যেভাবে আপনি একটি সুন্দর হাস্যোজ্জ্বল ফটোগ্রাফ পেতে পারেন

10341999_686348264755648_130232696424040768_n
ছবি কৃতজ্ঞতা- রিমি শারমিন

ফটোগ্রাফ একটি অসাধারণ জিনিস। একটি সুন্দর  হাস্যোজ্জ্বল ফটোগ্রাফ আপনাকে আর দশটা মানুষ থেকে সহজে আলাদা করে দেবে। বর্তমান সময়ে আমরা হরহামেশাই বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এমনকি দৈনন্দিন কর্মক্ষেত্রে আমাদের ছবি ব্যবহার করে থাকি আর এই ছবির মাধ্যম আমরা আমাদের নিজেদের ব্যক্তিত্বকে সহজে প্রকাশ করতে পারি। আসুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে একটি সুন্দর ফটোগ্রাফ পেতে নিজেকে ক্যামেরার সামনে উপস্থাপন করবেন।

১) নিজেকে শান্ত রাখুন এবং শিথিল থাকুনঃ
ফটোগ্রাফে আপনাকে শক্ত চেহারার দেখানোর প্রধান কারণ হলো আপনার স্নায়বিক অস্থিরতা এবং একটি শক্ত শারীরিক ভঙ্গি অবলম্বন করা। তাই নিজেকে শান্ত রাখুন আর আপনার শরীরের সব পেশী শিথিল রাখুন ।

২) হাসুনঃ
আপনার স্বাভাবিক হাসিখুশী ভঙ্গিমাকেই ক্যামেরার সামনে মেলে ধরুন। তবে মনে রাখবেন হাসিটি যেন স্বাভাবিক হয়। কেননা মেকি হাসি আপনাকে ঠাট্টা বা উপহাসের পাত্রে পরিণত করতে পারে।

৩) আপনার চিবুক হালকা নিচে কাত করে রাখুনঃ
আপনি আপনার চিবুক হালকা কাত করে ক্যামেরাই দৃষ্টিনিবদ্ধ করুন। এতে আপনার চেহারায় সুন্দর একটি অভিব্যক্তি ফুটে উঠবে। তবে চিবুক কিন্তু অতিমাত্রায় কাত করবেন না।

৪) একটি ফোকাস বিন্দু বেছে নিনঃ
ক্যামেরার সামনে বসে নিজের চোখাটাকে যত্রতত্র না ঘুরিয়ে ক্যামেরায় একটি ফোকাস বিন্দু বেছে নিন। আপনার চেহারা ও আপনার দৃষ্টিকে অবিচলিত রাখুন। মনে রাখবেন আপনার একটি সুন্দর ফোটোগ্রাফ ক্যামেরার পেছনের মানুষটির অনুপ্রেরণার উৎস।

৫) ক্যামেরার ফোকাস করুন মুখমন্ডলেঃ
এই পর্যায়ে আপনার আলোকচিত্রী নির্দেশের প্রয়োজন হবে। আপনি ঠোঁট চেপে হাসবেন নাকি ঠোঁট ছড়িয়ে হাসবেন সেটা ক্যামেরার পিছনের মানুষটি বলে দেবে। কেননা সে অভিজ্ঞ তাই সে বুঝবে আপনার কোন মুখভঙ্গি আপনাকে বেশী মানাবে।

৬) আপনার চোখের একটি সুন্দর আবেদন তৈরি করুনঃ
আপনি আপনার চোখ সুন্দর ভাবে তৈরি করে অথবা চোখে কটাক্ষ দৃষ্টি এনে একটি সুন্দর ফোটোগ্রাফ পেতে পারেন। ক্যামেরার সামনে যাওয়ার আগে আয়নায় চোখের ভঙ্গীর অনুশীলন করে নিতে পারেন।

৭) নিজেকে আদুরে ও কৌতুকপূর্ণ ভাবে প্রকাশ করুনঃ
নিজেকে আদুরেভাবে প্রকাশ করুন। চোখেমুখে একটি কৌতুকপূর্ণ ভাব প্রকাশ করতে পারেন। নিজেকে আত্মবিশ্বাসী এবং প্রাকৃতিকভাবে মেলে ধরুন।

সময়কে আমরা বেঁধে রাখতে না পারলেও ফটোগ্রাফের মাধ্যমে আমরা আমাদের ভালোলাগার সময়গুলো ঠিকই বেঁধে রাখি। নিজেকে একটু তৈরি করে সাজিয়ে গুছিয়ে নিয়ে ক্যামেরার সামনে তুলে ধরলে আমরা সেই সময়টাকে একটু বেশীই সুন্দরভাবে ধরে রাখতে পারবো।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।