একটি নতুন কাজের আইডিয়াকে রূপ দিন বাস্তবে

ideaআমরা মানুষ আর মানুষ হিসেবে আমাদের মস্তিষ্কে প্রতিনিয়ত জন্ম নেয় শত শত ভাল মন্দ আইডিয়া (idea)। কখনো সৃজনশীল, কখনো ব্যক্তিগত, কখনো পারিবারিক, কখনো ব্যবসায়িক, কখনো ব্যক্তিগত, কখনো পারিপার্শ্বিক এরকম শত শত আইডিয়া আসে। মন্দগুলো ও অপ্রয়োজনীয় আইডিয়া পরিহার করে আমরা ভালগুলোকে বেছে নিই। কিন্তু সব আইডিয়া কি ভালভাবে প্রয়োগ করতে পারি শেষ পর্যন্ত?

অনেক ভাল ভাল আইডিয়াও সময়,অর্থ আর সুযোগের অভাবে কালস্রোতে স্মৃতিপট থেকে হারিয়ে যায় যা হয়ত বাস্তবায়ন করলে জীবনের মোড় ঘুরে যেত। এমন অনেক আইডিয়াও ছিল যা কখনো সহজে সবার মাথায় আসে না, এমন কিছু আইডিয়াও ছিল যা প্রয়োগ করলে হয়ত আপনি আরও অনেক দূর এগিয়ে যেতেন। কিন্তু কেন সেই আইডিয়া আপনার কাছে থাকল না, কেন প্রয়োগ হলো না? এসবের সমাধান মিলতে পারে নিচের কিছু পরামর্শে। আইডিয়া উৎপত্তি, সংরক্ষণ এবং প্রয়োগ এই তিন ধাপে যে জিনিসগুলো মনে রাখবেন-

  • নতুন কোন আইডিয়ার জন্য সেই বিষয়ে চিন্তা করুন এবং বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন, পড়াশুনা করুন। আইডিয়া তৈরি হলে সেটা কি কাজে লাগতে পারে, কি কি সুবিধা অসুবিধা সবকিছু ভেবে আইডিয়ার থিমটাকে (theme) একটু পরিবর্তনও করতে পারেন।
  • সবার সাথে আইডিয়া শেয়ার করতে যাবেন না, কারণ ‘আইডিয়া চোর’ আমাদের আশেপাশে কম না। আইডিয়া যদি ব্যবসায়িক বা প্রফেশনাল হয় তাহলে আপনার বস অথবা এমন কারো সাথে শেয়ার করুন যিনি আপনাকে এটা বাস্তবায়নে সাহায্য করতে পারবেন, গোপন রাখতে পারবেন।
  • আপনার লেখার ডায়রিতে আইডিয়া ম্যানেজমেনট (idea management) এর জন্য আলাদা একটা জায়গা তৈরি করে নিন আর ডায়রি লেখার অভ্যাস না থাকলে ছোট টুকরো কাগজে আইডিয়াটা লিখে মানিব্যাগ অথবা পার্সে রেখে দিন যাতে করে পরে আপনার ডায়রি বা টুকরো কাগজ দেখলে আইডিয়ার কথা মনে পড়ে। সময়,অর্থ এবং রিসোর্সের অভাবে হয়ত আপনি আইডিয়া এখুনি বাস্তবায়ন করতে পারছেন না কিন্তু ভবিষ্যতে পারবেন সেজন্যই আইডিয়াকে আপনি এভাবে সংরক্ষণ করতে পারেন।
  • প্রতিদিন ঘুমানোর আগে আপনার দৈনিক আইডিয়াগুলো পর্যবেক্ষণ করুন। যেগুলো প্রয়োগ হয়েছে সেগুলো টিক দিন। এবার সাপ্তাহিক আইডিয়া চেক করুন, দেখুন কয়টি আইডিয়া এখনো জমা আছে। সেই চিন্তা করে পরিকল্পনা মাফিক এগোন।
  • আপনার কাছে এখন কি পরিমাণ রিসোর্স-সময়,অর্থ,লোকবল ইত্যাদি আছে সেটা চিন্তা করে আপনাকে আইডিয়া বাস্তবায়নে অগ্রসর হবে। আপনি সেজন্য একটা ছকে নির্দিষ্ট আইডিয়ার জন্য সময় পরিকল্পনা , রিসোর্স, লক্ষ্য এভাবে কলাম করে পরিকল্পনা করতে পারেন।
  • ছক অনুযায়ী সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এবার আপনি আইডিয়াটি বাস্তবায়ন করুন, আপনার চিন্তাশক্তির বহিঃপ্রকাশ ঘটান। সৃজনশীল ও প্রশংসনীয় আইডিয়া বাস্তবায়নের জন্য আপনি মানুষের কাছে সমাদৃত হবেন।

মনে রাখবেন, সুস্থ দেহ ও মনে আপনার মস্তিষ্কে যে আইডিয়া তৈরি হবে সেটা পরবর্তীতে নাও আসতে পারে। কারণ মানুষের চিন্তাধারা, ধ্যানধারণা প্রতিদিন একরকম হয় না। তাই আইডিয়াকে বাঁচিয়ে রাখুন আপনার ভবিষ্যৎ লাভের জন্য।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।