দাঁত পরিষ্কার করার “ভুল পদ্ধতি” যখন আপনার দাঁতের ক্ষতির কারণ

clean teethআমাদের সবারই সকাল শুরু হয় দাঁত পরিষ্কার (cleaning teeth) করা দিয়ে। দাঁত ব্রাশ করা ছাড়া যেন আমাদের সুন্দর সকালের শুরুই হয়না। কিন্তু তাড়াহুড়ো করে এই অতিপ্রয়োজনীয় কাজটি করতে গিয়ে আমরা প্রায়ই করে ফেলি ছোটখাটো কিছু ভুল কাজ যা অবশ্যই আমাদের এড়িয়ে চলা উচিত। আসুন জেনে নেওয়া যাক দাঁত পরিষ্কারের সময় আমরা এড়িয়ে চলবো যে ভুলগুলো।

১) দ্রুত দাঁত পরিষ্কার করা (speed-cleaning)

দাঁত পরিষ্কার করতে গিয়ে আমাদের ব্যস্ততা যেন হাজারগুণ বেড়ে যায়। কোনরকম এদিক সেদিক ব্রাশ দিয়ে দুটি টান মেরেই আমরা দাঁত পরিষ্কারের পর্ব শেষ করে ফেলি। যেটা একদমই ঠিক নয়। কমপক্ষে দুই মিনিট সময় আপনার দাঁত পরিষ্কার করতে নেয়া উচিত। এমন অনেক জীবাণু দাঁতে থাকে যা থেকে মুক্তি পেতে আপনাকে একটু সময় নিয়ে দাঁত পরিষ্কার করতেই হবে।

২) খুব বেশী চাপ দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করা (brushing too hard)

তবে সাবধান থাকুন। খুব বেশী চাপ বা জোরে দাঁত ব্রাশ করবেন না। এটি আপনার মাড়িতে আঘাত করার সাথে সাথে দাঁতের অনেক ক্ষতি করে থাকে। স্বাভাবিক একটি চাপে আপনার দাঁত পরিষ্কার করুন যাতে আপনার মুখে বা দাঁতে কোন প্রকার চাপ না পড়ে। এতে করে সঠিক উপায়ে দাঁত পরিষ্কার করার সাথে আপনার দাঁত ও ভালো থাকে।

৩) এলোপাথাড়ি ডানে বামে ও উপর নীচে ব্রাশ করা (brushing up and down, and side to side)

টিভিতে কোন পেস্ট বা ব্রাশের অ্যাড দেখে সেই অনুযায়ী বা কোন কার্টুনের অনুকরণ করে আপনার মূল্যবান দাঁতের উপর পরীক্ষা চালাবেন না। ইচ্ছেমত ডান বাম উপর নীচ ঘষে ঘষে দাঁত ব্রাশ করবেন না। বরং যত্ন নিয়ে স্বাভাবিকভাবে দাঁত পরিষ্কার করুন।

৪) দুই দাঁতের মাঝের ফাঁকা অংশ পরিষ্কার না করা (missing the bits between your teeth)

এদিক সেদিক ব্রাশ ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খালি মুখ ধুয়ে ফেললেই হবে না। খেয়াল রাখুন যাতে দাঁত পরিষ্কার করার সময় আপনার দাঁতগুলোর মধ্যবর্তী শিরা গুলো বাদ না পড়ে যায়। এতে করে আপনার দাঁতের শিরায় কালো দাগ সৃষ্টি হতে পারে।

৫) ফ্লোরাইডবিহীন টুথপেস্ট ব্যবহার করা (using fluoride-free toothpaste )

দাঁত পরিষ্কার করার জন্য পেস্ট কেনার সময় খেয়াল রাখুন সেটা যেন ফ্লোরাইড ফ্রি টুথপেস্ট না হয়। ফ্লোরাইড দাঁতের এনামেল ও জীবাণু থেকে রক্ষার জন্য খুব প্রয়োজনীয় উপাদান। তাই টুথপেস্ট কেনার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন এটা যেন ফ্লোরাইড সমৃদ্ধ হয়।

৬) ভুলভাল ব্রাশ ব্যবহার করা (choosing the wrong brush)

আপনার দাঁতের ধরণ ও আপনার মুখের আকার অনুযায়ী ব্রাশ কিনুন। কেউ কেউ আছে নিজের মুখের আকারের থেকে বড় ব্রাশ কিনে ফেলেন যা দিয়ে সুষ্ঠু ভাবে দাঁত ব্রাশ করাতো দূর ঠিকভাবে ধরাই যায় না। তাই ব্রাশ বাছাইয়েও সচেতন হোন।
আমাদের শারীরিক অঙ্গগুলোর মধ্যে দাঁত (teeth) অন্যতম। তাই এই অংশটির যত্ন ও পরিচর্যায় আমাদের সচেতন হওয়াটা জরুরী।

আরো পড়ুন

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।