বাড়িয়ে নিন আপনার ফেসবুক আইডির সিকিউরিটি যা সাধারণত আপনি এড়িয়ে যান

facebook-securityফেসবুক আইডি নিয়ে অনেকেরই সাধারণ অভিযোগ হচ্ছে আইডি হ্যাক হয়ে যাওয়া। আপনি নিজেই হয়তো দেখে থাকবেন, যে আপনার কোন বন্ধুর আইডি থেকে হঠাৎ এমন সব পোস্ট করা হচ্ছে যা সাধারণত তার কাছে আশা করা যায় না, বা কেউ পোস্ট দিয়ে ক্ষমা চাইছে তার আইডি হ্যাক হয়ে যাবার পর হ্যাকার এর দেয়া অশ্লীল পোস্টের জন্য। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের ইউজারদের আইডির সিকিউরিটির জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা রেখেছে, যা হয়তো আপনি জানেন না, বা জেনেও গুরুত্ব দেন না। দেখুন তো নিচের সিকিউরিটি স্টেপগুলো আপনি ফলো করেছেন কি না?

১. লগইন নোটিফিকেশন এনাবল করুনঃ

এই কাজটা করতে অনেকেই ভুলে যান, বা চোখে পড়লেও জানেন না এর কাজ কি। কিন্তু আপনার আইডিতে যদি অন্য কেউ লগ ইন করতে চায় তখন এই অপশনটাই আপনাকে সেটা জানিয়ে দিতে পারে। প্রথমে আপনার মোবাইল নাম্বার বা ইমেইল আইডি দিন যেখানে আপনাকে মেসেজের মাধ্যমে জানানো হবে কেউ আপনার একাউন্টে আপনার অজান্তেই ঢুকতে চাইছে কি না। এর পর ক্লিক করুন Settings> Security> Login Notification, এবার ক্লিক করুন ইমেইল বা টেক্সট মেসেজ বা দুটোতেই ।
pic 1

২. পরীক্ষা করুন আপনি ছাড়া এই মুহূর্তে আর কে আপনার একাউন্টটি ব্যবহার করছেঃ

আপনার পাসওয়ার্ড জানে এমন কেউ আপনার অজান্তেই দেখে নিচ্ছে আপনার ব্যক্তিগত ম্যাসেজ বা আপনার এক্টিভিটি। হতে পারে এমনটা তাই দেখে নিন আপনার ছাড়া আর কোন কোন ডিভাইস থেকে আপনার আইডিতে লগ ইন করা হয়েছে। ক্লিক করুন Settings> security> where You’re logged in
এখানে Current session এ দেখাবে কোন কোন ডিভাইস থেকে এখন বা পূর্বে আপনার ফেসবুক আইডিতে লগ ইন করা হয়েছে। যদি কোন সন্দেহজনক ডিভাইস আপনার চোখে পড়ে তাহলে তার পাশের End Activity তে ক্লিক করুন বা আপনার পাসওয়ার্ড বদলে ফেলুন।
আবার এমন যদি কখনো হয়ে থাকে সাইবার ক্যাফে বা কোন বন্ধুর ডিভাইস থেকে আপনি নিজ আইডিতে লগ ইন করেছেন কিন্তু লগ আউট করতে ভুলে গেছেন, তাহলে এই End Activity তে ক্লিক করলে সেই ডিভাইস থেকে আপনার আইডিটি লগ আউট হয়ে যাবে।
pic-2

৩. পাসওয়ার্ড নির্বাচনের ব্যাপারে সতর্ক হোনঃ

এই ভুলটা অনেকেই করে থাকে। নিজের নাম, মোবাইল নাম্বার ইত্যাদি পাসওয়ার্ড হিসেবে দিয়ে থাকে। আর সহজেই যে কেউ তা জেনে নিতে পারে। পাসওয়ার্ড হতে হবে কম পক্ষে ৮ ডিজিটের। আর লেটার, নাম্বার এবং সিম্বল মিলিয়ে আপনার পাসওয়ার্ড বানান। যেমনঃ #@s3cur3@# ইত্যাদি। এধরনের পাসওয়ার্ড হ্যাক করা বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায় হ্যাকারদের পক্ষে।
pc-3

৪. ইমেইল আইডি হাইড করুনঃ

যে ইমেইল আইডি দিয়ে আপনি ফেসবুক আইডি খুলেছেন সেটি হাইড করে রাখুন। অন্য কোন কাজে এই ইমেইল আইডি ব্যবহার না করলেই ভাল হয়, আর খুব দরকার ছাড়া কাউকে জানাবেন না কোন ইমেইল আইডি দিয়ে আপনি ফেসবুক আইডি খুলেছেন।

এ ধরণের আরও লেখা পড়ুনঃ

১. আপনার জি-মেইল আইডিকে রক্ষা করুন হ্যাকারের হাত থেকে

২. যেভাবে চিনবেন একটি ফেইসবুক আইডি ফেইক কি না?

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।