ফেসবুকে বন্ধুদের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠবেন যেভাবে

0x600বর্তমানে সবারই আছে একটি ফেসবুক একাউন্ট। আর সবাই চায় তার ফ্রেন্ড লিস্টের বন্ধুদের মাঝে জনপ্রিয় হতে। কিভাবে ফেসবুকে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারেন, তা জানতে চলুন ঘুরে আসি নিচের লেখাটা থেকে।

১) প্রোফাইল আর কাভার ফটোর সামঞ্জস্যতা রক্ষা করুনঃ
আপনার প্রোফাইলের ছবি এবং কাভার ফটোর ছবি ভাল হতে হবে। কেননা কোন ব্যক্তির চোখে এটিই প্রথম চোখে পড়ে। খেয়াল রাখবেন আপনার প্রোফাইল পিকচার এবং কাভার ফটো যেন আকর্ষণীয় হয়। যেমনঃ আপনি প্রোফাইল পিকচারে নিজের একটা সাদা কালো Portrait ছবি ব্যবহার করলেন। আর কাভার ফটোতে একটি সাদা কালো ছবি ব্যবহার করলেন যেখানে আপনি হয়তো কোন জঙ্গলে একা একা হাঁটছেন। ভেবে দেখুন দুইটি ছবি আকর্ষণীয় এবং সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে।

২) ইতিবাচক মনোভাব রাখুনঃ
সবসময় ইতিবাচক মনোভাব রাখবেন। যে কোন ব্যাপারে ইতিবাচক আলোচনা করুন। সবসময় কোন না কোন বিষয় নিয়ে হতাশা প্রকাশ, অভিযোগ মানুষকে বিরক্ত করে তুলতে পারে। কেননা সবাই হয়তো নিজেই অনেক ব্যাপারে সমস্যার মধ্যে আছে। তাই ফেসবুকে এসেও কারো আপনার সমস্যার কথা শুনতে ভাল লাগবে না।

৩) যা পোস্ট করবেনঃ
পান থেকে চুন না, একটি জর্দার কণা খসলেও অনেকে স্ট্যাটাস দিয়ে ফেলে। মনে রাখবেন, এই ধরণের ব্যক্তি সবার কাছে বিরক্তিকর হিসেবে পরিচিত। সামান্য বিষয় নিয়েই স্ট্যাটাস দিয়ে ফেলবেন না। মজার গল্প, জোকস, কবিতা, অনুকাব্য বা আপনি যা ভাল পারেন তা পোস্ট করুন। মানুষ বিরক্ত হতে পারে এই ধরণের বিষয় পোস্ট করবেন না।

৪) পোস্ট ‘পাবলিক’ অপশনে রাখুনঃ
মজার পোস্টগুলো পাবলিক অপশন দিয়ে পোস্ট করতে পারেন। এতে আপনার লেখা অনেকের চোখে পড়বে এবং দ্রুত ছড়াবে। তবে ব্যক্তিগত বিষয়গুলো পাবলিক করা থেকে বিরত থাকুন।

৫) আলোচনায় অংশ নিতে উৎসাহ দিনঃ
এমন সব বিষয় পোস্ট করুন যা অন্যকে আপনার স্ট্যাটাসে কমেন্ট করতে উৎসাহ দিবে। কোন বিষয় নিয়ে বন্ধুদের নিকট জানতে পারেন বা কোন ভাল বিষয় নিয়ে তর্ক শুরু করতে পারেন। যেমনঃ
‘কোন গানটা এই বর্ষার দিনে শোনা যেতে পারে?’ অথবা
‘বাইরের শিল্পী না এনে আমাদের দেশের শিল্পীদের দিয়ে কি অনুষ্ঠানটা উদ্বোধন করা যেতো না?’
এই ধরণের পোস্ট দিন। এতে অনেকেই আপনার স্ট্যাটাসে নিজের মতামত জানাবে।

৬) অন্যদের গুরুত্ব দিনঃ
শুধু নিজে জনপ্রিয় হচ্ছেন নাকি, বা নিজের স্ট্যাটাসে কয়টা লাইক এলো এইসব না গুনে অন্যদের সাথেও আপনাকে যোগাযোগ বৃদ্ধি করতে হবে। অন্যের স্ট্যাটাসে কমেন্ট করুন, মেসেজের জবাব দিন, জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানান। এতে সহজেই অন্যরা আপনাকে ভাল বন্ধু হিসেবে মেনে নিবে।

৭) সময়জ্ঞানঃ
কোন সময়ে পোস্ট দিচ্ছেন এটিও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। রাতের দিকে, ছুটির দিনে ফেসবুকে অনেক ব্যবহারকারী থাকে। সুতরাং ঐ সময় দেয়া পোস্ট সকলের চোখে সহজে পড়বে।

তবে মনে রাখবেন, ফেসবুকে জনপ্রিয় হওয়া কোন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। এটিকে ধ্যান জ্ঞান বানিয়ে ফেলে আপনার অন্যান্য সকল কাজের ক্ষতি করবেন না। অবসরে নিজেকে চনমনে করার জন্যে ব্যবহার করুন ফেসবুক। হ্যাপি ফেসবুকিং।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।