পিরিয়ডের ব্যথার উপশমে আপনার করণীয়

Lotus Poseআপনার পিরিয়ড চলাকালীন সময়ে কি মারাত্মক পেটে ব্যথার সম্মুখীন হতে হয়? অধিকাংশ নারীরাই তাদের পিরিয়ড চলাকালীন সময় অসহ্য ব্যথার সম্মুখীন হন। নারীদের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্যার মধ্যে এটি একটি অন্যতম সমস্যা। পিরিয়ড চলাকালীন সময়  ব্যথার অন্যতম কারণ হল হরমোনের মাত্রা পরিবর্তন। আর এই হরমোনের মাত্রাগত পরিবর্তনের ফলে এই সময়টাই নারীরা কখনো কখনো অসহ্য ব্যথার সম্মুখীন হন।

সবারই এই ব্যথার মুখোমুখি হতে হয় না, কিন্তু আপনি যদি সেই দুর্ভাগাদের একজন হন যারা এই সমস্যার সম্মুখীন হয় তবে আপনার এই এই ব্যথার উপশমে কিছু পরামর্শ দেওয়া হল।

পর্যাপ্ত পরিমাণে কলা খানঃ

অনেক সময় শরীরে পটাসিয়াম অভাবজনিত কারনে পিরিয়ডকালীন সময় ব্যথা  হয়, আর সেক্ষেত্রে আপনি এই সময়টাতে কলা খেতে পারেন। কলায় পটাশিয়াম থাকায় এটি আপনার পটাসিয়ামের অভাব পূরণ করে আপনাকে ব্যথা  থেকে মুক্তি দেবে।

ক্যাফেইন এড়িয়ে চলুনঃ

পিরিয়ড চলাকালীন সময়ে যততুকু পারা যায় ক্যাফেইন গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকুন, কেননা এটি আপনার ব্যথা বৃদ্ধির কারণ হতে পারে। চা, কফি, চকোলেট এড়িয়ে চলুন।

গরম পানি দিয়ে গোসল করুনঃ

হালকা উষ্ণ পানি দিয়ে গোসল করুন। উষ্ণ পানি আপনার শরীর চাঙ্গা করে তুলবে। তবে পিরিয়ড চলাকালীন সময় বাবল বাথ থেকে দূরে থাকুন, এতে আপনার শারীরিক ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে।

ব্যায়াম করুনঃ

আমাদের অনেকের ধারণা যে পিরিয়ড চলাকালীন সময়ে নিজেকে যতোটা পারা যায় গুটিয়ে রাখা ভালো। যেমন চুপচাপ শুয়ে বসে থাকা, হাঁটাহাঁটি না করা এবং দৌড়ঝাঁপ হয় এমন যেকোন কাজ থেকে বিরত থাকা। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা, পিরিয়ডের ব্যথা কমাতে ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই, পিরিয়ড চলাকালীন সময়ে প্রতিদিন ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন। জগিং করতে পারেন, আবার বিছানায় শুয়ে দুই পায়ের নিচে বালিশ রেখে বিশ্রাম করুন। দেখবেন ব্যথা কমে যাবে।

হিটিং প্যাডঃ

পিরিয়ডের ব্যথার উপশমে আপনার করণীয় আপনার কাজের মধ্যে প্রথম কাজ হবে হিটিং প্যাড ব্যবহার করা। আপনি আপনার পাকস্থলীর এবং ব্যথার  ব্যাপ্তি বুঝে এই হিটিং প্যাড আলতো করে পেটে ধরে তাপ নিন, দেখবেন আস্তে আস্তে কষ্টটা কমে যাচ্ছে।

ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার খানঃ

ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার আপনার পিরিয়ডের ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে। একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণকারী নারীদের পিরিয়ডের ব্যথা অনেকাংশে কম অনুভব করেন।

ডাক্তারের পরামর্শ নিনঃ

কোন কিছুতেই যদি ব্যথা উপশম না হয় তবে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন। অনেক সময় জন্ম নিয়ন্ত্রন পিল পিরিয়ডের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে, তাই আপনার ডাক্তারকে একবার জিজ্ঞেস করুন আপনি পিল খেতে পারবেন কিনা।

পিরিয়ডের ব্যথা কমাতে বেশী বেশী পানি পান করুন, বই পরুন অথবা টিভি দেখুন। এক কথায় আপনার মনোযোগ ব্যথা থেকে সরিয়ে নিন, কেননা ব্যথা উপর বেশী মনোযোগ নিবদ্ধ করলে ব্যথা আর বেশী অনুভূত হবে। অতিরিক্ত টাইট পোশাক পড়া থেকে বিরত থাকুন আর ঢিলেঢালা পোশাক পরুন। আর সব থেকে যেটির দিকে আপনাকে বেশী খেয়াল রাখতে হবে সেটি হলো পরিষ্কার পরিছন্নতা।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।