ঝলমলে চুল পেতে খান ৫ টি স্বাস্থ্যকর খাবার

straight-hair
ছবি কৃতজ্ঞতা তানভীর হোসেন
আমেরিকার বিখ্যাত পুষ্টিবিদ Lisa Drayer এর মতে, “শরীরের অন্যান্য সব অঙ্গের মত আপনার চুলও আপনার খাদ্যাভ্যাসের উপর নির্ভরশীল।”
শুধুমাত্র ভাল ব্র্যান্ডের শ্যাম্পু আর তেল লাগালেই চুল ভাল থাকবে এই ধারণা ঠিক নয়। এমন কিছু খাবার আছে যা আপনার চুলকে মাত্র দু সপ্তাহের মধ্যেই দেবে চমক।

১) নিয়মিত বাদাম খান (nuts)

বাদাম সস্তা ও সহজলভ্য একটি খাবার। বাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘ই।’ আর ভিটামিন ‘ই’ কে চুলের জন্যে সবচেয়ে উপকারী ভিটামিন হিসেবে ধরে নেয়া হয়। কারণ এটা চুল পড়া (hair fall) রোধ করে। তাই নিয়মিত বাদাম খান।

২) খাদ্য তালিকায় যোগ করুন মিষ্টি আলু (sweet potato)

মিষ্টি আলু ভিটামিন এ’র অন্যতম উৎস। ভিটামিন এ আমাদের মাথার ত্বকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করে। যার কারণে মাথার ত্বক চুলকানি, খুশকি (dandruff) সহ নানা সমস্যা থেকে বেঁচে থাকে।

৩) প্রতিদিন একটি ডিম খান (an egg everyday)

চুলের যত্নে যে ৪ টি পুষ্টি উপাদান (জিংক, সেলেনিয়াম, সালফার, আয়রন) খুবই দরকারি, ডিমে তার সবই আছে পূর্ণ মাত্রায়। বিশেষত মহিলাদের চুল পড়ার জন্যে আয়রনের অভাব অন্যতম। ডিম এ অভাব পূরণ করে। তবে ডায়াবেটিস ও হার্টের রোগীরা ডিমের কুসুম এড়িয়ে চলবেন।

৪) ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড গ্রহণ করুন (omega-3 fatty acid)

চুলের বিভিন্ন জটিল রোগ প্রতিরোধে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড অসাধারণ ভূমিকা রাখে। মাথার ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার মূল কারণ হিসেবে ধরে নেয়া হয় ত্বকের শুষ্কতা। আর তা রোধে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড কার্যকর ভূমিকা পালন করে। তাই চুলের স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার যেমন সামুদ্রিক মাছ খান নিয়মিত।

৫) পর্যাপ্ত পানি পান করুন (water)

আমরা জানি আপনি এই পরামর্শটি শুনতে শুনতে বিরক্ত। তবে আপনি যদি চিন্তা করেন এই ৫টি খাবার থেকে শুধু একটি খাবার বেছে নিবেন তবে আমরা আপনাকে পানিই বেছে নিতে বলবো। পানি শরীরের সমস্ত বর্জ্য পদার্থ বের করে দিয়ে ত্বক পরিষ্কার রাখে। তাই নিয়মিত ৮-১০ গ্লাস পানি পান করুন।

প্রতিদিন বাড়ছে দূষণ আর ভেজাল খাদ্য (adulterated food)। আর ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আমাদের চুল, ত্বক। এই অবস্থায় সহজেই চুল উজ্জ্বল ও সুন্দর রাখতে আপনাকে উপরের পাঁচটি খাদ্য নিয়মিত খেতেই হবে। সুন্দর থাকুক আপনার চুল।

আরো পড়ুনঃ

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাস রিচিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্যকরা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসারজন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি।পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।