মেডিটেশন শুরু করবেন যেভাবেঃ পর্ব-২

meditation-2মেডিটেশন করা এমন কোন কঠিন কাজ নয়। আপনি চাইলে সহজ ও সাধারণ কিছু পদ্ধতিতেই মেডিটেশন করতে পারেন। আর পেতে পারেন মানসিক প্রশান্তি, প্রখর মনোযোগ শক্তি, শারীরিক সুস্থতা ও সাফল্য মণ্ডিত জীবন যাপন।

  • কেন মেডিটেশন করবেন এবং মেডিটেশন শুরু করবেন যেভাবে সেসব নিয়ে আগের লেখাতে জানানো হয়েছে। আজকে বলবো মেডিটেশনে আপনার আসন কেমন হবে আর কিভাবেই বা মেডিটেশন করবেন।
  • মেডিটেশনের জন্য সময়টা আপনি আপনার সুবিধামত বাছাই করে নিতে পারেন। চাইলে সকালের মিষ্টি রোদে বসেই মেডিটেশন করতে পারেন। আবার সেটা হতে পারে রাত কিংবা সন্ধ্যার শুরুতে। শুধু নিশ্চিত করুন জায়গাটা যেন নিরিবিলি আর শান্ত হয়। বাসার বারান্দা কিংবা ছাদ মেডিটেশনের জন্য ভালো জায়গা হতে পারে।
  • মেডিটেশন আপনি মেঝেতে শুয়ে, চেয়ারে বসে কিংবা বিছানায় শুয়েও করতে পারেন। তবে শুয়ে মেডিটেশন করতে চাইলে আগে নিশ্চিত করুন আপনার বিছানা যেন শক্ত ধরণের হয় আর তা না হলে মেঝেতে মাদুর বিছিয়ে মেডিটেশন করুন।
  • একটি শান্ত ও নিরিবিলি জায়গা দেখে মেডিটেশনের জন্য বসে পড়ুন। আপনি যেভাবে বসতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন সেভাবেই বসুন। এবার চোখগুলো ধীরে ধীরে বন্ধ করে ফেলুন। নাক দিয়ে শান্তভাবে লম্বা করে শ্বাস নিন এবং মুখ দিয়ে দম ছাড়ুন। কল্পনা করুন প্রতিবার নিঃশ্বাস নেওয়ার সাথে সাথে আপনি গ্রহণ করছেন অফুরান প্রাণশক্তি আর দম ছাড়ার সাথে বের করে দিচ্ছেন দেহ মনের সব খারাপ আর দূষিত যা কিছু।
  • এবার আপনার কল্পনাশক্তি কাজে লাগান। ভাবুন আপনি চমৎকার কোন প্রাকৃতিক পরিবেশের মধ্যে আছেন। যেখানকার প্রতিটি জিনিস আপনাকে আনন্দ প্রদান করছে, আপনি নিজেকে একদম মুক্ত ভাবতে পারবেন আর মনে অনুভব করবেন চরম প্রশান্তি। এর ফলে আপনার মনের সমস্ত গ্লানি আর হতাশা দূরীভূত হবে আর সাথে সাথেই আপনার মধ্যের সৃজনশীল চিন্তা শক্তি বাড়বে।
  • যদি চান শুয়ে মেডিটেশন করবেন তাহলে শক্ত বিছানা বা মেঝেতে মাদুর বিছিয়ে শুয়ে পড়ুন আর মাথার নীচে নিয়ে নিন হালকা পাতলা দেখে একটা বালিশ। তবে যদি চান বালিশ ছাড়াই মেডিটেশন করবেন তাহলে তাও করতে পারেন। সোজা হয়ে শুয়ে হাত দুইটা আপনার শরীরের পাশে সোজা করে হাতের তালু উপরের দিকে করা রাখুন। আর খেয়াল রাখুন দুই পায়ের মাঝখানে কমপক্ষে বার আঙুল ফাঁকা থাকে। এভাবে মেডিটেশন করতে গেলে যদি আপনি ঘুমিয়ে পড়েন তাহলে একটু ঘুমিয়েই নিতে পারেন।
  • চেয়ারে বসে মেডিটেশন করতে চাইলে সবার আগে ঠিক করতে হবে চেয়ারটা যেন শক্ত হয়। এক্ষেত্রে আপনি কাঠের সিঙ্গেল চেয়ার ব্যবহার করতে পারেন। চেয়ারে ঘাড় ও শিরদাঁড়া সোজা আর টানটান করে বসে পা মাটিতে রেখে সোজা হয়ে বসুন। আস্তে আস্তে চোখ বন্ধ করুন আর চোখের পাতা খুব আরামে একটার সাথে আরেকটা লেগে যেতে দিন। কিতু ভুলেও আপনার ঘাড় নীচে নামিয়ে নেবেন না। এভাবে বসে ভাবুন আপনার প্রিয় কোন সুখকর স্মৃতি দেখবেন আপনার সব টেনশন আর দুর্ভাবনা মুহূর্তেই শেষ হয়ে যাবে।
  • মেঝেতে বসে মেডিটেশন করতে চাইলে একটা মাদুর পেতে স্বাভাবিকভাবেই বসে পড়ুন। এরপর আপনার দুইপা সমান্তরাল ভাবে একটার উপর আরেকটা তুলে নিন, দুইহাত তুলে আপনার হাতের তর্জনী আঙুল বৃদ্ধাঙ্গুলির সাথে লাগিয়ে বাকী আঙ্গুলগুলো সোজা রেখে চোখ বন্ধ করুন। মাথা সোজা রেখে আস্তে আস্তে শ্বাস নিন আরা শ্বাস ছাড়ুন। নিজের সৃজনশীল চিন্তা শক্তি কাজে লাগিয়ে নিজের চিন্তাশক্তি প্রসারিত করুন। দেখুন আপনার মনের সমস্ত অস্থিরতা আর ক্লান্তি নিমেষেই দূর হয়ে যাচ্ছে। আপনি মানসিক প্রশান্তি লাভের জন্য এর থেকে ভালো কিছু আর হয়না।

মেডিটেশন করতে চাইলে আপনাকে সবার আগে স্থির হতে হবে। আপনি যদি কোন রকম কোন আসন না নিয়েই শুধুমাত্র শান্ত হয়ে কিছুক্ষণ বসে বা শুয়ে সময় কাটান সেটাও অনেক সময় মেডিটেশনের মতো কাজে দেয়।

আরো পড়ুন

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।