে পা আরো রুক্ষ হয়ে পরবে।


আরো পড়ুন- ত্বকের যত্নে ব্যবহার করুন লেবু


৩) (Rosewater and Glycerin) গোলাপজল ও গ্লিসারিনঃ

গোলাপজল ও গ্লিসারিনের কম্বিলেশন আপনার পা ফাটা রোধে প্রত্যক্ষ অবদান রাখতে পারে। গ্লিসারিনের ত্বক নরমকারী উপাদান আর গোলাপজলে উপস্থিত ভিটামিন এ, বি৩, সি, ডি ও ই অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিসেপ্টিক হিসেবে কাজ করে পায়ের ফাটা দূর করে।

সম পরিমাণ এই দুই উপাদান একসাথে মিশিয়ে প্রতিদিন রাতে ঘুমুতে যাওয়ার আগে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পায়ের গোড়ালিতে ঘষুন। মাত্র কয়েক দিনের ব্যাবহারেই দেখবেন আপনার পা ফাটা কেমন মিলিয়ে যাচ্ছে।

৪) (Banana) কলাঃ

শুনতে অদ্ভুত হলেও চটকানো কলা পা ফাটা রোধে খুব সহজ ও কার্যকরী একটি উপাদান। একটি কলা মিহি করে চটকে পায়ের গোড়ালিতে লাগান, ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে পা ধুয়ে ফেলুন ও পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে পা ধুয়ে নিন। ২ কি ৩ সপ্তাহ রেগুলার এটি ব্যাবহারে আপনার পা ফাটা একদম সেরে যাবে।


আরো পড়ুন- ত্বক ও চুলের যত্নে কলার ব্যবহার


৫) (Honey) মধুঃ

মধুর মশ্চারাইজার ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান পা ফাটায় খুব দ্রুত কার্যকরী উপাদান হিসেবে কাজ করে। এক কাপ মধুর সাথে আধা কাপ গরম পানি মিশিয়ে আপনার পায়ের গোড়ালিতে ১৫ থেকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ম্যাসাজ করুন। এটি আপনার পায়ের ত্বক মসৃণ করে ফাটা তুলে দেয়। কিছুদিন এই পদ্ধতি অবলম্বন করেই দেখুন পা ফাটা কমে যাবে।


আরো পড়ুন- সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখুন মধু


ফাটা নিয়ে সব থেকে বেশী অপ্রীতিকর অবস্থায় পড়ে মেয়েরা। পা ফাটার কারনে ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও তারা তাদের পছন্দসই স্যান্ডেল বা হিল পরতে পারেন না। সুন্দর করে সাজগোজ করে প্রায় সময় দেখা যায় পায়ের গোড়ালি ঢেকে রাখায় তাদের বেশিরভাগ সময়টা কেটে যায়।

তাই আর দেরি না করে ঘরে বসে আপনার পছন্দমতো একটি পদ্ধতি ব্যবহার করেই দেখুন। কে জানে হয়তো ম্যাজিকের মতো কাজ হয়ে যেতেও পারে।


সোর্সঃ   http://www.top10homeremedies.com/home-remedies/home-remedies-for-cracked-heels.html


সম্পর্কিত পোস্ট: