কোমরে ব্যথা নিরাময়ে পরামর্শ

How to Heal Waist Painকোমরে ব্যাথা একটি সাধারণ সমস্যা। অফিস কর্মচারী, চাকরিজীবী, গৃহিণী, যারা চেয়ার টেবিলে দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ করেন, চল্লিশ ঊর্ধ্ব বয়স্করা এই সমস্যাটিতে স্বল্প বা দীর্ঘ সময় ধরে ভুগেন। চিকিৎসার পাশাপাশি আপনার জীবনযাপনের কিছু বৈশিষ্ট্য পরিবর্তন কিংবা পরিমার্জন আবশ্যক। এগুলো আপনার কোমর ব্যাথা নিরাময়ে সহায়তা করতে পারে। চলুন তাহলে জেনে নিই-
pain-1

  • ওজন নিয়ন্ত্রণ- শারীরিক ফিটনেস যে কোন বয়সের জন্যই একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আর কোমরে ব্যাথা নিরাময়ের ক্ষেত্রে এটা অনস্বীকার্য। অতিরিক্ত ওজন বা মেদ ভুঁড়ি আপনার মেরুদণ্ডের নিচের দিকে চাপ সৃষ্টি করে এবং যার ফলে ব্যাথা অনুভূত হয়। স্বাস্থ্যকর ফল, শাকসবজি ও পরিমিত খাবার দাবার আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করতে পারে এবং আপনার কোমরকে শক্তিশালী রাখবে।
  • ব্যায়াম ও অনুশীলন- আপনার মাংসপেশিকে শক্তিশালী রাখতে হবে। মাংসপেশি দুর্বল হবার কারনেও কোমরে ব্যাথা হতে পারে। ভুল উপায়ে ভার উত্তোলন এবং অবিরাম কঠোর পরিশ্রমের কারণে আপনার পিঠ থেকে কোমর পর্যন্ত মাংসপেশিতে চাপ পড়ে যার ফলে ব্যাথা অনুভূত হয়। তাছাড়া বয়সের সাথে সাথে কিংবা একনাগাড়ে পরিশ্রমের ফলে মেরুদণ্ডের হাড়ের অবক্ষয় ঘটে। পর্যাপ্ত পরিমাণে শারীরিক ব্যায়াম, অনুশীলন আপনার মেরুদণ্ডকে যথার্থ সাপোর্ট দিতে পারে যা থেকে আপনি ব্যথা নিরাময় করতে পারেন।
  • যথাযথ শারীরিক অবস্থান- আপনার স্বাভাবিক শারীরিক অঙ্গভঙ্গির দিকে মনোযোগ দিন। দাড়িয়ে, বসা কিংবা শোয়া অবস্থায় শারীরিক ভঙ্গি সঠিকভাবে করুন। খারাপ কিংবা অস্বাভাবিক অবস্থায় দাড়িয়ে, বসে কাজ করলে কিংবা শুয়ে থাকলে ব্যথা বেশি অনুভূত হয়। আদর্শ শারীরিক অবস্থান হচ্ছে সোজা দাঁড়িয়ে থাকা, দুইপাশে হাত রাখা, কাঁধ সোজা রাখা, চক্ষুদ্বয় সামনের দিকে রাখা, হাঁটু ও পায়ের জয়েন্ট একে অপরের সাথে ভর করে থাকা যাতে করে আপনি স্বাভাবিক ও ব্যথামুক্ত থাকতে পারেন। আপনি যখন চেয়ারে বা টেবিলে বসে কর্মস্থলে কাজ করেন তখন আসবাবপত্র ও কর্ম পরিবেশ আপনার স্বাস্থ্য উপযোগী করে তৈরি করতে পারেন।
    pain-2
  • ভার উত্তোলন করা ও নামানো- জিনিসপত্র নিচ থেকে উপরে তোলার ক্ষেত্রে যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করুন। আপনি কোন জিনিস নিচ থেকে উপরে উঠানোর সময় কোমর ভেঙ্গে বা ভাঁজ করে উঠাবেন না। এক্ষেত্রে আপনি হাঁটু ভাঁজ করে নিচে বসবেন বা বস্তুটির কাছে যাবেন, তারপর হাঁটু সোজা করে জিনিসটিকে উপরে উঠাবেন। এক্ষেত্রে আপনার কোমরের উপরে চাপ পড়বে না। একইভাবে জিনিস নিচে নামানোর ক্ষেত্রেও হাঁটু ভাঁজ করে রাখবেন। গৃহিণী বা অন্য কেও এ পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। তবে যাদের নিয়মিত ভার উত্তোলনের কাজ করতে হয় তারা কোমরে একটি ব্রেস পরে নিতে পারেন অথবা ভার উত্তোলনের ক্ষেত্রে অন্য কোন প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারেন।

এছাড়াও শক্ত বিছানার ব্যবহার, ইয়গা অনুশীলন, প্যান্টের পিছনের পকেটে মানিব্যাগ ভারী করে না রেখে আপনি কোমর ব্যথার সমস্যা থেকে নিরাময় পেতে পারেন।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।