ঝগড়ার পর বন্ধুর সাথে পুনরায় সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে যা করবেন

How to Make Peace With a Friend After a Fightবন্ধুর সাথে ঝগড়া (fight with friend) হয় নি এমন মানুষ পৃথিবীতে খুঁজে পাওয়া যাবে না। দুজন মানুষ দীর্ঘদিন একসাথে মেলামেশা করলে তাদের মধ্যে যেমন আন্তরিকতা গড়ে ওঠে তেমনি হয় মতের অমিলও। কিন্তু এই ঝগড়া দীর্ঘদিন ধরে অমীমাংসিত অবস্থায় রাখলে হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা আছে সেই বন্ধুটিকে। চলুন জেনে নেয়া যাক, বন্ধুর সাথে ঝগড়া হবার পর পুনরায় সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে হলে (make peace with friend) কি করবেন।

  • কিছু সময়ের জন্য দুজনেই আলাদা থাকুন। শান্ত হবার জন্য সময় নিন। এই ফাঁকে ভেবে রাখুন পরবর্তীতে দেখা হলে বন্ধুকে কি কি বলবেন। বেশিরভাগ সময়ই দেখা যায় সময় এই ক্ষত সারিয়ে তোলে। তাই ঝগড়ার পরদিনই বন্ধুর সাথে মিটমাট করতে চলে যাবেন না।
  • মিটমাট করতে গেলে কখনোই “তোমার দোষ” কথাটি বলবেন না। যদি ঝগড়ার পেছনে আপনার বন্ধুর দোষ বেশি হয়েও থাকে তারপরেও এই কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। কারণ এতে সমস্যার সমাধান হবে না বরং নতুন করে ঝগড়ার সৃষ্টি হতে পারে।
  • মিথ্যা বলবেন না এবং নিজের দোষ ঢাকার চেষ্টা করবেন না। আপনার যদি কোন দোষ থেকে থাকে তবে তা স্বীকার করুন এবং অকপটে ক্ষমা চেয়ে নিন।
  • ক্ষমা চাওয়ার সময় শুধুমাত্র “সরি” শব্দটি যথেষ্ট নয়। আপনি যে অনুতপ্ত এবং মন থেকেই ক্ষমা চাইছেন তা আপনার বন্ধুকে বুঝিয়ে দিন।
  • যদি বন্ধুর (friend) কোন কাজ আপনার রাগের কারণ হয়ে থাকে তবে শান্তভাবে তাকে বুঝিয়ে বলুন। তার কোন কাজগুলো আপনার অপছন্দ তা বুঝিয়ে বলুন এবং ভবিষ্যতে তা আর না করার অনুরোধ করুন। রেগে গিয়ে বোঝানোর চেষ্টা করবেন না।
  • ঝগড়ার পর তা মিটমাট করতে যাওয়ার সময় বন্ধুর জন্য কোন উপহার নিয়ে যান। হতে পারে আপনার কালেকশানে থাকা কোন গল্পের বই যা সে এর আগে অনেকবার চেয়েছে, অথবা তার প্রিয় কোন খাবার।
  • বন্ধুর সাথে ঝগড়া মেটানোর জন্য অন্য বন্ধুদের সাহায্য নিন। সবাই মিলে বসে পরিকল্পনা করুন সে বন্ধুটিকে চমকে দেয়ার যাতে করে তার রাগ দূর হয়ে যায়।

 

এ ধরণের আরও লেখা পড়ুনঃ

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।