প্রাকৃতিক উপায়ে সহজে যেভাবে বাড়িয়ে নিবেন এস্ট্রোজেন হরমোন

girl_jogging_photoএস্ট্রোজেন(estrogen) একটি হরমোন মূলত যা নারীদের দেহে থাকে। ক্লান্তি, অনিয়মিত পিরিয়ড, শারীরিক সম্পর্কে অনীহা, মাথাব্যথা, হতাশা, ইনসমনিয়া এই সমস্যাগুলো দীর্ঘদিন ধরে থেকে থাকলে আপনার অবশ্যই এস্ট্রজেন হরমোনের মাত্রা পরীক্ষা করিয়ে নেয়া উচিত। এটি সঠিক মাত্রায় রাখা খুবই দরকারি, বিশেষত নারীদের জন্যে। তাই আসুন জেনে নিই এস্ট্রজেন হরমোন সঠিক মাত্রায় রাখতে কি কি করতে হবে।

১) উচ্চমাত্রায় চিনি,কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন (avoid sugar and carbohydrate rich food):

আপনি চা-কফিতে যদি অতিরিক্ত চিনি ব্যবহার করে থাকেন তবে তা কমিয়ে ফেলুন আজই। এছাড়া কার্বোহাইড্রেট যুক্ত (ভাত, আলু, আটা, পটেটো চিপস) খাবার বেশি খাওয়া যাবে না। এগুলো শরীরের এস্ট্রোজেন এর মাত্রা কমিয়ে ফেলে।

২) উচ্চ ফাইবারযুক্ত খাবার বেছে নিন (choose fiber-rich food):

সহজে এস্ট্রোজেন হরমোন বাড়ানোর একটি সহজ উপায় হল কম চর্বিযুক্ত এবং উচ্চ ফাইবার যুক্ত খাবার বেছে নেওয়া। যেমনঃ বাদাম, শিম, তাজা শাকসবজি, ফল। তাই এই খাবারগুলো অধিক পরিমাণে খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৩) অধিক ব্যায়াম করবেন না (do not exercise excessively):

শরীরচর্চা অবশ্যই শরীরের জন্যে উপকারী। তবে অধিক মাত্রায় এবং কঠিন ব্যায়ামগুলো এড়িয়ে চলুন। কেননা অধিক পরিশ্রম এস্ট্রোজেন হরমোন এর মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে। গবেষণা বলছে, Athlete দের মধ্যে প্রায় এস্ট্রোজেন হরমোনের মাত্রা কম দেখা যায়।

৪) ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড গ্রহণ করুন (take omega-3 fatty acid):

এ হরমোন শুধু এস্ট্রোজেন হরমোন নিয়ন্ত্রনে রাখে না ‘ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড’ ক্যান্সার, স্ট্রোক, ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমিয়ে থাকে। সামুদ্রিক মাছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায়, এছাড়া ডাক্তারের পরামর্শে ওমেগা-৩ সাপ্লিমেন্টও গ্রহণ করতে পারেন।

৫) ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার খান (take adequate amount of vitamin-C):

বিশেষত মহিলারা এস্ট্রোজেন হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধির জন্যে ভিটামিন সি যুক্ত খাবার গ্রহণ করতে পারেন। প্রতিদিন ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফলগুলো (আমলকী, কমলা, পেয়ারা) আপনার খাবার তালিকায় রাখুন।

৬) ক্যারোটিন ও ভিটামিন বি যুক্ত খাবার বেছে নিন (eat carotene and vitamin-B rich food):

যেসব খাবারে প্রচুর ক্যারোটিন আছে যেমন গাজর, কুমড়া এইসব খাবার এস্ট্রজেন হরমোন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এছাড়া ভিটামিন-বি সমৃদ্ধ খাবারগুলো গ্রহণ করুন, কেননা বিশেষজ্ঞদের মতে এইসব খাবার খুব দ্রুত এস্ট্রোজেন হরমোন বৃদ্ধি করার ক্ষমতা রাখে।

৭) ডাক্তারের পরামর্শে সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারেন (take prescribed suppliments):

এছাড়া আপনার এস্ট্রোজেন হরমোনের মাত্রা যদি খুব কম পর্যায়ে থাকে তবে বিভিন্ন ধরণের নিরাপদ সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিন।

তবে খেয়াল রাখতে হবে এস্ট্রজেন হরমোনের মাত্রা যেন স্বাভাবিক পর্যায়ে থাকে। খুব কম মাত্রা এবং খুব বেশি মাত্রা দুটিই শরীরের জন্যে ক্ষতিকর। তাই এস্ট্রজেন হরমোন বৃদ্ধি করে এই খাবারগুলো সতর্কতার সাথে গ্রহণ করতে হবে।

আরো পড়ুন
প্রাকৃতিক উপায়ে শরীরের অতি গুরুত্বপূর্ণ হরমোন টেস্টোসটেরন বাড়াবেন যেভাবে

পরামর্শ.কম এর স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকেরব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরিচিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্যকরা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসারজন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি।পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।