যেভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে খুঁজে নিতে পারেন স্বপ্নের চাকরি

Facebook-Job-App-And-Small-Businessesবর্তমান বিশ্বে তীব্র প্রতিযোগিতার মাঝে নিজের কাঙ্খিত চাকরি পাওয়ার মতো কঠিন কাজ আর কিছু নেই। এটা সবার জন্যই প্রযোজ্য। একজন কর্মহীন ব্যক্তি যেমন খুঁজছেন চাকরি, আবার একজন কর্মজীবী ব্যক্তিও খুঁজছেন আরো ভালো কোন কাজের সুযোগ। কিন্তু কাঙ্খিত চাকরিটি পেতে যে ধৈর্য ও অধ্যাবসায়ের দরকার তা অনেকের কাছেই মনে হতে পারে বেশ সময় সাপেক্ষ ও পীড়াদায়ক। আর এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আপনার জন্য বেশ সহায়ক ও শক্তিশালী উপায় হতে পারে ফেসবুক, টুইটার বা লিঙ্কডইন এর মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো। ভাবছেন কিভাবে? চলুন জানা যাক।

(১) লিঙ্কডইন এর গ্রুপগুলোর সাথে যুক্ত হোন
লিঙ্কডইন মূলত ব্যবসায়িক ও পেশাগত কাজে বিভিন্ন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য নির্মিত সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট। যাই হোক, লিঙ্কডইন-এ আপনি সর্বোচ্চ ৫০ টি গ্রুপের সাথে যুক্ত হতে পারবেন। এর মাধ্যমে উপভোগ করতে পারবেন চাকরি সংক্রান্ত নানা সুবিধা। এসব গ্রুপ কিভাবে আপনাকে সাহায্য করবে?

যখনোই আপনি এসব গ্রুপে যুক্ত হবেন, সাথে সাথে আপনি আপনার কাঙ্খিত কর্মক্ষেত্রের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের সাথে যুক্ত হতে পারবেন, তারা কি ধরণের কাজ করছেন সেটা জানতে পারবেন। এছাড়া আপনি যে চাকরিটি খুঁজছেন সেটার জন্য আপনার কি কি যোগ্যতা লাগবে সেটা সম্পর্কে ধারণা তো পাবেনই, চাইলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে সরাসরি মেসেজ আদান-প্রদানের মাধ্যমে যোগাযোগ স্থাপন করতে পারবেন।

চাকরি প্রত্যাশীরা লিঙ্কডইন এর এ গ্রুপগুলোর সাথে যুক্ত হতে পারেন Linked:HR (#1 Human Resources Group), The Recruiter Network।

(২) টুইটারে চ্যাট করুন অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের সাথে
বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ফেসবুকের তুলনায় টুইটার ব্যবহারকারীর সংখ্যা কম। এই টুইটার হতে পারে আপনার চাকরি পাবার উপায়। টুইটার চ্যাটের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই চাকরিদাতা, সিভি লেখক এমনকি অন্যান্য চাকরি প্রার্থীদের কাছ থেকেও পরামর্শ পেতে পারেন।

টুইটারে রয়েছে বেশ কিছু ফ্রি চ্যাটের সুযোগ, যেমন #JobHuntChat , #HFChat ও #TChat। এগুলো আপনি আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন থেকে খুব সহজেই অনুসরণ বা ফলো করতে পারবেন। এগুলোর মাধ্যমে আপনি মানবসম্পদ বিভাগের সাথে জড়িত ব্যক্তি, নিয়োগদাতাসহ বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে চাকরি সংক্রান্ত পরামর্শ পেতে পারেন।

(৩) ফেসবুক ক্যারিয়ার পেইজ
বাংলাদেশে ফেইসবুক ব্যবহারকারী দিন দিন বেড়ে চলেছে। কিন্তু আমাদের অধিকাংশ ব্যবহারকারী দিনের একটি বড় সময় কোন অর্থবহ কাজ না করে ফেসবুকে কাটিয়ে দেন। অথচ একটু সচেতন হলেই ফেসবুক থেকেই আপনি পেয়ে যেতে পারেন আপনার কাঙ্খিত চাকরি।

অনেক নামিদামি ব্র্যান্ডের নিজস্ব ফ্যান পেইজ রয়েছে যেগুলো খুব সক্রিয়। আপনি ফেসবুকে সার্চ অপশনের মাধ্যমে খুঁজে পেতে পারেন এসব পেইজ। শুধু চাকরি খোঁজা নয়, এসব ব্র্যান্ড কিভাবে কাজ করে সেটা সম্পর্কেও ধারণা পাবেন আপনি।

(৪) ব্লগ লিখুন কিংবা তৈরি করুন ব্যক্তিগত ব্লগসাইট
ব্লগ বা ব্লগ সাইটের বিষয়ে অনেকের নেতিবাচক ধারণা রয়েছে। কিন্তু আপনার যদি নিজের কথাগুলোকে সুন্দর ও আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপনের ক্ষমতা থাকে, নিজের সৃজনশীলতা ও দক্ষতার কথা ছড়িয়ে দেয়ার জন্য ব্লগের চেয়ে ভালো কোন মাধ্যম হতে পারে না। এজন্য নিজেই তৈরি করে নিতে পারেন ব্যক্তিগত ব্লগসাইট কিংবা লিখতে পারেন অন্যান্য ব্লগ সাইটে। আপনি যেক্ষেত্রে ক্যারিয়ার গড়তে চান সে সংক্রান্ত ব্লগ সাইটে অতিথি লেখক হিসেবে নিজের মতামত অন্যদের সাথে আদান-প্রদান করুন। এভাবে আপনি অনেকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হবেন।

(৫) সক্রিয় হোন ফেসবুক, টুইটার ও লিঙ্কডইনে
কাঙ্খিত ক্যারিয়ার গড়ে তোলার জন্য এ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে নিজের একটি ভালো ও গোছানো প্রোফাইল হতে পারে বেশ কার্যকর একটি উপায়। এর মাধ্যমে আপনি যে ক্ষেত্রটিতে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী সেটার সাথে জড়িত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সাথে নিজের যোগাযোগ বাড়াতে সক্ষম হবেন। জরুরি মূহূর্তে ফেসবুক বা টুইটার আপনাকে বেশ ভালো সহযোগিতা করতে পারে, যেটা হয়তো অন্য কোনভাবে সম্ভব নয়।

তাই ফেসবুক বা টুইটারে বসে শুধু অলস সময় কাটানোর দিন শেষ। হয়ে উঠুন ক্যারিয়ার সচেতন, খুঁজে নিন ফেসবুক বা টুইটারের মাধ্যমে আপনার স্বপ্নের চাকরি।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।