দুঃখময় অতীতকে ভুলে জীবনে স্বাগত জানান ইতিবাচকতাকে

When You Start To Let Go Of The Past, These Things Will Happenঅতীত আঁকড়ে পড়ে থাকা বা অতীতের সাথে নিত্য বসবাস করা ভীষণ ক্ষতিকর অভ্যাসগুলোর একটি। জীবনে একটি দুঃখজনক ঘটনা ঘটতেই পারে তার জন্য সেই ঘটনার গ্লানি আপনি কেন শুধু শুধু আজীবন নিজের সাথে বয়ে নিয়ে বেড়াবেন। অতীত ভুলে বর্তমান ও আগামীর দিনগুলো সুন্দর করে সাজানোর স্বাধীনতা সবার আছে। তাহলে কেন আমরা অতীতকে পেছনে ফেলে আগে বাড়বোনা?

একটা কথা ভুললে চলবে না, অতীতের আত্মগ্লানি যেমন আমাদের মানসিক দিকের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে ঠিক একইভাবে অতীতকে উপেক্ষা করতে পারলে তা আমাদের জীবনের প্রতিটা ক্ষেত্রে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।

এই লেখার মাধ্যমে দেখতে পারবেন অতীত ভুলে গেলে যে যে ইতিবাচক ঘটনাগুলো আপনার সাথে ঘটবে।

আপনি কম উদ্বেগবোধ করবেন (you’ll feel less anxiety)

অতীতের যে প্রভাব আপনার জীবনে সবচেয়ে বেশি পড়ে সেটি হল আপনি যেকোন ব্যাপারে অতি উদ্বেগবোধ করতে থাকেন। আর ঠিক সেকারণেই আপনি যখন অতীত ভুলে যেতে থাকবেন আপনার সাথে ঘটে যাওয়া সব থেকে ইতিবাচক দিকটি হবে আপনি সব বিষয়ে কম উদ্বেগ অনুভব করবেন। আপনার জীবন যাপন অনেক বেশি সহজ আর সতেজ হয়ে উঠবে। আপনি নিজেকে খুব হালকা মনে করতে পারবেন।

আপনি যেকোন সিদ্ধান্ত সহজে নিতে পারবেন (you’ll make decisions more easily)

যখনই আপনি নিজেকে অতীতের বন্ধন থেকে মুক্ত করতে যাবেন আপনার সাথে আরও একটি ইতিবাচক ঘটনা ঘটবে, আপনি আপনার জীবনের যেকোন সিদ্ধান্ত অতীতের পরোয়া না করে আপনার বর্তমান ও ভবিষ্যৎ এর জন্য চিন্তা করে নিতে পারবেন। যেখানে অতীতের পিছুটান আপনাকে ক্লান্ত আর পরিশ্রান্ত করবে সেখানে অতীত ভুলে গেলে আপনি নিজেকে আরও বেশি প্রাণবন্ত অনুভব করবেন।

আপনি আপনার ভবিষ্যৎ এর উপর মনোযোগ দিতে পারবেন(you can focus on the future)

এটা সত্যি যে অতীত নিয়ে সামান্য চিন্তা ভাবনা দোষের কিছু নয়। কিন্তু আপনি যদি আপনার জীবনের সমস্ত কিছু অতীত দিয়ে বিচার করতে যান তাহলে সেটা শুধু দোষেরই নয় বরং আপনার ভবিষ্যতের জন্য হানিকারক। তাই যখনই আপনি আপনার অতীত ভুলতে যাবেন আপনি আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় আরও বেশি মনোযোগ স্থাপন করতে পারবেন।

আপনি আরও ক্ষমাশীল হতে পারবেন (you’ll be more forgiving)

সেই মানুষই ক্ষমাশীল মানসিকতার হতে পারে যে অতীত ভুলে বর্তমানকে আঁকড়ে ধরতে পারে। কারও প্রতি অতীতের রাগ, ঘৃণা বা অভিমান পুষে রাখা মোটেও ভালো কথা না। তাই আপনি যদি অতীত ভুলে যেতে থাকেন তাহলে আপনা আপনি ই আপনার মনে মানুষের প্রতি ক্ষমাশীল মানসিকতার সৃষ্টি হবে।

আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতি হবে (your health will improve)

যখনই আপনি মানসিক অবসাদ, উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তার মধ্য দিয়ে যাবেন আপনার শরীরে আপনাআপনি এমন সব হরমোনের জন্ম হবে যা আপনার শরীরের উপর খারাপ প্রভাব ফেলবে। আর অতীত এমন একটি জিনিস যা আপনার সব রকম মানসিক সুখ শান্তি কেড়ে নেয়। তাই আপনি অতীত ভুলতে চাইলে আপনার স্বাস্থ্যর উন্নতি হবেই। এক্ষেত্রে একটা কথায় বলা যায় তা হল অতীত ভুললে যদি আপনি শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ ও সবল থাকতে পারেন তাহলে কেন অতীত আঁকড়ে পরে থাকবেন।

যারা অতীত আঁকড়ে বাঁচতে চায় তারা জীবনে চলার পথে বার বার ঠোকর খায়, আর এর কারণ সরূপ এরা হয় ভাগ্যকে দায়ী করে আর নতুবা অন্যদের দোষারোপ করে। সেকারণেই আমাদের সুন্দর ও সাবলীল জীবন রচনা করতে অতীত অতীতেই ফেলে এসে আগে চলতে হবে। কারণ জীবনের আরেক নাম গতিময়তা, স্থবিরতা নয়।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।