ত্বকের যত্নে ব্যবহার করুন গ্রিন টি

Girl drinking teaদীর্ঘ যুগ আগে থেকেই ত্বকের যত্নে গ্রিন টি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। নিয়মিত গ্রিন টি পান ত্বকের এমন অনেক উপকার করে থাকে যা ত্বকের যত্নে ব্যবহৃত বিভিন্ন কৃত্রিম উপাদান থেকে পাওয়াটা অনেক ক্ষেত্রেই কঠিন। জেনে নিন গ্রিন টি কিভাবে আপনার ত্বকের উপকার করে থাকে।

১.সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করতে পারে গ্রিন টি। আপনার সানস্ক্রিনের সাথে গ্রিন টি এর মিশ্রণ একে আরও শক্তিশালী আর কার্যকর করে তোলে। তবে লক্ষ্য রাখতে হবে সানস্ক্রিন যেন জিঙ্ক অক্সাইড বেইজড হয়। কারণ জিঙ্ক অক্সাইড এর সাথে গ্রিন টি এর মিশ্রণ ত্বকে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে না।

২. বয়স বাড়ার সাথে সাথে ত্বক কুঁচকে যায়। গ্রিন টি ত্বকের এই কুঁচকে যাওয়া ভাব দূর করে সতেজতা এনে দিতে পারে। রাতে ঘুমানোর আগে গ্রিন টি এর মিশ্রণ মুখে নিয়মিত লাগালে উপকার পাওয়া যায়।

৩. চা বানানোর পর টি ব্যাগটি ফেলে দেন সবাই। কিন্তু গ্রিন টি এর ব্যাগ ফেলে না দিয়ে ঠান্ডা করে চোখের চারপাশে লাগান। এতে থাকা ক্যাফেইন চোখের নিচের কালো দাগ এবং চোখের ফোলা ভাব দূর করে।

৪. শেভ করার পর আফটার শেভ লোশন এর পরিবর্তে গ্রিন টি ব্যবহার করা যায়। অধিকাংশ আফটার শেভ লোশন এ থাকে এলকোহল যা ত্বককে কুঁচকে ফেলে। গ্রিন টি তে থাকা Tannins শেভ করার পর ত্বকের জ্বলা পোড়া ভাব দ্রুত দূর করে।

৫. চুলে বিভিন্ন হেয়ার কালার এর পরিবর্তে গ্রিন টি এর ব্যবহার চুলকে আরও উজ্জ্বল করে তোলে। অনেকের মাথার ত্বক কৃত্রিম হেয়ার কালারের সাথে মানিয়ে নিতে পারে না, ফলে জ্বালা পোড়া বা এলার্জির সৃষ্টি হয়। গ্রিন টি এর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই, তাই এটি বিভিন্ন হেয়ার ডাই এর চমৎকার বিকল্প হিসেবে কাজ করতে পারে।

৬. মশা সহ আরও অনেক রকম পোকার কামড় সহ্য করতে হয় আমাদের। এসব কামড় থেকে সংক্রমণ এবং বিভিন্ন রোগ ছড়িয়ে পড়তে পারে। শরীরের যে স্থানে পোকা কামড়েছে সেখানে গ্রিন টি এর প্রলেপ তাৎক্ষণিক স্বস্তি এনে দেয়, এবং সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।