দুঃস্বপ্নের বিভীষিকাকে কাটিয়ে উঠুন সহজেই

How to Cope with Nightmaresদুঃস্বপ্ন দেখে মাঝরাতে ঘুম ভাঙেনি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। মানুষ বিভিন্ন কারণে দুঃস্বপ্ন দেখে। আর একেক জনের কাছে দুঃস্বপ্নের (nightmare) ব্যাখ্যা একেক রকম। আমরা সে বিষয়গুলোই স্বপ্নে দেখি যা নিয়ে সারাদিন, বা দিনের কোন একটি সময়ে ভাবি, যার প্রতি আমরা আগ্রহী বা যা নিয়ে আমরা ভীত।

লক্ষ করলে দেখবেন আমরা কখনো এমন কিছু স্বপ্নে দেখি না যা আমরা নিজের চোখে দেখিনি। কারণ মানব মস্তিষ্ক অদেখা জিনিস কল্পনা করতে পারে না। যে সব ভয়াবহ জিনিস আমরা স্বপ্নে দেখি তা একটু বিশ্লেষণ করলে দেখবেন আপনার আশেপাশের এমন কিছুর সাথে তার মিল আছে যা আপনি নিজ চোখে দেখেছেন।
এই লেখায় আলোচনা করবো সাধারণ দুঃস্বপ্ন এবং কোন ধরণের কাজগুলো আপনার রাতের ঘুমকে দুঃস্বপ্ন মুক্ত রাখবে সে সম্পর্কে।

  • রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ভয়ের মুভি (scary movie) দেখা থেকে বিরত থাকুন। মুভিতে দেখা বিষয়গুলো আপনার মস্তিষ্ক সংরক্ষণ করে রাখবে যা দুঃস্বপ্নের কারণ হতে পারে। এর পরিবর্তে মজার কোন মুভি দেখতে পারেন।
  • অন্ধকার ঘরে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। কারণ হালকা আলো আশেপাশে এমন সব ছায়া তৈরি করে যা দুঃস্বপ্ন দেখে ঘুম ভেঙ্গে যাওয়ার পর মনে আরও ভীতি সঞ্চার করতে পারে। ডিম লাইট জ্বলিয়ে ঘুমানোর পরিবর্তে বালিশের পাশে টর্চ রাখুন যাতে প্রয়োজনের মূহুর্তে জ্বালাতে পারেন।
  • দুঃস্বপ্ন দেখে ঘুম ভেঙ্গে যাওয়ার পর তা নিয়ে আর কল্পনা করবেন না। কেন দেখলাম, কি কি দেখলাম এসব নিয়ে চিন্তা না করে অন্য যে কোন মজার বা প্রশান্তিমূলক কিছু কল্পনা করুন।
  • রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মেডিটেশন (meditation) বা যোগ ব্যায়াম করে নিতে পারেন, যা মনকে প্রশান্ত করবে।
  • দুঃস্বপ্ন দেখে ঘুম ভেঙ্গে যাওয়ার পর নিজেকে শান্ত রাখুন, মনকে বোঝান যা দেখেছেন তা সত্য নয়।
  • দুঃস্বপ্ন দেখার পর স্বপ্নের ব্যাখ্যা বা খোয়াবনামা ধরণের কোন বই নিয়ে বসবেন না। কারণ এসব ভিত্তি হীন যা শুধুমাত্র আপনার মানসিকতাকে আরও দুর্বল করে দেয়া ছাড়া অন্য কিছুই করতে পারে না।
  • যদি বারবার একই দুঃস্বপ্ন দেখতে থাকেন এবং ঘুম ভাঙার পরেও আশে পাশে এমন কিছু দেখতে থাকেন যা সেখানে থাকার কথা নয়, তাহলে মনরোগ চিকিৎসকের (psychiatrist) পরামর্শ নিন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।