হীনমন্যতা দূর করে বাড়িয়ে তুলুন নিজের আত্মমর্যাদা

Ways To Forgive Yourselfআত্মমর্যাদা হলো নিজের সম্পর্কে নিজের দৃষ্টিভঙ্গি ও বিশ্বাস যে আপনি কেমন ব্যাক্তি , আপনার ক্ষমতা , নিজের ইতিবাচক ও নেতিবাচক দিক এবং ভবিষ্যতের জন্য নিজের কাছে কি প্রত্যাশা সে সম্পর্কে। অনেক সময় নিজেদের সম্পর্কে অন্যের দৃষ্টিভঙ্গির কারণে আত্মমর্যাদা কমে যেতে পারে, ফলে আমরা হতাশায় ভুগতে পারি। আর যদি নিজের কাছে নিজের আত্মমর্যাদা দৃঢ় ও ইতিবাচক থাকে তবে তা মোকাবেলা করতে পারি।

  • তিনটি তালিকা তৈরি করুন, একটি আপনার শক্তিশালী দিক, একটি আপনার অর্জনসমূহ , এমন একটা বিষয় যার জন্য আপনি নিজের প্রশংসা করেন। এটা তৈরি করতে আপনার কাছের মানুষ ও বন্ধুদের সহায়তা নিন। তালিকাটি নিরাপদ জায়াগায় রাখুন ও নিয়মিত পড়ুন।
  • নিজের সম্পর্কে ইতিবাচক চিন্তা করুন। মনে রাখবেন আপনার সমস্যা থাকা সত্ত্বেও আপনি ব্যাক্তি হিসেবে একক, বিশেষ ও মূল্যবান। এবং নিজের সম্পর্কে ভাল অনুভব করা আপনার প্রাপ্য। নিজের সম্পর্কে নেতিবাচক চিন্তা খুঁজে বের করুন এবং তা মোকাবেলা করুন যেমন- আমি কিছু পারি না, আমাকে দিয়ে হবে না, কেউই আমাকে পছন্দ করে না ইত্যাদি।
  • স্বাস্থ্যের দিকে বিশেষ মনোযোগ দিন- যেমন আপনার চুলের স্টাইল , নখ কাঁটা , দাঁতের যত্ন নেয়া। সুস্বাস্থ্যের জন্য সুষম খাবার খান, ডায়েট করুন। খাওয়ার সময় টিভি দেখা ও রেডিও শোনা বন্ধ করুন। খাবার টেবিলে এমন খাবার দিয়ে প্লেট সাজান যাতে আকর্ষণীয় লাগে ও খাওয়ার আগ্রহ আসে।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করুন। প্রতিদিন হাঁটুন এবং শক্তি প্রয়োগ হয় ও ঘাম ঝরায় এমন ব্যায়াম করুন।
  • যথেষ্ট ঘুমানো নিশ্চিত করুন। ঘুম ভালো না হলে কাজেও মন বসে না, ভালো লাগে না কিছুই।
  • যা আপনাকে আনন্দ দেয় তাই করুন। অন্তত প্রতিদিন এমন একটা কাজ করুন যা আপনাকে আনন্দ দেয় এবং আপনাকে মনে করিয়ে দেয় যে আপনার এটা প্রাপ্য।
  • এমন কাজকর্ম করুন যা আপনার নিজেকে প্রকাশ করতে ও অন্যদের সাথে ইতিবাচকভেবে যোগাযোগ করতে পারেন। যেমন আঁকাআঁকি , সঙ্গীত , কবিতা ও নাচের মাধ্যমে ।
  • নিজের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করুন যা আপনি বাস্তবিকভাবে পারেন এবং তা করুন। যেমন যোগ ব্যায়াম করা, গান শেখা অথবা ঘরে ছোট ডিনার পার্টিতে নিজেই রান্না করুন।
  • অন্যের জন্য ভালো কিছু করুন। যেমন বন্ধুকে দেখতে যাওয়া , এলাকায় দান জাতীয় কাজের সাথে যুক্ত হওয়া ।
  • আপনার আশেপাশে বা কাছের যারা আছেন তাদের সাথে সময় বের করুন। মানুষের সাথে সামাজিক যোগাযোগ বৃদ্ধি করুন।

আপনার সমস্যার ক্ষেত্রে পরিবার, বন্ধু ও আত্মীয়দের সাহায্য নিন, আপনার মধ্যে কি হচ্ছে , কি করতে পারেন তার জন্য উপদেশ ও সাহায্য নিন। অন্যদিকে যে সকল লোক , স্থান , প্রতিষ্ঠান আপনার সাথে খারাপ আচরণ করেছেন বা আপনার খারাপ অনুভুতি হয়েছে তা এড়িয়ে চলুন। যা করা বন্ধ করেছিলেন বা আগে করতেন আবার তা করা শুরু করুন ।

“Until you value yourself, you won’t value your time. Until you value your time, you will not do anything with it. ”

– M. Scott Peck

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।