শীতে যত্ন নিন আপনার হাত পায়ের নখের

nail careশীতের এই শুষ্ক আবহাওয়া কেবল শুধু আমাদের ত্বকের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে তাই নয় বরং এই আবহাওয়া আমাদের হাত ও পায়ের নখের উপর যথেষ্ট খারাপ প্রভাব ফেলে। যার ফলাফল ভেঙ্গে যাওয়া খড়খড়ে নখ। আপনার সুন্দর আর যত্নে বড় করে তোলা নখগুলো যখন একটা একটা করে ভেঙ্গে নষ্ট হয়ে যায় তখন মনের অবস্থা কি হয় সেটা যার হয় সেই বোঝে। আর সেকারণেই প্রতিটা নারী শীতে তাদের নখের এহেন দশা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায় খুঁজতে থাকেন।

আজ বলবো কি করে শীতের এই শুষ্ক আবহাওয়ায় আপনার হাত পায়ের নখের যত্ন করবেন।

  • যতোটা পারেন পানি পান করুন। শীতের এই ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় আমরা পানি পান  করার পরিমাণটা হুট করেই অনেকখানি কমিয়ে দিই। যার ফলাফল পড়তে পারে আপনার শরীরে। শীতে আপনার হাত পায়ের নখ নষ্ট হয়ে যাওয়ার এটিও একটি অন্যতম কারণ। তাই শীতে হাত পায়ের নখের যত্ন নিতে দিনে কমপক্ষে ৭ থেকে ৮ গ্লাস পানি পান করুন।
  • গোসল করতে যাওয়ার আগে আঙ্গুলে সামান্য পরিমাণ ভ্যাসেলিন অথবা লিপ বাম নিয়ে হাতের ও পায়ের নখে ম্যাসাজ করুন। এতে নখের শুষ্কভাব দূর হওয়ার সাথে সাথে নখ সুন্দর ও কর্কশভাব মুক্ত থাকবে।
  • শীতের শুষ্ক আবহাওয়াতে এমনিতেই আপনার নখ তার প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা হারায়। আর আপনি যখন ময়লা থালাবাসন ডিশ ওয়াস বার দিয়ে পরিষ্কার করেন তখন নখের আরও বেশি ক্ষতিসাধন হয়। তাই শীতে নখের যত্নে ময়লা থালাবাসন পরিষ্কার করার সময় হাতে গ্লাভস পরে নিতে ভুলবেন না।
  • শীতে আপনার নখ সুস্থ আর সুন্দর রাখতে গাজরের জুস পান করতে পারেন। গাজরের জুসের ভিটামিন ও মিনারেল উপাদান নখের সুস্থতা বজায় রাখবে। আর সাথে সাথেই প্রচুর পরিমাণ সবুজ শাকসবজি খেতে ভুলবেন না।
  • শীতের বৈরি আবহাওয়ায় হাতের নখ যেমন খুব দ্রুত গতিতে বড় হয় ঠিক একইভাবে হাত পায়ের নখ খুব সহজেই ভেঙ্গে যায়। তাই সবচেয়ে ভালো হয় যদি আপনি আপনার হাতের নখ কেটে সামান্য ছোট করে রখেন।
  • হাত পায়ের ত্বকের সাথে সাথে নখগুলো সুন্দর আর সুস্থ রাখতে নিয়মিত মেনিকিউর ও পেডিকিউর করুন। হতে পারে সেটা বাড়িতেই কিংবা পার্লারে।

আরো পড়ুন
হাতের নখের হলদে ভাব দূর করুন বেকিং সোডা ও লেবু দিয়ে

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।