যে ৫ টি কারণে আনারস বেশি করে খাবেন

_MG_9701_edited-1এসময়ের ফলগুলোর মধ্যে আনারস অন্যতম। আনারসের স্বাদটি একটু ভিন্ন ধরণের হওয়াতে অনেকেরই এটি একটি পছন্দের ফল। আর গ্রীষ্মের অন্যান্য ফলের মত আনারসেরও আছে বেশ কিছু পুষ্টিগুণ। গুণগুলো জানা থাকলে আনারস খাওয়াতে আপনি আরো আগ্রহী হয়ে উঠবেন, এতে কোন সন্দেহ নেই।

১) দাঁতের মাড়ি ভাল রেখে নিঃশ্বাস সতেজ রাখেঃ
আনারসে ভিটামিন সি ও ম্যাংগানিজ রয়েছে। যা দাঁতের মাড়ির জন্যে খুবই উপকারী। দাঁতের মাড়ির যে টিস্যুগুলো রয়েছে আনারস খাওয়ার কারণে তা ভাল থাকে। ফলে দাঁত এবং মাড়ির বিভিন্ন রোগ থেকে বেঁচে থাকা যায়, সাথে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ কমে আসে। তাই দাঁত নিয়ে যারা বেশি মাত্রায় সচেতন আনারস তাদের জন্যে অনেক উপকারী।

২) চোখের যত্নেঃ
আনারসে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন ‘এ’ এবং বিটা ক্যারোটিন। যা Macular Degeneration নামে চোখের রেটিনার একটি রোগ থেকে চোখকে রক্ষা করে। এই রোগের কারণে চোখের দৃষ্টি সীমায় নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়। আর এই রোগ প্রতিরোধে আনারস কার্যকর ভুমিকা পালন করে। তাই চোখের রেটিনা সুস্থ রাখতে আমাদের সকলেরই আনারস খাওয়া দরকার।

৩) হজমে সহায়তাঃ
আনারসে ভিটামিন বি-৬ ছাড়াও রয়েছে প্রচুর পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম। এসব কিছুই হজম শক্তি বাড়াতে দারুণ সাহায্য করে। হজমের নানা সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের জন্য আনারস বা আনারসের জুস খুবই দরকারি।

৪) কণ্ঠনালির সংক্রমণ রোধঃ
আনারসে রয়েছে Bromelain নামের একটি উপাদান। যা আমাদের কণ্ঠনালীর নানা সমস্যা থেকে রক্ষা করে। এটির দ্বারা সর্দি, কাশি, কফ ইত্যাদি সমস্যা থেকেও রেহাই পাওয়া যায়। চিকিৎসকদের মতে, কণ্ঠনালীর সমস্যায় দ্রুত উপকার পেতে আনারসের জুস খাওয়াটা অধিক কার্যকর।

৫) হাড় গঠনে ও হাড়ের নানা রোগ প্রতিরোধেঃ
আনারসের এই গুণটিই কিন্তু সবচেয়ে কার্যকরী। আনারস হাড় মজবুত করতে সাহায্য করে। এর কারণ আনারসে থাকা ম্যাংগানিজ। যা হাড় গঠনে দরকারি। আমাদের শরীরে যতটুকু ম্যাংগানিজ দরকার এক কাপ আনারসে তার ৭৩% পাওয়া যায়। হাড় মজবুত করার পাশাপাশি এটি আর্থ্রাইটিস গেঁটে বাত, কব্জির হাড়ের নানা রোগ উপশমে সাহায্য করে।

সব গুণ তো জানলেন। এইবার আরাম করে বসে আনারস খাওয়ার পালা।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।