যেভাবে দূর করবেন অন্ধকার ভীতি

Achluophobiaঅন্ধকার ভীতি আমাদের দেশের এবং সারা বিশ্বের অসংখ্য শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্কদের একটি প্রচলিত সমস্যা। অন্ধকার ভীতিতে যারা আক্রান্ত তারা আসলে অন্ধকারকে ভয় পায় না, বরং ভয় পায় কাল্পনিক এমন কোন সম্ভাবনাকে যা অন্ধকারে তার ক্ষতি করতে পারে। অন্ধকার ভীতিকে বলা হয় Achluophobia। আরও অসংখ্য ফোবিয়ার মত এরও প্রতিকার রয়েছে। চলুন জেনে নিই কিভাবে তা করবেন।

১. প্রথমেই খুঁজে বের করুন ভয়ের কারণ (figure out what exactly causes your fear):

ভীতি কাটানোর জন্য প্রথমেই আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে অন্ধকারে থাকা অবস্থায় ঠিক কোন বিষয়টি আপনার ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। আপনি কি আশঙ্কা করছেন কোন প্রাণী বা ব্যক্তি আপনাকে আক্রমণ করবে? আপনি কি আশঙ্কা করছেন কাল্পনিক কোন জীব আপনার ক্ষতি করবে?

২. যুক্তি ব্যবহার করুন (use logic):

ভয়ের কারণটি খুঁজে পাওয়ার পর যুক্তি দিয়ে ভাবুন আসলেই একে ভয় পাওয়ার কোন প্রয়োজন আছে কি না। কোন প্রাণী বা ব্যক্তি কি উদ্দেশ্যে আপনাকে অন্ধকারে আক্রমণ করতে পারে? আপনি কি তাদের কোন ক্ষতি করেছেন? আপনার বাসার চারদিক থেকে বন্ধ রুমে কি ভাবে অপরিচিত কোন প্রাণী বা মানুষ ঢুকতে পারে? কাল্পনিক কোন জীবকে ভয় পেলে ভেবে দেখুন সে জীবের অস্তিত্ব আসলেই আছে কি না? কিছু কিছু মানুষ অনেক বেশি কল্পনাশক্তি নিয়ে জন্মায়, আর এই অতি কল্পনাই তাদের ভয়ের কারণ হয়ে উঠে। আপনার অন্ধকার ভীতির পেছনে এই অতি কল্পনাই দায়ী।

৩. সতর্কতা অবলম্বন করুন (stay careful):

অন্ধকার ভীতিতে আক্রান্ত হলে এর জন্য সর্বাবস্থায় সতর্ক থাকুন। ছোট একটি টর্চ বা দিয়াশলাই অথবা লাইটার সবসময় নিজের সাথে রাখুন যা আপনাকে সাহস যোগাবে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে বিছানার নিচে, আলমারির ভেতর, বাথরুম ইত্যাদি জায়গা অনুসন্ধান করে দেখুন। এসব জায়গা সাধারণত আমাদেরকে অন্ধকারে ভীত করে তোলে। আপনার সন্তান যদি অন্ধকার ভীতিতে আক্রান্ত হয় তবে তাকে সাথে নিয়েই এই কাজ গুলো করুন। ফলে সে বুঝতে পারবে, তার ভয়ের কারণ নিতান্তই অমূলক। হঠাৎ করে বিছানার নিচ থেকে ভুত বের হয়ে আসার কোন সম্ভাবনা নেই।

৪. ভয়ের মুখোমুখি হোন (face your fears):

যে কোন ভীতি দূর করার একমাত্র সমাধান হচ্ছে তার মুখোমুখি হওয়া। যদি অন্ধকার ঘরে ঘুমাতে আপনার ভয় লাগে তবে প্রথম কিছুদিন কাউকে সাথে নিয়ে অন্ধকার ঘরে ঘুমান। এতে করে আপনি অন্ধকার অভ্যস্ত হয়ে যাবেন। অন্ধকার কোন স্থানে যেতে ভয় লাগলে একদিন সাথে একটা টর্চ লাইট নিয়ে সে স্থানে যান সাহস করে। খুব বাধ্য না হলে টর্চ জ্বালাবেন না। কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকুন এর পর জোরে হেসে সে স্থান থেকে ফিরে আসুন। কারণ আপনি ভয়কে জয় করতে পেরেছেন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি।পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।